18 Dec 2017 : Sylhet, Bangladesh :

সিলেট 6 December 2017 শিক্ষা  (পঠিত : 881) 

সত্যিকার মানুষ হওয়ার প্রত্যয় বুকে লালন করতে হবে---প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ

সত্যিকার মানুষ হওয়ার প্রত্যয়
বুকে লালন করতে হবে---প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ
     


ইমরান ইমন:এমসি কলেজ, সিলেট-এর অধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ বলেছেন, তারুণ্যের প্রেরণায় উদ্দীপ্ত হয়ে নিজেদের মন ও মননকে সৃজনশীলতার দিকে ধাবিত করতে হবে। সমাজ ও দেশের কল্যাণে ইতিবাচক ভূমিকা রাখার জন্য প্রত্যয়ী হওয়ার বিকল্প নেই। বাংলা বিভাগে অধ্যয়ন করার সুযোগ লাভ করে তোমরা কলেজের গৌরবজ্বোল ইতিহাসের অংশীদার হয়েছো। এজন্য নিজেদেরকে সত্যিকার মানুষ হিসেবে গড়ে উঠে কলেজের সম্মান অক্ষুণ্ন রাখতে হবে।
মুরারিচাঁদ কলেজ, সিলেট-এর বাংলা বিভাগ আয়োজিত ২০১৭ সালের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণডালা, নবীনবরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বাংলা বিভাগ-এর বিভাগীয় প্রধান ড. সাহেদা আখতারের সভাপতিত্বে গতকাল বুধবার কলেজের ছাত্র মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন এমসি কলেজ, সিলেট-এর শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক তোতিউর রহমান, বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মো. হারুন অর-রশীদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সুনীল ইন্দু অধিকারী, শেখ মো. নজরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন বাংলা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র জাহেদ আলী এবং গীতা থেকে পাঠ করেন সম্মান ফলপ্রার্থী মুক্তপদ তালুকদার। এছাড়া অনুষ্ঠানে এমসি কলেজের বিভিন্ন ছাত্রসংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। ছাত্রলীগের শাহেল আহমদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন দেলোয়ার হোসেন, হোসেন আহমদ, রাসেল আহমদ এবং সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আল আমিন। অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন তানভীর আহমদ ফাহিম। প্রাক্তন শিক্ষার্থী মধ্যে বক্তব্য রাখেন খালেদ মাসুদ এবং নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আলাউদ্দিন সরকার, আনোয়ার হোসেন। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলা বিভাগের প্রভাষক জিনি বেগম, বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী চন্দ্রিকা, বাঁধন, রাব্বি। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়, পাশাপাশি নবীন শিক্ষার্থীদেরকে ফুল এবং ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ বিলাল উদ্দিন, অঞ্জনা রাণী দে, প্রভাষক শাহানা বেগম, মো. জাহেদুজ্জামান, কানন কান্তি দাস, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রজত কান্তি সোমসহ বাংলা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীবৃন্দ। অনুষ্ঠানের শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধরনের সংগীত পরিবেশন বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ বাংলা বিভাগের ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে প্রকাশিত ‘অভিজ্ঞান’র মোড়ক উন্মোচন করেন।
সভাপতির বক্তব্যে বাংলা বিভাগ-এর বিভাগীয় প্রধান ড. সাহেদা আখতার বলেন, তোমাদের আগমনে আমাদের বিভাগে এক সোনালী পালক যুক্ত হয়েছে। শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে নিজেদেরকে সত্যিকার মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে তোমাদের প্রচেষ্ঠা চালাতে হবে। তোমাদেরকে গড়ে তুলতে আমাদের সর্বাত্নক প্রচেষ্ঠা এবং সহযোগিতার দ্বার খোলা থাকবে।


Free Online Accounts Software