আরজে রেহানের পথ চলা
   22 Oct 2017 : Sylhet, Bangladesh :

29 July 2015 ব্যক্তিত্ব  (পঠিত : 7543) 

আরজে রেহানের পথ চলা


আরজে রেহানের পথ চলা
     

সিটি এফ এম ৯৬.০ তে রেডিও জকি হিসেবে যোগ দেয় রেহান রাসুল। তার মুল জায়গা গানের সূরে। নিজের ব্যান্ড নিয়ে ভোকাল হিসেবে গান করতে গিয়ে নজরে পড়েন প্রযোজকে এবং সকল কর্মকর্তার। যে অনুষ্ঠানে গান করতে গিয়েছিলেন, সেই অনুষ্ঠানেই দুই সপ্তাহ পর থেকে উপস্থাপনা করে রেহান। এর আগে স্টেইজে গান গাওয়া, কিশোর শিল্পি হিসেবে বিটিভি এবং অন্যান্য অনেক চ্যানেলে গান করেছেন। অভিজ্ঞতা বলতে সেটুকুই সম্বল ছিলো। আট মাসের মাথায় ঐ স্টেশনের "অনুষ্ঠান প্রধান" হিসেবে পদোন্নতি হয় রেহানের। খুব সম্ভবত বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ অনুষ্ঠান প্রধান রেহানই, মাত্র ছাব্বিশ বছর বয়সে আর কেউ কি এই পদে ছিলো কখনও? হোক না সেটা নতুন, কম জনপ্রিয় স্টেশন। সেখান থেকে নানান কারনে এক বছরের মাথায় বিদায় নিলেন নিজে থেকেই। ততদিনে তার থ্রিজি নামের অনুষ্ঠানটি অনেকের পছন্দের। কোন রকম ব্রান্ডিং ছাড়াই তার পেইজে দশ হাজার লাইক অতিক্রম করে। তাকে জিজ্ঞেস করা হলো "আরজে" বলতে কি বোঝেন? উত্তর দিলেন হেসে "আরজে বলতে আলাদা কিছু নেই। একজন ভালো উপস্থাপক যখন রেডিও তে কথা বলেন তাকে আমরা আরজে বলি। যে মানুষ কথা গুছিয়ে বলতে পারে, যার চিন্তাশক্তি আর উপস্থিত বুদ্ধি প্রখর এবং গান নিয়ে যে প্রচুর ঘাটায়, সে-ই আরজে। হয়তো রেডিওর মাইক্রোফোনে না বলে কেউ বলে আড্ডায়।

সিটি এফ এম ছাড়ার সময় তার মনে একটাই উদ্যেশ্য ছিলো। বাংলাদেশের এক নম্বর রেডিও স্টেশনের আরজে হবে সে। মাত্র এগারোদিনের মাথায় এবিসি রেডিও তে যোগ দেয় রেহান। রঙ ফ্যাশন হাউসের ওনার বিপ্লব সাহার সাথে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন বেশ কয়েকবার। সনামধন্য আরজে কিবরিয়া বলতে গেলে বিপ্লব সাহার কথাতেই ইন্টারভিউ নিতে নিমরাজি হয়েছিলেন বিপ্লব সাহার সম্মানে, তারপর সানাউল্লাহ্‌ লাভলু (তৎকালীন অনুষ্ঠান প্রধান, এবিসি রেডিও) এর কাছে ইন্টারভিউ, তারপর এবিসিতে নিয়োগ! বর্তমানে তারা রাম পাম নামে গানের লাইভ অনুষ্ঠান করেন শুক্রবার রাত নয়টা থেকে জনপ্রিয় আরজে শারমিনের সাথে, যে কারনে অনেকেই তাকে প্রেম রোগের "বিপি" সাথে মিলিয়ে ফেলে। এছাড়া প্রতি বৃহস্পতিবার রাত ১১.২০ মিনিটে আরজে কিবরিয়ার প্রযোজনায় উপস্থাপনা করেন "ডর"! মাত্র কয়েক মাসে ডর অনুষ্ঠানটি রেটিং-এ পাঁচের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি জিজ্ঞেস করলে বললেন "আমি একজন মোটিভেশনাল স্পিকার হতে চাই, আমার গান, কথা (আরজে) দিয়ে মানুষের কিছু বাজে মানসিকতায় পরিবর্তন আনতে চাই, এমন কিছু কথা বলতে চাই, যে কথা বলার পর টিএসসি তে আর নারী লাঞ্ছনা ঘটবেনা, মানুষ রাজনদের খুন করবে না, একের পর এক প্রেম করে সময় নষ্ট করবে না, ফেইসবুকে না থেকে গল্পের বই পড়বে। রাস্তায় ময়লা না ফেলে পরিস্কার করবে, এমন অনেককিছু, আর গান, আমার এই একটা জিনিস থাকবে, যদি বেচে থাকি"।

তার কথা বলার ধরনে একটু স্পর্ধা আছে, আবার আছে জেট বিমানের পাইলটের মতো "টাচ অ্যান্ড ফ্লাই" যোগ্যতা! "টাচ অ্যান্ড ফ্লাই" উপাধিটি পেয়েছেন সিটি এফেমের প্রধান সাইদুর আফতাবের কাছ থেকে। সরাসরি সম্প্রচার চলাকালীন যে কোন ভুল উক্তি, কটূক্তি, ইত্যাদিকে নিমিষেই ঘুরিয়ে দেন রেহান ভালোর দিকেই!

আরোও ছবি


আরজে রেহানের পথ চলা

Free Online Accounts Software