পাহাড়ীদের ঘরে-সংসারে
   23 Oct 2017 : Sylhet, Bangladesh :

সিলেট 3 January 2015 সাহিত্য-সংস্কৃতি  (পঠিত : 2712) 

পাহাড়ীদের ঘরে-সংসারে

   পাহাড়ীদের ঘরে-সংসারে
     

বশির উদ্দিন: আমাদের ভার্সিটি অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ । এই ছুটিটা কিভাবে কাটানো যায় তা নিয়ে চিন্তা করছিলাম
হঠাৎ পাখি বলল: এই তোর না গারোদের ওখানে যাওয়ার কথা । তার কথাটা মনে ধরলো ।
তাছারা একটি গারো মেয়ের সাথে আমার বন্ধুত্ব ছিল । ৬ জানুয়ারী ভোরে আমরা সিলেট থেকে রওয়ানা
দিলাম তাদের বাড়ির উদ্দেশ্যে । তারা থাকে সুনামগঞ্জের দোয়ারা থানার সীমান্তবর্তী এলাকা ঝুমগাঁও
গরো টিলায় । সেখানে পৌছতে আমাদের প্রায় সন্ধ্যা হয়ে গেল । প্রথমে বাস যোগে পরে মটর সাইকেলে
শেষমেশে হেটে গিয়ে পৌছলাম । ঐখানে গিয়ে উঠলাম আমার বান্ধবী আশার বাড়ীতে তার বড় ভাই অরণ্য
আমাদেরকে আগ থেকেই চিনতো । সে পুলিশ লাইনে লেখা পড়া করেছে । পাখির ক্লাসমেট ।
আমাদেরকে এরকম আকস্মিকভাবে দেখে তারা খুব অবাক হলো ।
তারা তাড়াহুড়া করে পানি এনে দিলো । অরণ তো ঝাপটে ধরলো আমাদের । আশা ঘর থেকে
আবেগহীনের মতো বেরিয়ে এসে বলল : আগে জানালেই পারতে । রাতে আমাদের থাকার ব্যবস্থা হলো
টিলার উঁচুর এক মাচাঙে । আশার বাবা নেই । তার মা এর এক মামা আছেন । তারা তিন বোন এক ভাই ।

আশা সবার ছোট সে হলো তাদের গোত্রের নকমা , অর্থাৎ ভবিষ্যতের গোত্র মাতা । একামাত্র সেই
সকল ক্ষমতা ও সম্পত্তির উত্তরাধিকারী হবে । আর তাকে যে বিয়ে করবে সে হবে নকরম ।


রাতের খাবারের পর মাচাঙে আড্ডায় বসলাম । আশার মামা আমাদেরকে জানালেন , আমরা অনেকদিন থেকেই
এখানে বসবাস করছি । তবে ময়মনসিংহ ও মৌলভীবাজারে আমাদের স¤প্রদায়ের মানুষ বেশী । এখানে আমরা
প্রায় ৩০টা ফ্যামিলি আছি । আর সুনামগঞ্জ সদরের নারায়ন তলায় আছে আরো কিছু পরিবার । বাংলাদেশে
আমাদের জনসংখ্যা প্রায় ৭০ হাজারের মতো ।
এখানে আমরা মারাক ও সাংমা গোত্রের অন্তর্ভূক্ত । আমাদের মূল বসতি ছিল চুরুয়া পাহাড়ে । ভারতের মেঘালয়
রাজ্যের গারো পাহাড়ও আমাদের আদি নিবাস । আর এখন বৃহদাংশ গারোই ওখানে বসবাস করে ।
হঠাৎ আনকেল জিজ্ঞস করলেন খাবার দাবারে কোন সমস্যা হয় নাইতো:আমরা বললাম জিনা । তবে কি খাইছি
বুঝতে পারিনাই । উনি বললেন : শাকসব্জি আর আলো পিসে উচি বানানো হয় সেটা দিয়ে তোমরা খেয়েছো ।
তবে আমরা কিন্তু সব খাই বলে হা হাকরে হাসলেন । কুচিয়া মাঙ্স,শুকর,কাকরা সব খাই এসবে কিন্তু অনেক শক্তি ।


সকাল নয়টার দিকে আশা এসে ঘুম ভঙালো সে কিছু মোয়া আর পানি টেবিলে রেখে বলল তারাতারি উঠে খাও ।
আজ রবিবার আমাদের গীর্জায় অনেক কাছে আমি যাই । ঘন্ঠা খানেকের মধ্যেই আসছি । উঠো ॥
একটু পর অরণ্য আসলো । সাথে একজন মহিলা উনার পিঠে চাদর দিয়ে বাঁধা একটি বাচ্চা ।
আর একটা বাচ্চা বয়স ছয় কি সাত হবে । সে গান ছড়া বলছে :-নাংকা কাচি রেয়াংআ
বলদে নাচি
মাই বল কো দেন বারা
বলং আগাতচি......
ছড়াটি অবশ্য পরে তার কাছ থেকে শুনে শুনে লিখেছি । মহিলা আমাদেরকে আদাব দিয়ে বললেন :
ছুনচি তোমরা নাকি সিলেট থে আসচো ? আমার ছেলেডারে সিলেত ভর্তি করামু । রাতে আমাদের
বাসায় আইছো । মহিলা “ল”উচ্চারন করতে পারেন না? অরণ্য জানালো আমরা অনেকেই “ল” উচ্চারন
করতে পারিনা ।
উঠোন দিয়ে একটা ছেলে হেটে যাচ্ছিলো চৌদ্দ-পনেরো বয়সের হবে । আমি ডাক দিলাম
বললাম এদিকে এসো : কাছে আসলে বললাম :কি নাম তোমার ? ডেভিড ।
আমি বললাম তুমি গোল আলু বলতো? সে বলল: গোর আরু , পাখি বললো তুমি গোল আলু বলতে পারলে
২০ টাকা দেব , বাচ্চাটি গোর আরু ,গোর আরু বলে চেচাচ্ছে । আরেকটু চেষ্টা করে দেখনা! গো....ল..আ...লু ।
সে বলতে লাগলো : মনরে মন একবার ক’না গোরের আরো ,গোর..... । আমি আর পাখি হাসতে হাসতে অবস্থা কাহিল ।
আর বাচ্চাটি বলেই যাচ্ছে গোর আরু...............।


বাইবেলের যোহনে আছে : আর প্রেম এই ,যেন আমরা তার আজ্ঞানুসারে চলি -আশার মুখে
এই বাক্যটি শুনে আমার রা বন্ধ হয়ে গেল , সে বলে যাচ্ছে তুমি যদি আমাকে ভালোবাসো
তবে আমার মত হয়ে যেতে হবে । আমি হলম নকমা । শুন আমাদের গারো স¤প্রদায়ে নকমা হলো
সংসারের ছোট মেয়ে যে বাবার মার সকল সম্পত্তির উত্তরাধিকারী এবং প্রায় রাজকুমারীর মতো ।
আর তুমি আমাকে বিয়ে করলে আমার এখানে চলে আসতে হবে । এটাই আমাদের নিয়ম । গারোদের
নিয়ম হলো বিয়ের পর ছেলেকে মেয়ের সংসারে চলে আসতে হবে । শুভ তুমি জানইতো আমাদের
সমাজটা মাতৃতান্ত্রিক ।
এমন সময় উঠোন থেকে শৌল আনকেল ডাক দিলেন : পিসা বাহিরে আসো । পিসা মানে খোকা ।
আমি মাঢাঙগর থেকে বেরিয়ে উঠোনের মতো জায়গাটায় গেলাম । ওখানে আমার বন্ধু পাখি আর
শৌল আনকেল বসা ছিলেন ।
আমি বললাম আনকেল কি সুন্দর জোছনা , আসলে পাহাড়ে বসে জোছনা দেখার স্বাদটাই আুলাদা ।
পাখি আনকেলকে জিজ্ঞেস করলো : তা আপনারা কিভাবে এখনে বসবাস করছেন ? আনকেল আর পাখি
আলাপ করছে । আর আমি আকাশের দিকে তাকিয়ে আছি ।

বশির উদ্দিন
সমাজকর্ম ( ৩য় বর্ষ)
শাবিপ্রবি,সিলেট।
০১৭৭২-১৮১৬০৫



লেখক মেলা  এর অন্যান্য লিখাঃ

22 October 2017  ঘর পালানো মেয়ে

21 October 2017  অংকে আমি কাঁচা

20 October 2017  প্রিয়তমা

20 October 2017  আমার মা

12 October 2017  পরপারে তুমি উত্তীর্ণ হও


Free Online Accounts Software