20 Jan 2018 : Sylhet, Bangladesh :

সিলেট 11 January 2018 ব্যক্তিত্ব  (পঠিত : 495) 

গল্পকারের পঞ্চান্ন ও সেলিম আউয়াল ভাই

গল্পকারের পঞ্চান্ন ও সেলিম আউয়াল ভাই
     

জহীর মুহাম্মদ:
বলছিলাম শক্তিমান সাংবাদিক ও জনপ্রিয় গল্পকার সেলিম আউয়ালের কথা। সব বিশেষণ ছাপিয়ে যিনি স্বমহিমায় ভাস্বর। যারাই সান্নিধ্য পেয়েছেন তাদের কাছে খুব বেশী প্রিয় একটি নাম সেলিম আউয়াল। সবার হৃদয়ে সমভাবে বসত করে নেয়া সেলিম আউয়ালকে মিডিয়া ও সাহিত্যের সাথে জড়িত কারো কাছে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়া রীতিমত "মায়ের সাথে মামু বাড়ীর গল্প করা"র শামিল।

গল্পের মানুষ। খবরের মানুষ। হৃদয়ের মানুষ প্রিয় সেলিম আউয়াল। ব্যক্তি সেলিম আউয়াল আগাগোড়া যেমন একজন নীতিবান প্রাণ পুরুষের নাম,তেমনি তার গল্পে বারবার উচ্চারিত হয়েছে সমাজের চরম বাস্তবতা আর মানবতার দ্বীপ্ত উচ্চারণ।

তাঁর সাথে প্রত্যক্ষ পরিচয় সিলেট মোবাইল পাঠাগারে, বছর তিনেক আগে। তারও আগ থেকে তাকে চিনি তার গল্পে আর সংবাদে।
একজন লেখকের জনপ্রিয়তার বিচারে পাঠক তাকে যে ভক্তি আর পরম শ্রদ্ধায় জানে, বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে বাস্তবে এসে ব্যাক্তি লেখক তেমন হয়ে ওঠেনা। এক্ষেত্রে সেলিম আউয়াল ব্যতিক্রম। তার রয়েছে নীতি প্রসূত একটি সুস্থ বিবেক, আছে বদান্যতা আর বিনয়ী সুবিশাল একটি অন্তর। দুই ঠোট পেরিয়ে মুক্তোদানার মত পরিপাটি দাঁতের ফাক দিয়ে বেরিয়ে আসা সোনাঝরা হাসি অন্তর শিকার করেনি এমন পাষাণ লোকের সংখ্যা কম। সেই থেকে সাহিত্যের জলসায়,চায়ের আড্ডায় কখনো সহযাত্রী হিসেবে সময়ে অসময়ে তাকে দেখেছি।

মনে আছে ২০১৬ সালে একবার আমার ২য় কবিতার বই "বিশ্বাসে বিসর্জন " এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ধুলোঝড় মাড়িয়েও তিনি হাজির হয়েছিলেন শহরতলী সাহেবের বাজারস্থ আমার প্রতিষ্ঠানে। প্রমাণ পেয়েছিলাম আমাকে তিনি প্রাণ উজাড় করেই ভালোবাসেন। আমিও যথাসাধ্য তাকে দেখি পরম শ্রদ্ধায়, ভিষণ ভক্তিতে।

আজ তার জীবনের হিসেব পঞ্চান্ন'য় পূর্ণ হলো। পঞ্চান্ন তম জন্মদিনে তার জন্য রইল দোয়া। মোমবাতি জ্বালিয়ে, বেলুন উড়িয়ে, কেক কেটে নয়। প্রেরণার এই দিকপাল সাদামনের মানুষটির শুভ এই দিনে শুভেচ্ছা রইলো, রইলো শ্রদ্ধার আর এক দরিয়া মুনাজাত। আর বেশী আজ নয়, ভাগ্যে থাকলে ২১ জানুয়ারী তাকে ঘিরে আয়োজিত কোন অনুষ্ঠানে বুকে জড়িয়ে ধরে বলবো- ভালো থাকুন ভাই!


Free Online Accounts Software