User Login | | নীতিমালা | 26 Sep 2017 : Sylhet, Bangladesh :
    সংবাদ : 
মুক্তিযুদ্ধের চর্চা ও দেশপ্রেমের ধারক বাহক 
সৃষ্টির পাঠশালা হচ্ছে হৃদয়ে ’৭১  সংবাদ : মানুষের বেঁচে থাকা ও পরিবেশ
রক্ষার একমাত্র অবলম্বন বৃক্ষ  সংবাদ : বিএনপি নেতা এডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহিন'র পিতা ইন্তেকাল  সংবাদ : ‘রসগোল্লার’ আরেক শিকার গণি মিয়া
  সংবাদ : মুক্তিযোদ্ধার শয্যাপাশে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান 
কমান্ড সিলেট মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ  সংবাদ :  মহিউদ্দিন শিরু’র ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত  সংবাদ : সিলেট মহানগর বিএনপি ১৯নম্বর ওয়ার্ডে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন
  সংবাদ : রাজারগাঁও মাদ্রাসার সাবেক মুহাদ্দিস
মাওলানা তবারক আলী আর নেই  সংবাদ : অর্থমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দূর্গাপূজা উপলক্ষে 
সদর উপজেলায় বস্ত্র ও অর্থ বিতরণ  সংবাদ : আখালিয়াতে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক রেজাসহ ৪জন আহত   সংবাদ : মানুষরূপী রাক্ষসী সুচি মানবতার কলংক
রোহিঙ্গাদের সম্মানের সাথে ফিরিয়ে নিতে হবে
  সংবাদ : শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল  সংবাদ : অরুণ আলোর অঞ্জলি’র প্রকাশনা সম্পন্ন
  সংবাদ : অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক এর উদ্যোগে শারদীয় দুর্গা পুজা উপলক্ষে বস্ত্র বিতরণ

  সংবাদ : বঙ্গবীর এমএজি ওসমানীর
৯৯তম জন্মবাষির্কী পালন
sylhetexpress.com এর picture scroll bar এর code. এই কোড যেকোন website এ use করা যাবে।
| সিলেট | মৌলভীবাজার | হবিগঞ্জ | সুনামগঞ্জ | বিশ্ব | লেখালেখি | নারী অঙ্গন | ছবি গ্যালারী | রঙের বাড়ই ব্লগ |

তাসলিমা খানম বীথি
Phone/ Mobile No.: 01712-148 147
E-mail : syfdianews@gmail.com
তাসলিমা খানম বীথি
স্টাফ রিপোর্টার-সিলেটের প্রথম অনলাইন দৈনিক সিলেট এক্সপ্রেস ডট কম।
লাইফ মেম্বার: কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ, সিলেট।
এ্যাকটিভিস্ট: সিলেট সেন্টার ফর ইনফরমেশন এন্ড মাস মিডিয়া (সিফডিয়া)।
কৈতর প্রকাশন, সিলেট।
ই-মেল- syfdianews@gmail.com

Web Address : www.sylhetexpress.com
তাসলিমা খানম বীথি এর লিখা
.: 13 July 2017 : ব্যক্তিত্ব :.

তারুণ্যদীপ্ত শাদা মনের মানুষ সাংবাদিক সংগঠক বশিরুদ্দিন


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথ:
সিলেটের প্রবীণ সাংবাদিক, সংগঠক ও সাহিত্যিক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন। বয়স ৬৩ হলেও টগবগে তরুণদের মত এখনো তিনি ছুটে বেড়ান। তার ঠোঁটের এক ফালি হাসিই প্রমাণ করে তিনি কতটা প্রাণবন্ত ও সজীব। কারো সাথে দেখা হলেই হাসিমুখে কুশলাদি জিজ্ঞাসা করেন। নবীন প্রবীণ সকল বয়সের মানুষের সাথেই যেন তার বন্ধুসুলভ আচরণ। বাংলাদেশকে নিয়ে তার অনেক স্বপ্ন। দেশকে নিয়ে তার অনেক ভাবনা। তিনি স্বপ্ন দেখেন একটি সুখী সুন্দর, দূর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের। সাংবাদিকতা থেকে অবসর নিলেও তিনি কর্মজীবন থেকে অবসর নেননি। সমাজের বিভিন্ন উন্নয়মূলক কাজের সাথে জড়িয়ে রেখেছেন নিজেকে সবসময়। বর্তমানে তার সময়ের বেশিরভাগই কাটে সাহিত্যচর্চায়। সুযোগ পেলেই কবিতা, গল্প কিংবা নিজের ফেলে আসা দিনগুলো নিয়ে লেখালেখিতে ডুব দেন। অবসর জীবনে এসেও তিনি নিজেকে অবসর দেননি। সামাজিক অথবা সাহিত্য-সংস্কৃতি বিষয়ক কোন অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ পেলে এক মূর্হুতের জন্য সেইসব অনুষ্ঠানে যোগ দেবার সুযোগ হাতছাড়া করেন না তিনি। ছুটে যান সেইসব অনুষ্ঠানে এবং চুটিয়ে উপভোগ করেন সেই সব অনুষ্ঠান। সাদাসিধে সহজ সরল জীবন যাপনেই তিনি অভ্যস্থ। তার সহজ সরল শিশু সুলভ আচরণ সবাইকে মুগ্ধ করে, কাছে টানে।
সাংবাদিক মুহম্মদ বশিরুদ্দিনের জন্ম ১৯৫৩ খ্রিস্টাব্দের ৩১ মার্চ বিশ্বনাথ উপজেলার সিঙ্গেরকাছ মৌজার শেখের গাঁও গ্রামে। তার বাবা মরহুম মো. আবদুল আজিজ এবং মা মরহুমা মোছাম্মত রইসা বেগম চৌধুরী। তিন ভাই দু বোনের মধ্যে মুহম্মদ বশিরুদ্দিন তৃতীয়।

সাদা শুভ্র দাড়ি হাস্যোজ্জ্বল মুখটি যে কাউকে আপন করে নেবে সহজে। মুহম্মদ বশিরুদ্দিন সাধারণ জীবন যাপন করতে ভালোবাসেন। তার পছন্দের একমাত্র জামা সাফারি। তরুণ বয়স থেকেই তিনি এই সাফারি জামাটি পরতে শুরু করেন। এখনো তিনি তার পছন্দের জামাটি দারুন করে রেখেছেন। সবুজ শাক সবজি আর ডাল ভাত তার সবচেয়ে প্রিয় খাবার। অপছন্দ করেন মিথ্যা কথা বলা, দূর্নীতি ও অনৈতিক আচরণ। জীবনে অনেক কিছুই হতে চেয়েছিলেন তিনি। যা চেয়েছিলেন তা হতে পারেননি বলে তার কোন আফসোস নেই। গ্রামে গিয়ে ক্ষেতকৃষিতে ধান সবজি উৎপাদন করা তার একটি শখ। তিনি আদর্শ হিসেবে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স:) এর আদর্শকে ফলো করার চেষ্টা করেন। অবসরে তিনি সঙ্গী হিসেবে বেছে নেন বই পড়া আর সাহিত্যচর্চাকে।

গৃহকোণে তার একমাত্র সঙ্গী, সবচেয়ে প্রিয়, সবচেয়ে কাছের মানুষ তার প্রিয়তমা স্ত্রী জাহান আরা বেগম। সুযোগ পেলে দুজনে ঘুরে বেড়ান দেশে কিংবা বিদেশে। ব্যক্তিগত জীবনে মুহম্মদ বশিরুদ্দিন দুই সন্তানের জনক। আশরাফ সুলতানা কলি তার একমাত্র কন্যা। তিনি যুক্তরাজ্য স্বামী সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন এবং একটি বেসরকারী সংস্থায় চাকরি করছেন। আর তার একমাত্র পুত্র সন্তান নাসিরুদ্দিন রায়হান কানাডায় নিজ পরিবার নিয়ে প্রবাসী জীবন যাপন করছেন। বইপড়া, বই সংগ্রহ মুহম্মদ বশিরুদ্দিনের একটি প্রিয় বিষয়। এজন্যে তিনি গড়ে তুলেছিলেন একটি ব্যক্তিগত পাঠাগার। ২০১৩ সালে পাঠাগারটি ঐতিহ্যবাহী কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদকে দান করেন।

সিলেটের প্রথম অনলাইন দৈনিক সিলেট এক্সপ্রেস ডট কম-এর পক্ষ থেকে সাংবাদিক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন এর একটি সাক্ষাতকার গ্রহণ করা হয়। ২২ নভেম্বর ২০১৫। সাক্ষাতকারটি গ্রহণ করেন সিলেট এক্সপ্রেস-এর স্টাফ রিপোর্টার তাসলিমা খানম বীথি।

বীথি: সাংবাদিকতা জগতে কিভাবে আসলেন ? কবে থেকে এ পেশার সাথে জড়িত হলেন ?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: বিশ্বনাথ উপজেলার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান আমার আত্মীয় এবং ঘনিষ্ট বন্ধু। তার শৈশব কৈশোর লন্ডনে কেটেছে। ১৯৮৩ সালে দেশে এসে আমাকে বলল, সে আর লন্ডনে স্থায়ীভাবে ফিরে যাবে না। দেশে থাকতে চায়। দেশে থাকতে হলে সমাজের জন্য কিছু করতে হলে প্রাথমিকভাবে কী করতে হবে আমার কাছে পরামর্শ চায়। এসব আলোচনা পর আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম সিলেট থেকে সাপ্তাহিক একটা পত্রিকা বের করা যাক। যেমন কথা তেমন কাজ। তখন সিলেটে সাপ্তাহিক যুগভেরী, সিলেট সমাচার, সিলেট বাণী, দেশবার্তা বের হতো। আমরা যে পত্রিকা বের করব তার নাম দিলাম ‘সাপ্তাহিক সিলেট সংবাদ’, যথারীতি ডিক্লারেশনও নিলাম। স্বয়ং সম্পূর্ণ প্রেস কিনলাম। জামতলায় পত্রিকার অফিসের জন্যে বাড়ী ভাড়া করি। সাপ্তাহিক সিলেট সংবাদ বের করে ফেলি। ’৮৪ সালের এপ্রিল মাস থেকে সাপ্তাহিক সিলেট সংবাদ নিয়মিত বের হতে লাগলো। এতে মুহিবুর রহমান সম্পাদক, মহি শীরু প্রধান সম্পাদক, নূরুদ্দিন রেজা নির্বাহী সম্পাদক ও আমি ব্যবস্থাপনা সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করি। পত্রিকা বের করার প্রাথমিক ব্যয়ভার মুহিবুর রহমান দিয়েছিলেন। ’৮৫ সালে মুহিবুর রহমান বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে তার স্থলে আমাকে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। এভাবে সেই ১৯৮৪ সাল থেকেই আমি সংবাদ পত্রে কাজ শুরু করি অর্থাৎ সাংবাদিকতা জড়িয়ে পড়ি। তারপর মনিং সান পত্রিকায় ১৯৮৮-১৯৮৯ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করি। পরবর্তীতে পত্রিকাটি বন্ধ হয়ে গেলে ’৮৯ সাল থেকে আমি ইংলিশ দৈনিক নিউ নেশন-এর সিলেট ব্যুরো চিফ হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করি। ১৯৮৯-এর জুলাই থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত পত্রিকাটির সিলেটের ব্যুরো চিফ হিসেবে কাজ করি। তবে ছাত্রাবস্থা থেকে আমি লেখালেখি করে আসছি।

বীথি: সাংবাদিকতা পেশায় কার উৎসাহ ছিলো বেশী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সাংবাদিকতায় আসার জন্য আমি কারো কাছ থেকে উৎসাহ পাইনি। নিজের উৎসাহেই আমি এ পেশায় এসেছি।

বীথি: সাংবাদিকতা পেশার জন্য আপনি কাকে ফলো করতেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সাংবাদিকতায় স্থানীয়ভাবে আমি মরহুম কবি মহিউদ্দিন শীরু’র আদর্শকে অনুসরণ করি। তিনি বয়সে আমার অনুজ হলেও সাংবাদিকতা জগতে এসেছিলেন আগে। তাঁর ছিল সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি। তিনি আজ পর্যন্ত সিলেটে কর্মরত একমাত্র সাংবাদিক, সাংবাদিকতায় যার উচ্চতর ডিগ্রী রয়েছে। সিলেট সংবাদ’ বের করার পর সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে আমাদের কোন অভিজ্ঞতা ছিল না। শীরু ভাই নীতি নির্ধারনসহ সব কিছুর দিক নির্দেশনা দিতেন। এভাবে ৫/৬ মাস চলার পরে আমি নিজে দক্ষ হয়ে উঠি। আমার লেখার হাতও পাকা হয়ে যায়। সম্পাদকীয় উপসম্পাদকীয় ইত্যাদি অন্যান্য পত্রিকার মত মান সম্পন্ন হয়ে উঠে।

বীথি: সাংবাদিকতা পেশাকে আপনি এক কথায় কী বলবেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: এই পেশা অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং। তবে সবাই টিকতে পারে না। এই পেশার মাধ্যমে জাতি ও সমাজের জন্য কাজ করা যায়। এক কথায় বলব এটি একটি মহান পেশা।

বীথি: সাংবাদিকতা করতে গিয়ে আপনি কী কী সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমি সাধারনত দূর্নীতি, প্রশাসনে পরিচালিত অন্যায় অসংগতির বিরুদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করতাম। ফলে প্রায় সময় হুমকি ধামকির সম্মূখীন হয়েছি। এ সমস্যা নির্ভীক এবং সাহসিকতার সাথে কাটিয়ে উঠেছি।

বীথি: সেই সব সমস্যা সম্মূখীন থেকে কোন বিশেষ ঘটনা আছে কী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: অনেক ঘটনা আছে। তবে সেগুলো পূর্ণব্যক্ত করে আজ আবার সেগুলোকে জাগিয়ে তুলতে চাই না।

বীথি: আপনার কী কখনো মনে হয়েছে সাংবাদিকতা পেশা এসে ভুল করেছেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: না। সাংবাদিকতা পেশায় এসে কোন ভুল করিনি। মহান আল্লাহর ইচ্ছায় আমি এ পথে এসেছি। আল্লাহ যা করেন মঙ্গলের জন্য করেন। সততার সাথে এ পেশায় কাজ করলে নির্যাতিত মানুষ, সমাজ এবং রাষ্ট্রের উপকার করা যায়। মানুষ হিসেবে মানুষের জন্যে কাজ করা, এটাই তো দায়িত্ব। এ পেশা মর্যাদাশীল এবং সম্মানের। এ পেশায় বহুমাত্রিক কষ্ট আছে। তবে কাজের শেষে এর ভালো ফলাফল দেখলে মনে অপার শান্তি পাওয়া যায়।

বীথি: সাংবাদিকতা পেশার ক্ষেত্রে কোন দায়িত্বটা আপনাকে সব সময় তাড়িত করত?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: কোন সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে কোন ব্যক্তি বা গোষ্টির কোন নৈতিক ক্ষতি হচ্ছে কিনা কিংবা এ সংবাদ পরিবশেনের মাধ্যমে কোন ব্যক্তি বা সমাজ উপকৃত হচ্ছে কিনা এ বিষয়টি আমাকে তাড়িত করত।

বীথি: আপনার পরিবার সর্ম্পকে কিছু বলুন? পরিবারের আর কেউ কী এই পেশার সাথে জড়িত আছে?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমরা ছিলাম তিন ভাই, দুই বোন। সবাই মারা গেছেন। এক ভাই এক বোনের কোন উত্তরাধিকার নেই। আরো এক ভাই ও এক বোনের সন্তান আছেন। তারা সবাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী।

বীথি: আপনার শৈশব কৈশোর কোথায় কেটেছে? শৈশবের কোন মজার স্মৃতি আছে কী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমার শৈশব কৈশোর গ্রামে কেটেছে। শৈশব কৈশোর ছিলো খুব আনন্দের। আমাদের পরিবার ছিল গ্রামের আরো ২/১ পরিবারের মতো সুখি ও স্বচ্ছল। এখন কোন মজার স্মৃতি বলব। বুঝতে পারছিনা। তবে মজার ঘটনা না বলে দু:খের ঘটনা বলি। একবার আমি, আমার ছোট ভাই এবং আমার বাবা নৌকাডুবিতে পড়েছিলাম। আমি, বাবা আর আমার ছোট ভাই মিলে ফুফুর বাড়িতে যাচ্ছিলাম। ‘ফাটার হাওর’ নামের এক বিরাট হাওরের মধ্যেখানে হঠাৎ নৌকাটি ঝড়ের কবলে পড়ে। ঝড়ের তান্ডবে দোলতে দোলতে একসময় নৌকাটি উল্টে যায়। আমরা তখন নৌকা থেকে ছিটকে পড়ে যাই। ঢেউয়ের তালে আমরা ডুবছি আর ভাসছি। এক পর্যায়ে সলিল সমাধির দ্বারপ্রান্তে এসে পড়ি। ঠিক এ সময় অলৌকিকভাবে পাশের গ্রামের কয়েক তরুণ একটি নৌকা নিয়ে আমাদের মাঝিসহ ৫জনকে উদ্ধার করে। হাওর পাড়ের এই তরুণদের মহানুভবতার কথা আজো আমাকে নাড়া দেয়।

বীথি: আপনি প্রাইমারী কোন স্কুলে পড়েছেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমি আমাদের গ্রামের সিঙ্গেরকাছ ২নং প্রাইমারি স্কুলে পড়াশোনা করি।

বীথি: আপনার শিক্ষাজীবন সম্পর্কে কিছু বলুন।
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমি সিলেট শহরের রাজা জিসি হাই স্কুল থেকে ১৯৬৮ সালে এসএসসি পাশ করি। তখন শহরের হিন্দুয়ানির পার মহলøায় লজিংএ থাকতাম। ১৯৭০ সালে এইচএসসি পাশ করি। তারপর ১৯৭৩ সালে এমসি কলেজ থেকে বিএসসি পাশ করি। তবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্সে ভর্তি হলেও নানা কারনে তা শেষ করতে পারিনি।

বীথি: ছাত্র জীবনে কোন ছাত্র সংগঠনে সম্পৃক্ত ছিলেন ?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়ন (ইপসু-ইস্ট পাকিস্তান স্টুডেন্ট ইউনিয়ন) করতাম। আমরা ছিলাম মতিয়া গ্রুপে। তারপর ১৯৮১ সালে যুব ইউনিয়ন সিলেট জেলা শাখার শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে কাজ করি দুই বছর।

বীথি: আপনি কখন কর্মজীবন শুরু করেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: শিÿকতার মাধ্যমে আমার কর্মজীবন শুরু করি। সিঙ্গেরকাছ বহুমুখি উচ্চবিদ্যালয়ে শিÿকতা করেছি ৪ বছর। তারপর স্বদেশ কন্সট্রাকশন নামে একটি কনসালটেন্সী ফার্ম পরিচালনা করি। এর অফিস ছিলো নগরীর সুরমা মার্কেটে।

বীথি: আপনার সাংগঠনিক জীবন সম্পর্কে কিছু বলুন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন ‘দূর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলন’ এর সাথে সম্পৃক্ত আছি। আমি এই সংগঠনের সদস্য সচিব হিসেবে কাজ করছি।

বীথি: এই পর্যন্ত কী কী পুরষ্কার পেয়েছেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমার কর্মকান্ডের ব্যাপারে লোক চক্ষুর আড়ালে থাকতে পছন্দ করি। ২০০৯ সালে বিশ্বনাথবাসীর পক্ষে থেকে গুনীজন সংবর্ধনা ও ২০১৫ সালে সিলেটের প্রথম অনালাইন দৈনিক সিলেট এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে ২০১৬ সালে আমার জীবন ও কর্ম নিয়ে সাংবাদিক-গল্পকার সেলিম আউয়ালের লেখা ‘সাংবাদিক-সংগঠক মো. বশিরুদ্দিন’ বইয়ের প্রকাশনা উপলক্ষে আমাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছিলো।

বীথি: একজন সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে কতটুকু সফল ভাবেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: একজন সাংবাদিক হিসাবে নিজেকে কিছুটা সফল মনে করি। তবে মানুষ সব সময়ই অপূর্ণতায় ভুগেন। আমিও এর ব্যতিক্রম নই।

বীথি: অতীতের দিকে তাকালে কী কথা মনে পড়ে?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: অতীতে সহজ সরল জীবন যাপনের কথা মনে পড়ে। বর্তমানে চাহিদা বেড়েছে। জটিলতাও বেড়েছে।

বীথি: আপনার সময়কালে সাংবাদিকতা কী রকম ছিলো? এ পেশায় অতীতের সাথে বর্তমানের পার্থক্য সম্পর্কে কিছু বলুন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমাদের সময় কোন কোন ক্ষেত্রে অপসাংবাদিকতা চোখে পড়লে সিলেটের সকল সাংবাদিক একযোগে প্রতিরোধ করতেন। তখন যারাই সাংবাদিকতা করতেন সকলেই সততার সাথে কাজ করতেন। এর ব্যতিক্রম ঘটলে সাংবাদিকরাই একতার বলে হলুদ সাংবাদিকতার বিপক্ষে ব্যবস্থা নিতে পারতেন। ফলে সিলেটে সৎ সাংবাদিকতার একটি আবহ তৈরী হয়ে গিয়েছিল। এতে সর্বমহলে সাংবাদিকরা শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন। সর্বস্তরের মানুষ সাংবাদিকদের শ্রদ্ধা করত সমীহ করত। এখন সাংবাদিক এবং সাংবাদিকতার কলেবর বৃদ্ধি পেয়েছে। শিক্ষিত ছেলেমেয়েরা এ পেশায় এসেছে। পারিশ্রমিকও বেড়েছে।

বীথি: দেশের উন্নয়নে সাংবাদিকরা কী ভূমিকা পালন করতে পারে বলে আপনি মনে করেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সাংবাদিক সমাজ একটি দেশের চতুর্থ রাষ্ট্র। দেশ এবং জাতির সকল উন্নয়নে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম।

বীথি: আপনার জীবনে এমন কোন ঘটনা আছে কী যা সাংবাদিকতায় পেশায় কাজ করতে এখনো আপনাকে উৎসাহ দেয়?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সকল ঘটনাই আমাকে এ পেশায় উৎসাহ যোগায়।

বীথি: তরুণ সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য আপনার পরামর্শ কী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: তরুণ সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য আমার পরামর্শ হল সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করতে হবে। তাহলে খ্যাতি ও সফলতা দুটোই অর্জিত হবে।

বীথি: একজন সাংবাদিক হিসেবে আপনার স্বপ্নের কথা বলেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সাংবাদিক হিসেবে আমি স্বপ্ন দেখি আমার দেশকে নিয়ে। সুখি, সুন্দর ও দূর্নীতিমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ।

বীথি: সাংবাদিকতা পেশায় এখন নারীরা এগিয়ে এসেছেন এ সর্ম্পকে আপনার অনুভুতি কী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সাংবাদিকতায় নারীরা এগিয়ে আসায় সমাজে লিঙ্গ বৈষম্য দূর হচ্ছে। এটি একটি শুভ লক্ষণ। তাদের প্রতি
আমার শুভ কামনা থাকলো।

বীথি: একজন সাংবাদিকের কী কী গুন থাকা উচিত বলে আপনি মনে করেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: একজন সাংবাদিকের সততা, দায়িত্বশীলতা, কর্মদক্ষতা সময়ানুবর্তিতা, বিবেকবোধ ও দরদী মনোভাব ইত্যাদি গুনাবলী অবশ্যই থাকা উচিত।

বীথি: সিলেটে অতীতের কয়েকজন সাংবাদিকদের কথা বলেন যাদের নিয়ে আপনার গর্ববোধ হয় এবং বর্তমানে কয়েকজন সাংবাদিকদের কথা বলেন যাদের সম্ভবনা রয়েছে?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সিলেটে অতীতের সাংবাদিকতদের মধ্যে মরহুম মহিউদ্দিন শিরু, মরহুম বোরহান উদ্দিন খান, আব্দুল মালিক চৌধুরী এবং আজিজ আহমদ সেলিমকে নিয়ে গর্ববোধ করি। বর্তমানে অনেকেরই সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ আছে। তাদের প্রতি আমার শুভ কামনা।

বীথি: আমরা জানি কৃষিকাজ আপনার একটি প্রিয় বিষয়। কৃষিক্ষেত্রে আর কী পরিবর্তন আনা যায় এই বিষয় কিছু বলুন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: কৃষিকাজে উন্নত যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা দরকার। ক্যামিকেল সার পরিহার করে জৈব সার ব্যবহার করা প্রয়োজন। তাহলে কৃষি কাজে উন্নতি হবে। জমির উর্বরতা বাড়বে। এতে দেশ সমৃদ্ধ হবে।

বীথি: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কোন স্মৃতি আছে কী?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: মুক্তিযুদ্ধের সময় তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান একটি অবরুদ্ধ কারাগার ছিলো, এই স্মৃতি আজো তাড়া করে। তাছাড়া একদিন পাকিস্তান সেনা বাহিনীর গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তা ক্যাপটেন জাবেদের ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে যাওয়ার স্মৃতি আজও মনে পড়ে।

বীথি: আমরা জানি আপনি শৈশব থেকেই লেখালেখির সাথে জড়িত ছিলেন। আপনার লেখালেখির সর্ম্পকে কিছু বলুন? প্রথম লেখা কী ছিলো এবং কত সালে?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: এমসি কলেজ থেকে ছাত্ররা ‘উশষী’ নামে একটি লিটল ম্যাগ বের করতো। আমার প্রথম লেখা এমসি কলেজের ‘উশষী’ ম্যাগাজিনে বের হয়েছিল। সেটি ছিলো ‘রূপকথা : আত্মকথা নয়” শিরোনামের একটি গল্প। ১৯৭২ সালে দিকে লেখা। এটি ছিলো আমার জীবনের প্রথম ছাপার অক্ষরের লেখা।

বীথি: লেখালেখি নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা এবং স্বপ্নের কথা বলেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: আমি বাকী জীবন লেখালেখি নিয়ে কাটাতে চাই। যদি মহান আলøাহ তালা সুযোগ দেন। আমি ভালো লেখক হতে চাই।

বীথি: সিলেটের সাহিত্যচর্চাকে আপনি কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সিলেটের সাহিত্য চর্চায় উলেøখযোগ্য একটি দিক হচ্ছে এখন অনেক তরুণ তরুনী লেখালেখিতে এগিয়ে আসছে। এটি অনেক আশার কথা। আগের মত বর্তমানে এবং ভবিষ্যতেও সিলেটকে তারা একটি মর্যাদায় আসনে প্রতিষ্ঠিত করবে বলে আমি ভরসা রাখি।

বীথি: বর্তমান সময়ে কী নিয়ে ব্য¯Í রয়েছেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: বর্তমান সময়ে কিছু লেখালেখি নিয়ে ব্য¯Í রয়েছি। আসলে আগে সাংবাদিকতা ছাড়া অন্য কিছু নিয়ে ভাবতাম না। এখন অবসর মূহুর্তে অনেক কিছু ভাবার সুযোগ হয়েছে।

বীথি: লেখালেখির জন্য কোন সময়টা বেছে নেন?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: লেখালেখির জন্য কোন নির্দিষ্ট সময় এখনও ঠিক করিনি। তবে কিছু লিখতে হলে এখন দিনের ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত সময়কে বেছে নিই।

বীথি: সিলেট এক্সপ্রেসের পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ?
মুহম্মদ বশিরুদ্দিন: সিলেটের প্রথম অনলাইন পত্রিকা সিলেট এক্সপ্রেস ডট কমকে অনেক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।










.: 24 September 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (148 বার পঠিত)
আরাকানের বুকে লাল বৃষ্টি


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি:
পানিতে ভাসছে লাশের সারি
জ¦লে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে ভালোবাসা ঘেরা প্রিয় জন্মভূমি
ঝরছে হৃদয়ের আহাজারি
জানি হবে একদিন অবসান জুলুম
অত্যাচারীর
মুসলিম নিপীড়িত নির্যাতিত যত আরাকানবাসী
দূর হবে হৃদপিন্ডের বিষের বাঁশি।
আরাকানের বুকে লাল বৃষ্টিস্নাত মরু-প্ ...Details...


.: 9 August 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1868 বার পঠিত)
অভিমানী গল্পকার


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. চকচকে ঝকঝকে হাসির অন্তরালে অভিমানী একটি মুখ লুকিয়ে থাকে তার হৃদয়ে। যার প্রচন্ড অভিমান করার ক্ষমতা রয়েছে। তাকে বাইরে থেকে গুছালো মনে হলোও ভেতরে ভেতরে সে খুবই অগুছালো। কারন সে যখনই ঘর থেকে বের হয় তখন মানিব্যাগ না হয়, হাত ঘড়ি ঘরে রেখে দৌড় দেয়। তার মাথার চুল দেখলে ম ...Details...


.: 21 May 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1870 বার পঠিত)
বেঁচে থাক প্রতিটি শব্দে...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১.আত্মার সাথে যাদের সর্ম্পক তাদেরকে কখনও মন থেকে মুছে ফেলা যায় না পৃথিবী উল্টে গেলোও। সিলেটে সাহিত্যঙ্গনে প্রিয় কিছু মুখ আছে যাদের সাথে আমার কোন রক্তের সর্ম্পক না থাকলেও আত্মার সর্ম্পক রয়েছে। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত যে কষ্ট আমাকে তাড়া করতো সেটি হলো একটি ভাইয়ের ...Details...


.: 9 February 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (2157 বার পঠিত)
একজন যুবতীর কথা...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. যে মেয়েটিকে কোলে নিয়ে জাঁকিয়ে জাঁকিয়ে আল্লা, আল্লা জপতে ভালোবাসতো তার মা। দুপুরবেলা সারা শরীর তেলে জবজবা করে গোসল করাতো যে মেয়েকে তার মা। সেই মেয়েটিকে এখন ঘিরে আছে বেশ ক’জন সাংবাদিক। মেয়েটির নাম ফুলবানু। শাদা ফরশা রংয়ের চামড়া। নাদুস-নুুদুস না হলেও শরীরে এক ধরন ...Details...


.: 26 January 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1575 বার পঠিত)
‘মায়ার বইন’


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. তার সাথে কথা বললে কখনো মনে হয় না আমি তার পর। দেখা হলেই বিনয়ী একটি হাসি আর সালাম দিয়ে কথা বলবে। কোন অনুষ্ঠানে দেখা হলেই পাশে চেয়ারে এসে বসে তার জমানো সব কথা বলতে শুরু করবে। রুহেল যখন আমার সাথে কথা বলে তখন মনে হয় আমার জন্যই সব কথা জমা করে রেখেছে দেখা হলেই বলবে। কত কথা ...Details...


.: 23 January 2017 : ব্যক্তিত্ব :. (2841 বার পঠিত)
কুয়াশা মোড়া এক স্নিগ্ধ সকালে...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. মানুষের জীবনে প্রতিটি দিন যদি শুরু হতো ভালো কোন কাজ দিয়ে কিংবা পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটির সাথে দেখা হয়ে তাহলে কেমন হয় বলুন তো? সবার কথা জানি না। তবে আমার যেদিন এমন দিয়ে শুরু হয় সেদিন নিজেকে প্রচন্ড সুখি মানুষ মনে হয়। ঠিক আজকের দিনটি যেভাবে শুরু হয়েছে। স্যারকে ...Details...


.: 17 January 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1813 বার পঠিত)
বত্রিশ বছর পর...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. চুরাশি সাল, তখন ¯স্নাতক পড়ছি। রেড়িও-তে তরুণদের অনুষ্ঠান ‘নব কল্লোল’এর প্রায় নিয়মিত কথিকা পড়ি। গ্রাম উন্নয়নে তরুণ সমাজ, দার্শনিক রুশো, আত্মসম্ভ্রম-এই ধরনের বিষয় নিয়ে কথিকা। একদিনের বিষয় ছিলো মরমি কবি হাসন রাজা। লোকে বলে, বলেরে ঘরবাড়ি বালা নায় আমারৃ’ রেড়িও তো এই ...Details...


.: 9 January 2017 : ব্যক্তিত্ব :. (2699 বার পঠিত)
স্বপ্নের ফেরিওয়ালা একজন গল্পকারের কথা


SylhetExpress.com

তাসলিম খানম বীথি: ১. আমাদের তিন বোনকে আব্বা সবসময় বলেন, কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবে না। সত্য কথা বলবে, সৎ পথে থাকবে। আর তুমি যে কাজটি করবে সেটি ভালোবেসে করবে। দুই হাতে কাজ করবে। কাজ করলে কখনও হাত ভেঙ্গে যাবে না। তোমার কাজই সফলতা এনে দেবে। তাই আমি যখনই কোন কাজ করি ভালোবেসে ও আন্তরিক ...Details...


.: 30 December 2016 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1783 বার পঠিত)
বছরের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. বিয়ে বাড়িতে যখন কনে বর নিয়ে হইহুলড় চলছে ঠিক সেই মুহুর্তে হারান দা’র ফোন। চিরচেনা সেই ডাক ‘কই গো’ অফিসে আছনি’ উত্তরে বললাম না দাদা, আমি তো একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে। দাদা বললেন অনুষ্ঠান শেষ করে তোমাকে অফিসে আসতেই হবে। সন্ধ্যে সাড়ে ৬টায় মেজরটিলা থেকে সিএনজি ওঠেই মোবা ...Details...


Next Page»: তাসলিমা খানম বীথি এর আরো লিখা »

তাসলিমা খানম বীথি এর সর্বাধিক পঠিত লিখা

.: : ব্যক্তিত্ব :. (12140 বার পঠিত)
কবিতার মাঝে জীবনবোধকে ফুটিয়ে তোলা কবি শফিকুল ইসলামের নিরন্তর সাধনা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি : কবিতার মাঝে জীবনবোধকে গভীরভাবে অন্বেষণ করা কবি শফিকুল ইসলামের নিরন্তর সাধনা। জীবনের আশা-নিরাশা, হতাশা-বঞ্চনা কবিকে আন্দোলিত করলেও কবি তার কাব্য ভাবনায় কখনও বিচলিত হননি......তা তার কাব্যে সুষ্পষ্ট। প্রকৃতি ও প্রেম তার কাব্যে অফুরন্ত প্রেরণার উৎস। তরুণ হৃদয়ের অব ...Details...


.: 21 March 2016 : ব্যক্তিত্ব »মতামত (1) :. (8960 বার পঠিত)
সুমী : সিলেটের প্রথম সফল কৃতি নারী ফটো সাংবাদিক


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি : জন্মমাত্রই প্রতিটি মানুষ সফল। কারন স্বয়ং স্রষ্টা মানুষকে সৃষ্টির সেরা জীব হিসেবে পাঠিয়েছেন এই পৃথিবীতে। সুতরাং সফলতার জন্যই মানুষের জন্ম। সাফল্য-কৃতিত্বের মূল উৎস হলো বিশ্বাস। আর বিশ্বাস হচ্ছে এক বিপুল শক্তি, এটা কোন ম্যাজিক বা অলৌকিক ব্যাপার নয়। সাফল্য প্রত ...Details...


.: 30 April 2016 : মিডিয়া ওয়াচ :. (6685 বার পঠিত)
আম্মা বলে কেউ আর ডাকবে না....


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১ অফিস থেকে বের হয়ে রিকশা না পেয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম আম্বরখানা দিকে। চৌহাট্টা যেতেই কিছুটা যানজট থাকায় হাঁটতে পারছিলাম না। হঠাৎ শুনতে পেলাম ‘আমার আম্মার লাগি রাস্তাটা বড়ো খরা লাগবো’ গলা শুনে বুঝতে পারলাম রাহমান চাচা। কারন তিনি ছাড়া আমাকে আর কেউ আম্মা বলে ডাকে না ...Details...


.: 28 July 2016 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (5662 বার পঠিত)
ফুল ছবি আর কবিতা নিয়ে কাল কাটে কবি চপলের


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি:- চৌধুরী চপল। পুরো নাম চৌধুরী জোৎস্না পারভিন চপল। আশির দশকের গোড়ার দিকে কবিতার অঙ্গনে প্রবেশ। তার সম্পাদিত ‘মনসিক্ত’ ছিলো দুই বাংলার শ্রেষ্ঠ সংগ্রামী প্রজন্মের সেতুবন্ধন। মাসিক ‘চিরকুট’ নামের সাহিত্যপত্র তার সম্পাদনায় এক যুগেরও বেশি বয়সী হয়ে বেড়ে উঠছে। বয়সে এখন ...Details...


.: 4 December 2014 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (4538 বার পঠিত)
শরতে শুভ্র মেঘের দেখা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ শনিবার। অফিস থেকে একটু তাড়াতাড়ী বের হলাম। জীবনটা যেন একটি যান্ত্রীক হয়ে গেছে। শুধু কাজ আর কাজ। জীবনের আনন্দ দিনগুলো সবই যেন এই কাজের আড়ালে চাপা পড়ে গেছে। আমার সাথে নাঈমা চৌধুরী। দ্রুত যাবার জন্য আমরা দু’জন রিকশায় করে কেমুসাসের উদ্দেশ্য রওয়ান ...Details...


পাঠকের মতামত
সুমী : সিলেটের প্রথম সফল কৃতি নারী ফটো সাংবাদিক
পাঠকের মতামতঃ (1)

21 May 2016 তারিখে সালাহ্‌ আদ-দীন লিখেছেনঃ বিথিকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, এরকম একজন মানুষকে আমাদের সাথে পরিচিত করিয়ে দেবার জন্যে! উনাকে অনেক বার দেখেছ! নামও জানতাম তবে কখনও উনার সাথে কথা হয়নি! উনাকে হলুদ জামার পড়া অবস্থায় অনেক দেখেছি! এবার উনার সম্পর্কে জেনে আরও বেশি ভাল লাগলো!

একজন মাশরাফির ভক্ত
পাঠকের মতামতঃ (1)

24 February 2016 তারিখে মিজান মোহাম্মদ সিলেট লিখেছেনঃ nice

মায়াবতী নীলা আপা
পাঠকের মতামতঃ (1)

5 February 2016 তারিখে fcmyddgd 1 লিখেছেনঃ 1

Other Pages :

 
 অন্য পত্রিকার সংবাদ
 অভিজ্ঞতা
 আইন-অপরাধ
 আত্মজীবনি
 আলোকিত মুখ
 ইসলাম ও জীবন
 ঈদ কেনাকাটা
 উপন্যাস
 এক্সপ্রেস লাইফ স্টাইল
 কবিতা
 খেলাধুলা
 গল্প
 ছড়া
 দিবস
 দূর্ঘটনা
 নির্বাচন
 প্রকৃতি পরিবেশ
 প্রবাস
 প্রশাসন
 বিবিধ
 বিশ্ববিদ্যালয়
 ব্যক্তিত্ব
 ব্যবসা-বাণিজ্য
 মনের জানালা
 মিডিয়া ওয়াচ
 মুক্তিযুদ্ধ
 যে কথা হয়নি বলা
 রাজনীতি
 শিক্ষা
 সমসাময়ীক বিষয়
 সমসাময়ীক লেখা
 সমৃদ্ধ বাংলাদেশ
 সাইক্লিং
 সাক্ষাৎকার
 সাফল্য
 সার্ভিস ক্লাব
 সাহিত্য-সংস্কৃতি
 সিটি কর্পোরেশন
 স্বাস্থ্য
 স্মৃতি
 হ য ব র ল
 হরতাল-অবরোধ

লেখালেখি
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অবঃ)
আব্দুল হামিদ মানিক
শফিকুল ইসলাম
প্রা. মেট্রোপলিটান ম্যাজিষ্ট্রেট
ইকবাল বাহার সুহেল
হারান কান্তি সেন
সেলিম আউয়াল
বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সল
এ.এইচ.এস ইমরানুল ইসলাম
জসীম আল ফাহিম
সৌমেন রায় নীল
সাকিব আহমদ মিঠু
রাহিকুল ইসলাম চৌধুরী
সালাহ্‌ আদ-দীন
ছাদিকুর রহমান
সাঈদ নোমান
জালাল আহমেদ জয়
পহিল হাওড়ী (মোঃ আবু হেনা পহিল)
শাহ মিজান
তাবেদার রসুল বকুল
কাউসার চৌধুরী
নারী অঙ্গন
নূরুন্নেছা চৌধুরী রুনী
ইছমত হানিফা চৌধুরী
আমেনা আফতাব
মাহবুবা সামসুদ
সুফিয়া জমির ডেইজী
নীলিমা আক্তার
মাছুমা আক্তার চৌধুরী রেহানা
সালমা বখ্ত্ চৌধুরী
রিমা বেগম পপি
রওশন আরা চৌধুরী
অয়েকপম অঞ্জু
আমিনা শহীদ চৌধুরী মান্না
জান্নাতুল শুভ্রা মনি
মাসুদা সিদ্দিকা রুহী
আলেয়া রহমান
মাজেদা বেগম মাজু
নাঈমা চৌধুরী
শামসাদ হুসাম
তাসলিমা খানম বীথি
রায়হানা বারী রেখা

সাহিত্য-সংস্কৃতি পাতার আলোচিত লিখা
.: 4 weeks ago : :.
কুরবানী : মালিকের জন্য সর্বস্ব ত্যাগের শিক্ষা দেয় (495 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

শাহ নজরুল ইসলাম: কুরবানির ইতিহাস কুরবানির বিধান হযরত আদম আ.এর চলে আসছে। সকল উম্মতের ইবাদতে এ কুরবানির আবশ্যিক বিধান ছিল। মহান আলøাহ বলেন, ‘আমি প্রত্যেক উম্মতের জন্য কুরবানির এক রীতিপদ্ধতি নির্ধারণ করে দিয়েছি, যেন তারা ওই সব পশুর ওপর আলøাহর নাম নিতে পারে, যেসব আলøাহ তাদের দান করেছেন Details...


.: 2 weeks ago : :.
দেশের প্রথম তেলক্ষেত্র সিলেটে (460 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

সেলিম আউয়াল: জটিল ভূতাত্ত্বিক পরিবেশের ভেতর দিয়ে উদ্ভব হওয়ায় সিলেট অঞ্চল বিভিন্ন খনিজ সম্পদে সমৃদ্ধ। এরমধ্যে উলেøখযোগ্য হচ্ছে খনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস, পিট, চুনাপাথর, কাঁচবালি, বেলেপাথর, নুড়ি ্এবং বড়ো পাথর ইত্যাদি। এই প্রাকৃতিক সম্পদ বাংলাদেশের বিভিন্ন শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে Details...


.: 4 weeks ago : :.
প্রবন্ধ সাহিত্য জ্ঞানের পরিধি বাড়ায় (437 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

মোহাম্মদ আব্দুল হক: বিশ্বসাহিত্যে প্রবন্ধের গুরুত্ব ব্যাপক এবং প্রবহমান। বাংলা ভাষায় রচিত সাহিত্য অর্থাৎ বাংলা সাহিত্যেও প্রবন্ধ ঠাঁই পেয়েছে সেই উনবিংশ শতাব্দীতে সাহিত্যিক খ্যাতিলাভ করেছেন যাঁরা তাঁদের লেখায়। বাংলা বর্ণমালায় সাহিত্য রচনা করে সমগ্র বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ কর Details...


.: 2 weeks ago : :.
শরতে হলো দেখা (397 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

কামরান চৌধুরী:
সাদা সাদা মেঘগুলো নীল আকাশে চলছে ভেসে অজানায়
প্রজাপতি যুগলের মন ছুঁয়ে ছুটছি তোমার ঠিকানায়।
এই শরতেই তার সাথে হয়েছে মিতালী, কাশ বনে একা;
নীল শাড়ি পড়ে, পরিপাটি বেশে এসেছিল, নিবিড় সে দেখা।
চোখদুটি মুগ্ধ, বাকরুদ্ধ, পরখ করি নির্মল হাসি, চুল,
গুইচিচাঁপা খোপাতে Details...


.: 4 weeks ago : :.
চাপাবাজ (364 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

ইমরান ইমন: কয়েকদিন আগে ওসমানী মেডিকেলে গিয়েছিলাম ছোটবোন দেখতে। চারতলার ছয় নাম্বার ওয়ার্ডে। আমার সাথে ছিলো এক বন্ধু। দুজনই রোগীকে দেখতে গিয়েছিলাম। নিচতলায় সিঁড়িপথে ওপরে উঠবো তখন গার্ড বলল যাওয়া যাবেনা। আমাদের বুঝতে বাকি রইলো না যে, গার্ডকে কিছু দিতে হবে। নূন্যতম বিশত্রিশ টাকা। Details...


.: 4 weeks ago : :.
নজরুল সাহিত্যের দার্শনিক রূপরেখা ! (332 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

রাজু আহমেদ: আমাদের নজরুল নোবেল পাননি । নোবেল প্রাপ্ত হননি ‘ওয়ার অ্যান্ড পিস’ ও ‘আন্না কারেনিনা’র মত জগৎ বিখ্যাত সাহিত্যকর্ম সৃষ্টিকারী লিও তলস্তয়ও । তাই বলে কি সাহিত্যের ভূবনে নোবেল প্রাপ্তদের থেকে এদের অবদান কম ? মোটেই না । বরং অনেক নোবেল প্রাপ্ত কবি-সাহিত্যিকের চেয়ে নজরুল ইসলা Details...


.: 2 weeks ago : :.
শব্দ চয়নে পটু সত্যচয়ন (317 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

মোহাম্মদ আব্দুল হক:
আমার বন্ধু বই পড়ে
কবিতা ভালোবাসে
ভালোবাসে প্রিয়তমা স্ত্রী
পরিবার ভালোবাসে
জন্মভূমি যেন তার স্পন্দিত হৃদয়।
ঠিক জায়গায়
বাচনভঙ্গিমায়
সঠিক শব্দচয়নে পটু
বন্ধু আমার সত্যচয়ন।
সে চাকরি করে
ভালো বেতনের চাকরি
বড় অফিসে চেয়ার টেবিল টেলিফোন
মোবা Details...


.: 4 weeks ago : :.
নোমান মাহফুজের গুচ্ছ "আরাকান ছড়া" (297 বার পঠিত)

নোমান মাহফুজ:
(১)
রুখো!
রাখাইনে হত্যাযজ্ঞ
চলছেই দেখো,
মুসলিম শত মারে
রুখো সবে রুখো।
জাতিসংঘ চুপ কেন
জবাবটা চাই,
সুচি কেন বেপরোয়া
শান্তি কেন নাই।
আর কতো মুসলিম
মরে হবে লাশ,
বাড়িঘর ছেড়ে সবে
করছে হাসফাস।
মুসলিম নামধারী
শাসকেরা শুনো,
মুখ এঁটো বসা নয়
পদক্ Details...


.: 1 week ago : :.
আরাকান (285 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

ইসতাইন আহমেদ:
হবে না হত্যা আর কোনো মুসলিম
হাতে হাত ধর হে মুজাহিদ রক্ষা করি দ্বীন
মোরা গর্বিত মুসলিম।
আর যেন কোনো শিশু না মরুক
আর যেন কোনো পিতা না জ্বলুক
আর যেন কোনো মা না বলুক
আমি নির্যাতিত মুসলিম
আমি নির্যাতিত মুসলিম
আমি নির্যাতিত মুসলিম।
বাধ ভাঙা স্রোতের মত নির্ Details...


.: 2 weeks ago : :.
নির্লজ্জ মানবতা (279 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

মজিবুল হক হিরণ:
ধিকধিক শত ধিক নির্লজ্জ যে জন
সাম্প্রদায়িক চেতনায় কে করে আলাদা
হিন্দু-বৌদ্ধ, মুসলিম-খৃষ্টান,
ধর্ম-বর্ণ হোক আলাদা তবুতো সবাই মানুষ হিংসা-বিদ্বেষ ক্ষমতার লোভ সবাইকে করছে বেহুশ।
আজ কোথায় "হিউম্যান রাইট ওয়াচ"
কোথায় হাড়াল জাতিসংঘ
তাদের চোখে কি পরেনা বা Details...



www.SylhetExpress.com - First Online NEWS Paper in Sylhet, Bangladesh.

Editor: Abdul Baten Foisal Cell : 01711-334641 e-mail : news@SylhetExpress.com
Editorial Manager : Abdul Muhit Didar Cell : 01730-122051 e-mail : syfdianews@gmail.com
Photographer : Abdul Mumin Imran Cell : 01733083999 e-mail : news@sylhetexpress.com
Reporter : Mahmud Parvez Staff Reporter : Taslima Khanom Bithee

Designed and Developed by : A.S.H. Imranul Islam. e-mail : imranul.zyl@gmail.com

Best View on Internet Explore, Mozilla Firefox, Google Chrome
This site is owned by Sylhet Sifdia www.sylhetexpress.com
copyright © 2006-2013 SylhetExpress.com, All Rights Reserved