User Login | | নীতিমালা | 18 Jan 2018 : Sylhet, Bangladesh :
    সংবাদ : এন জি এফ এফ স্কুলের স্বর্ণালী পাতায় পড়বে কি কালো দাগ?  সংবাদ : এন জি এফ এফ স্কুলের স্বর্ণালী পাতায় পড়বে কি কালো দাগ?  সংবাদ : ফখরুল ইসলাম ছিলেন একজন
প্রতিশ্রুতিশীল আলোকচিত্রশিল্পী  সংবাদ : সাংবাদিক গল্পকার সেলিম আউয়ালের ৫৫তম জন্মদিন পালন  সংবাদ : সাংবাদিক গল্পকার সেলিম আউয়ালের ৫৫তম জন্মদিন পালন  সংবাদ : সিকৃবির ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের 
ওরিয়েন্টেশন সম্পন্ন
  সংবাদ : চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় 
সিলেটের সারাহ্ নাদিম আহমেদ প্রথম  সংবাদ :  কারাগারে হাজতির মৃত্যু
  সংবাদ : সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন  সংবাদ : কবি’র চোখে একফোটা জল  সংবাদ : পলিয়ার ওয়াহিদের ‘সময়গুলো ঘুমন্ত সিংহের’  সংবাদ : সিলেট নগরীতে গ্যাস সংকট: চরম জনদূর্ভোগ  সংবাদ : সিলেট নগরীতে গ্যাস সংকট: চরম জনদূর্ভোগ  সংবাদ : চুনারুঘাটে ছাত্রীদের মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ  সংবাদ : হযরত গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী (কঃ) এর
১১২তম বার্ষিক ওরশ শরীফের প্রধান দিবস ১০ মাঘ  সংবাদ : ‘জলরঙে আঁকা  ছবি’ কাব্যগ্রন্থের পাঠোম্মোচন  সংবাদ : প্রধানমন্ত্রীর সফর সিলেটে শোডাউনের প্রস্তুতি সম্ভাব্য প্রার্থীদের  সংবাদ : লিডিং ইউসিভার্সিটির ‘স্থাপত্য সপ্তাহ’ এর প্রকল্প পরিদর্শণ  দানবীর  রাগীব আলী

  সংবাদ : জগন্নাথপুর জাপা নেতা সুনাহর আলীর 
জানাযা সম্পন্ন: বিভিন্ন মহলের শোক  সংবাদ : এডু-এইড স্কুল এন্ড কলেজের
নবীনবরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন
sylhetexpress.com এর picture scroll bar এর code. এই কোড যেকোন website এ use করা যাবে।
| সিলেট | মৌলভীবাজার | হবিগঞ্জ | সুনামগঞ্জ | বিশ্ব | লেখালেখি | নারী অঙ্গন | ছবি গ্যালারী | রঙের বাড়ই ব্লগ |

তাসলিমা খানম বীথি
Phone/ Mobile No.: 01712-148 147
E-mail : syfdianews@gmail.com
তাসলিমা খানম বীথি
স্টাফ রিপোর্টার-সিলেটের প্রথম অনলাইন দৈনিক সিলেট এক্সপ্রেস ডট কম।
লাইফ মেম্বার: কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ, সিলেট।
এ্যাকটিভিস্ট: সিলেট সেন্টার ফর ইনফরমেশন এন্ড মাস মিডিয়া (সিফডিয়া)।
কৈতর প্রকাশন, সিলেট।
ই-মেল- syfdianews@gmail.com

Web Address : www.sylhetexpress.com
তাসলিমা খানম বীথি এর লিখা
.: 17 December 2014 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :.

পেশাগত ব্যস্ততা কেড়ে নিতে পারে না কবি নাজমা বেগমের চেতনার সৃষ্টিশীলতাকে


SylhetExpress.com

যখন রবো না আমি এ মর্ত্য কায়ায় / তখন স্মরিতে যদি হয় মন... / ডেকোনা ডেকোনা সভা/ তবে এসো হেথা / যেথা এই চৈত্রের শালবন।

মানুষ জীবনকে ভালোবাসে এবং জীবন থেকে নেয়া যে সাহিত্য ও শিল্পকথা তাই মহত্তম সৃষ্টি। নাজমা বেগম জীবনবাদী এবং জীবনবাদী কবি, তার কবিতাগুলো জীবন যন্ত্রণার ফসল।

কবি নাজমা বেগমের ভাষায়- নদীর কাছে, পাখির কাছে, বনানীর অহংকারের কাছে মানুষের চাওয়ার শেষ নেই। নিরন্তর একলা চলার পথে, প্রকৃতির সৌন্দর্যের কাছে গেলে আমার ভেতরে যে শব্দগুলো খেলা করে তার গ্রন্থনার অর্থ আমাকে চমৎকৃত করে। এগুলো কী কবিতা? আমি জানি না।

আশির দশক থেকে জীবনের ভিন্নতায় লেখি। বাংলাদেশ বেতার, সিলেট-এর নবকল্লোল অনুষ্ঠানে স্বরচিত কবিতা পাঠের মাধ্যমে আমার লেখাগুলোর মূল্যায়ন পাই। ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশ বেতার সিলেট কেন্দ্র থেকে ঢাকায় জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠান উপস্থাপনা ও গঠন কৌশল-এর ওপর একটি বিশেষ প্রশিক্ষণের সুযোগ আমার হয়।

সিলেট বেতারের ‘রান্নার অনুষ্ঠান’ শিক্ষা বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘বাংলা শেখার আসর’ গ্রন্থনা ও পরিচালনা নিয়মিত করছি। এছাড়াও বিশেষজ্ঞ আলোচক হিসেবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান পরিচালনা করে থাকি।

১৯৮৩ সাল থেকে কলেজের দেয়ালিকা, বিশেষ সংখ্যা ও স্থানীয় সবগুলো পত্রিকায় আমার গল্প ও কবিতা প্রকাশিত হতে থাকে। কলেজ জীবনের শিক্ষক ড. শফি উদ্দিন আহমদ, ড. মোস্তফা আলী এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রয়াত ড. দেলোয়ার হোসেন আমার লেখাগুলো পড়েন এবং প্রশংসা করেন। আমি অনিশেষ কৃতজ্ঞতায় তাঁদের স্মরণ করছি। অনেক দিন পর বই প্রকাশের সদিচ্ছার জয়গানে নিজেই অভিভূত। আমার প্রথম বই ‘চন্দ্রাহতের কথা’ বিদ্যা প্রকাশ, ঢাকা থেকে ২০০৪ সালে প্রকাশের পর স্বজনদের কাছ থেকে প্রচুর সাড়া পাই। তাই আমার দ্বিতীয় বই ‘রোদ্র মেঘের সিঁড়ি’ প্রকাশে সাহসী হলাম। একটি লেখাও যদি কারো ভালো লাগে, নিজের আবেগের কথা বলে ওঠে, তবেই আমি ধন্য হবো। সব প্রশংসা সৃষ্টিকর্তার প্রতি যিনি আমাকে ভাবতে ও লিখতে অনুভূতি জাগিয়েছেন। আমাকে চালিত করেছেন প্রতি পলে পলে তাঁর নিজস্ব করুণায়।

জকিগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (মরহুম) সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও হাসনা খানম চৌধুরীর প্রথম কন্যা কবি নাজমা বেগমের জন্ম ২৩ অক্টোবর ১৯৬৫ খ্র্রিষ্টাব্দে বিয়ানীবাজার থানার আলীনগর গ্রামে।

প্রাথমিক শিক্ষা লামাবাজার প্রাইমারি স্কুলে। সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গার্হস্থ্য বিজ্ঞান বিভাগে ১৯৮০ সালে উচ্চতর দ্বিতীয় বিভাগে এস এস সি, মদনমোহন কলেজ থেকে ১৯৮৩ সালে উচ্চতর দ্বিতীয় বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক, এম.সি কলেজ থেকে বি.এ অনার্স (বাংলা) ১৯৯০ সালে পাশ করেন এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় এম.এ পরীক্ষায় দ্বিতীয় বিভাগে ৬ষ্ঠ স্থান অর্জন করেন।

অধ্যাপক হিসেবে নাজমা বেগম পেশাগত জীবন শুরু করেন নিজ গ্রামে প্রতিষ্ঠিত সৈয়দ নবীব আলী মহাবিদ্যালয়ে। তারপর ১৯৯১ সালে নিজের বিদ্যায়তন সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৯৫ সালে সরকারি কুমিল্লা টিচার্স ট্রেনিং কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে বি.এড পাশ করেন। ২০০৫-২০০৬ শিক্ষাবর্ষে উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর দ্বিতীয় বিভাগে এম.এড পাশ করেন।
বর্তমানে তিনি সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে সহকারি প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত আছেন। এবং স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র-শিক্ষকপুনর্মিলনী ২০১১ এর উদযাপন পরিষদের সদস্য-সচিব হিসেবে অত্যন্ত নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আশির দশক থেকে সিলেটের স্থানীয় সবগুলো পত্রিকায় তিনি লেখে আসছেন। বাল্যকালেই তিনি স্বপ্ন দেখতেন কবিত্ব খ্যাতি অর্জন করা। গৌতম বুদ্ধের অহিংস বাণী তার ব্যক্তিসত্তার লালিত্যে বপিত। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, নদী-সাগরের নীল ঢেউ, আত্মমগ্ন চেতনা তার অবয়বে, কথকতায় মন্ত্রমুগ্ধের মতো খেলা করে।
কবি নাজমা বেগমের স্বপ্নময়তা ও দু:খ বেদনার ভার কখনোই তাকে নুয়ে পড়তে দেয়নি। বিষণœতার কবিতা একসময় রৌদ্রোজ্জ্বল হয়ে ওঠে তার ভেতরের শ্যামল-কোমল লাবণ্যে।

পেশাগত ব্যস্ততা কেড়ে নিতে পারে না নাজমা বেগমের মৌন চেতনার সৃষ্টিশীলতাকে। তিনি সিলেট বেতারের বিভিন্ন অনুষ্ঠান গ্রন্থনা ও পরিচালনা করেন। তার কবিতার পঙক্তিতে ধরা দেয় হৃদয়ের নিভৃত রক্তক্ষরণ.....এলোমেলো বাউরি বাতাস, অধরা ভালোবাসার একাকী স্মৃতিচারণ নীল নীল কষ্ট তার সাথে মাতৃভূমি প্রিয়জন-আকাঙ্খা ইত্যাদি নিয়ে কবি নাজমা বেগম সাজিয়েছেন তার বিভিন্ন কাব্য গ্রন্থ। ব্যক্তিগত জীবনে কবি নাজমা বেগম বিবাহিত। তার স্বামী ফখরুল কবির একজন ব্যবসায়ী। তিনি দুপুত্র সন্তানের জননী।

সবুজ ছায়া নামে নয়, প্রাকৃতিক ভাবে সবুজে ঘেরা কবি নাজমা বেগমের ‘ক্ষনিকালয়’ তার বাড়িটি। লাল রংয়ের গেইটে প্রবেশ করতে প্রথমে চোখে পড়ে বিভিন্ন জাতের তরুলতার দিকে। বারিন্দায় নানা প্রজাতের গাছে টব। কোন কোন গাছের টবগুলো ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। গাছপালাকে তিনি কতখানি ভালোবাসেন তা নিজের চোখে না দেখলে কেউ বিশ্বাস করবে না। বেডরুমের পাশে ছোট্ট একটি বারান্দা নিজের হাতে চাষ করেছেন মাশরুম। তারপর বারিন্দা, বাড়ির ছোট আঙ্গিনায় চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বিভিন্ন গাছের ডালপালা। কবি নাজমা বেগম যেন নিজের সন্তানের মতই ভালোবাসেন তার প্রিয় গাছপালাকে। এ পর্যন্ত তার ফলজ, জলজ ও লতানো মিলে প্রায় ৩০০ প্রকার গাছ সংগ্রহ করেছেন তিনি। কবি নাজমা বেগম একজন সৃজনশীল মনের মানুষ।

সিলেটের প্রথম অনলাইন দৈনিক সিলেট এক্সপ্রেস ডট কম-এর পক্ষ থেকে কবি নাজমা বেগম’র একটি সাক্ষাতকার গ্রহণ করা হয়। ৩১ মে ২০১৪ সিলেট নগরীর টিলাগড় ‘ক্ষনিকালয়’ তার নিজের বাসায়। সাক্ষাতকারটি গ্রহণ করেন সিলেট এক্সপ্রেস-এর স্টাফ রিপোর্টার তাসলিমা খানম বীথি। এসময় আলোকচিত্রীর দায়িত্ব পালন করেন সিলেট এক্সপ্রেস-এর স্টাফ রিপোর্টার, সংস্কৃতিকর্র্মী তোফায়েল আহমদ।

বীথি: কবে থেকে লেখালেখি শুরু করেছেন? প্রথম লেখা কী ছিল এবং কত সালে?
নাজমা বেগম: আশির দশক থেকে আমি লেখালেখি শুরু করি। আমার ছোট বোনের নামে গালর্স স্কুলের একটি ম্যাগাজিনে প্রথম ছড়া ছাপা হয়। এটি সম্ভবত ৭৮/৭৯ সালে দিকে হবে। ছড়াটির নাম ছিল ‘মিষ্টি ছড়া’। আমার প্রথম ছড়াটি আমার ছোট বোনের নামে বের হয়। কারন তখন স্কুল পাঠ শেষ করে বের হয়েছিলাম। ছড়াটি বের হবার পর আমার আত্মবিশ্বাস আরো বেড়ে গেলো। তারপর থেকে নিয়মিত লেখালেখি করতে থাকি। সিলেটের ডাক পত্রিকাসহ অন্যান্য লোকাল পত্রিকায় আমার লেখা নিয়মিত বের হতে থাকে। মাঝে মাঝে গল্পও লেখতাম। সিলেটের প্রাচীনতম পত্রিকা আল ইসলাহ ৫০ তম বর্ষে আমার গল্প বের হয়।

বীথি: আপনাকে লেখালেখিতে কে বেশি উৎসাহ দিয়েছেন?
নাজমা বেগম: ইত্তেহাদ নামে একটি পত্রিকায় আমার চাচাতো বড় ভাই লেখালেখি করতেন। তার লেখা পড়ে ভাবতাম আমিও যদি লেখতে পারতাম। মূলত তার লেখা পড়ে লেখালেখিতে উৎসাহ পাই। আমাদের পরিবারে বাবাকে খুব ভয় পেতাম। তাই তাকে ভয়ে কিছু বলতাম না। পরিবারের অন্য সবাই উৎসাহ দিয়েছেন।

বীথি: আপনার লেখা কতটা বই বের হয়েছে?
নাজমা বেগম: আমার দুটো বই বের হয়েছে। প্রথম বই ‘চন্দ্রাহতের কথা’ দ্বিতীয় বই ‘রোদ্র মেঘের সিড়ি’। সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাক্তন ছাত্র শিক্ষক পূর্ণমিলর্নী-এর সদস্য সচিব হিসেবে ১০৮ বছর পূর্তি উৎসবে বইটি বের হয়। এই অনুষ্ঠানে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতীয় অধ্যাপক ডাঃ শাহলা খাতুন।

বীথি: নতুন কোন বই বের করার পরিকল্পনা আছে কী?
নাজমা বেগম: অবশ্যই পরিকল্পনা আছে নতুন বই বের করার। লিমেরিক গুচ্ছ, প্রায় ৫০টির মত লিমেরিক থাকবে। ২০১৫ সালে বের করার ইচ্ছে আছে। পরিবর্তিতে অন্তত ১০টি গল্প নিয়ে বই বের করারও পরিকল্পনা আছে।

বীথি: আপনার শৈশব কৈশোর কোথায় কেটেছে? শৈশোবের দূরন্তপনার কথা মনে পড়ে কী?
নাজমা বেগম: সিলেট শহরেই শৈশব কৈশোর কেটেছে। শৈশবের একটি স্মৃতি আমাকে খুব বেশি নাড়া দেয়। স্কুল ছুটিতে গ্রামে বাড়িতে বেড়াতে যাই বাবা মার সাথে। আমার এক চাচী বাবার বাড়িতে নাইওর যাবেন। তখন আমার বয়স ৮/৯ বছর হবে। সেই সময় আমরা সব ছোটরা দল বেধে নদীর ঘাটে যাই। চাচীকে বিদায় দিতে। বাড়িতে আসার পথে মুষল ধারা বৃষ্টি হচ্ছে। তখন বাড়িতে ঢুকতে দেখি মা দাঁড়িয়ে আছে আর খুব আদরের সুরে আমাকে ডাকছেন। মার হাতে লাঠি ছিল আমি দেখিনি। ছোট মামা সাবধান করে দৌড় দিতে বললেন। আজকে জান বাঁচবে না। সারাদিন আমি বাড়ির বাইরে ছিলাম। এই স্মৃতিটা আমার মনে আজো দাগ কাটে। তাছাড়া গ্রীষ্মের ছুটিতে যখনই নানা বাড়িতে যেতাম। ঝড়বৃষ্টির সময় আমি আম কুড়াতে গাছতলায় ছুটে যেতাম।
শৈশবের স্মৃতিগুলো খুব মিস করি।

বীথি: শিক্ষকতা পেশা কতদিন থেকে আছেন?
নাজমা বেগম: প্রায় ২৩ বছর ধরে আমি শিক্ষকতা করছি।

বীথি: বাংলাদেশের বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা সর্ম্পকে আপনার মূল্যায়ন কী?
নাজমা বেগম: আমাদের দেশের শিক্ষা পদ্ধতি গুলোর অগ্রগতি হচ্ছে। কিন্তু ছাত্রছাত্রীর কাছে পৌছাতে আমরা অনেক ব্যর্থ। ছাত্রছাত্রীর তুলনায় শিক্ষক কম। তাই আমরা পারছিনা। কারণ সবাই শহর কেন্দ্রীক হয়ে যাচ্ছে। শহরের সুযোগগুলো গ্রামে নেই। তাই শিক্ষার মান বাড়ছে না, কমে যাচ্ছে।

বীথি: আপনার অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা ক্ষেত্রে কোন নতুন চিন্তাধারা আছে কী?
নাজমা বেগম: আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি শিক্ষকদের অবশ্যই সৎ, মহৎ, আর্দশবান হতে হবে এবং বন্ধুসুলভ আচরনের মধ্য দিয়ে ছাত্রছাত্রীর কাছে পৌছাতে হবে।

বীথি: লেখক এবং শিক্ষিকা হিসেবে নিজেকে কতটুকু সফল ভাবেন?
নাজমা বেগম: একজন শিক্ষিকা হিসেবে বিশ্বাস করি আমি সফল। কারণ আমার ছাত্রীদের চোখে আমি সেই সফলতার ছায়া দেখতে পাই। আর লেখক হিসেবে এখনও নিজেকে সফল ভাবি না। কারণ আমার অনেক বেশি কাজ করার কথা ছিল কিন্তু আমি পারিনি।

বীথি: কবিতা বলতে আপনি কী বুঝেন? আপনার কবিতায় প্রেম কতটুকু আছে?
নাজমা বেগম: কবিতা বলতে আমি বৃঝি নিভৃতে একান্ত চিন্তার ফসল। আমার অধিকাংশ কবিতার মধ্যে প্রেম আছে। প্রেম, প্রকৃতি, মানবতা, বাস্তবতা, নিঃসঙ্গতা এবং দেশাত্মকবোধও আছে।

বীথি: কবিতাকে পাঠকের কাছে নিয়ে যাবার জন্য কবিতা কেমন হওয়া উচিত?
নাজমা বেগম: বাস্তবভিত্তিক সর্বজন হৃদয়গ্রাহী, যাতে একটা কবিতা পাঠকের কারো কারো মনের কথার আলোকপাত হয়। তখনই কবিতা লেখা সার্থক হবে। তাহলেই পাঠকের কাছে পৌছানো যাবে।

বীথি: প্রিয় লেখক?
নাজমা বেগম: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জীবননান্দ দাশ, বুদ্ধ দেব বসু, অমিয় চক্রবর্তী, শামসুর রাহমান, নির্মলেন্দু গুন, মহাদেব সাহা এবং হেলাল হাফিজ।

বীথি: প্রিয় জনকে নিয়ে কোন কবিতা লিখছেন?
নাজমা বেগম: হ্যাঁ লেখেছি। আমার দুটো কাব্যগ্রন্থ প্রিয়জনকে উৎসর্গ করেছি।

বীথি: কবিতা ছাড়া আর কী লেখেন?
নাজমা বেগম: কবিতা ছাড়া আমি গান লেখি। আমার বেশিরভাগ গানই প্রেম, বিরহ, প্রিয়জন ব্যথা, আধ্যাত্মিক চেতনা জাগ্রত বিষয়ক। বিগত ৩৩ তম জাতীয় শীতকালীন মাদ্রাসার সিলেট শিক্ষা বোর্ড আয়োজিত খেলাগুলোর ভ্যানু ছিল সিলেট অঞ্চলে। এই অনুষ্ঠানের থিম সং আমারই রচনা। এই গানটি গেয়েছিল আমারই ছাত্রী মাহজাবিন স্মিতা। এজন্য পুরো কৃতজ্ঞতা অগ্রগামী স্কুলের প্রধান শিক্ষক বাবলি পুরকায়স্থের কাছে। সিলেট অঞ্চলের পক্ষ থেকে আমার গানটি ফ্রেমে বেধে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদকে উপহার হিসেবে প্রদান করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা জনাব বাবলী পুরকায়ন্থে।

বীথি: কিসের তাড়না কবিতা লেখতে বাধ্য করে?
নাজমা বেগম: সুখ, দু:খ, আনন্দ-বেদনা আর বা¯Íবতা যে কোন বিষয় নিয়ে কবিতা লেখতে তাড়িত করে।

বীথি: আজকের অবস্থান থেকে পেছন পানে চাইলে কী কথা মনে পড়ে?
নাজমা বেগম: পেছন পানে চাইলে আমার সবসময় মনে হয় যদি আরো ১৫টি বছর পেছাতে পারতাম তাহলে আরো বেশি করে লেখালেখি করতে পারতাম।

বীথি: নতুন লেখকের জন্য আপনার পরামর্শ কী?
নাজমা বেগম: অনেক বেশি বই পড়তে হবে। বাংলা অভিধান পড়ে সুন্দর সৌকর্যপূর্ণ শব্দ চয়ন করতে হবে।

বীথি: একজন ভালো লেখক হতে হলে কি গুণ থাকতে হবে?
নাজমা বেগম: বড় বড় লেখকদের বই পড়তে হবে। বর্তমানের সাথে তাল মিলিয়ে লেখতে হবে।

বীথি: এ পর্যন্ত কী কী পুরষ্কার পেয়েছেন?
নাজমা বেগম: কবিতায় এবং বিভাগীয় জাতীয় গ্রন্থগার আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতা সহ খেলাধুলায় পুরষ্কার পেয়েছি।

বীথি: মনের দিক থেকে নিজেকে কী সুখি মনে করেন?
নাজমা বেগম: আমি সবসময় নিজেকে সুখি মানুষ মনে করি। তবে আমার কোন কন্যা সন্তান নেই বলে কষ্ট হয়।

বীথি: আপনার শখ?
নাজমা বেগম: আমার শখ বিভিন্ন গাছ সংগ্রহ করা।

বীথি: এ পর্যন্ত কতগুলো গাছ সংগ্রহ করেছেন?
নাজমা বেগম: ফলজ, জলজ ও লতানো মিলে প্রায় ৩০০ প্রকার গাছ সংগ্রহ করেছি।

বীথি: বর্তমান সময় কার লেখা পড়ে আপনি আনন্দ পান?
নাজমা বেগম: হুমায়ূন আহমেদ, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়, সমরেশ মজুমদার তাদের লেখা পড়ে আনন্দ পাই।

বীথি: কী খেতে ভালোবাসেন। কী পরতে ভালোবাসেন?
নাজমা বেগম: সব ধরনের খাবার খেতে ভালোবাসি। সেলোয়ার কামিজ পরতে স্বাচ্ছন্দবোদ করি।

বীথি: কী অপছন্দ করেন?
নাজমা বেগম: পরর্চচা করা অপছন্দ করি।

বীথি:লেখালেখিতে আপনার স্বামি কি রকম ভূমিকা রেখেছেন?
নাজমা বেগম: আমার স্বামী একজন ব্যবসায়ী। আমার লেখালেখির ক্ষেত্রে তিনি অনেক সহযোগিতা করেন। শুধু লেখালেখি না। শিক্ষকতা পেশায় অনেক সাহায্য সহযোগিতা করেন। তিনি কখনো আমাকে বাধা দেননি। তার উৎসাহ, অনুপ্রেরণা আমাকে বেশি অনুপ্রাণিত করে। আমার স্বামীর উৎসাহ অনুপ্রেরণা এই পর্যন্ত আসতে পেরেছি।

বীথি: আপনার ছেলে মেয়ে সম্পর্কে কিছু বলেন?
নাজমা বেগম: আমার তো মেয়ে নেই। দুই ছেলে। বড় ছেলে ওয়াসীফ জামী। সে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটিতে পড়ছে। আর ছোট ছেলে নাসীক সামী। ব্লু বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় এ প্লাস পেয়ে পাশ করেছে।

বীথি: জীবনে কী হতে চেয়েছিলেন?
নাজমা বেগম: আমার জীবনে উচ্চ কোন আকাংখা ছিল না। তবে আমি সরকারী শিক্ষক হিসেবে স্বপ্ন দেখতাম।

বীথি: অবসর সময় কি করেন?
নাজমা বেগম: বই পড়ি, বাগান পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা করি আর সুযোগ পেলেই ঘুমাই। প্রচন্ড ঘুমাতে ভালোবাসি।

বীথি: বাংলাদেশ নিয়ে আপনার স্বপ্নের কথা বলেন?
নাজমা বেগম: আমি স্বপ্ন দেখি পৃথিবী উন্নত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ একদিন মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি দিয়ে বাংলাদেশ আরো বেশি এগিয়ে যাবে।

বীথি: সিলেট এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ?
নাজমা বেগম: ধন্যবাদ তোমাকে এবং সিলেট এক্সপ্রেসকে।


SylhetExpress.com

.: 17 January 2018 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (185 বার পঠিত)
কবি’র চোখে একফোটা জল


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. সেই দিনটি ছিলো শনিবার। সিলেট মোবাইল পাঠাগারের সাপ্তাহিক সাহিত্য আসর চলছিল। এসময় আসরে এসে প্রবেশ করে তরুণ গল্পকার মিনহাজ ফয়সল। ডায়াসে এসে মিনহাজ বলল- কবি অসুস্থ। সিলেট ওয়েসিস হসপিটালে ভর্তি রয়েছেন। তার জন্য দোয়া করবেন। মিনহাজের কথা শুনে বশির ভাই অস্থির হয়ে পড় ...Details...


.: 10 January 2018 : ব্যক্তিত্ব :. (154 বার পঠিত)
স্বপ্নের ফেরিওয়ালা একজন গল্পকারের কথা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১.আমাদের তিন বোনকে আব্বা সবসময় বলেন, কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবে না। সত্য কথা বলবে, সৎ পথে চলবে। আর তুমি যে কাজটি করবে সেটি ভালোবেসে করবে। দুই হাতে কাজ করবে। কাজ করলে কখনও হাত ভেঙ্গে যাবে না। তোমার কাজই সফলতা এনে দেবে। তাই আমি যখনই কোন কাজ করি ভালোবেসে ও আন্তরিকত ...Details...


.: 31 December 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (277 বার পঠিত)
মানুষের ভালোবাসাই আমার জীবনে সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি


তাসলিমা খানম বীথি: ১. জীবন থেকে আবারো চলে গেলো আরেকটি বসন্ত। সেই বসন্তের সুখ-দু:খ, আনন্দ-বেদনার মুহুর্তে মনে হয়েছে আমি কখনো হেরে যাইনি, হয় জিতেছি, না হয় শিখেছি। জীবনে কি পেলাম আর কি পেলাম না, তা কখনো হিসাব করি না। যখন যে কাজের দায়িত্ব পেয়েছি তখন সে কাজটি ভালোবেসে করার চেষ্টা করেছি। ছোট্ ...Details...


.: 27 December 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (709 বার পঠিত)
হেমন্তের একটি চমৎকার সন্ধ্যা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: সিলেটের শীতলপাটি বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী একটি শিল্প। এ শিল্প আজ বাংলাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্ব ঐতিহ্যে রূপ নিয়েছে। বাংলার আবহমান সংস্কৃতি ফুটে ওঠে শীতলপাটির গায়ে, অজানা শিল্পীদের মনোজ্ঞ নকশায়। গ্রামের সাধারণ মানুষের হাতে শীতলপাটির গায়ে আঁকা হয় বাংলার প্রকৃত ...Details...


.: 24 December 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (188 বার পঠিত)
অনাগত সন্তানকে হারানো...


তাসলিমা খানম বীথি<: ১.একজন মায়ের গর্ভ অবস্থায় যখন সন্তান মারা যায় কিংবা যে সন্তান পৃথিবীর আলো দেখার আগেই মারা যায়. সেই মায়ের যে কি রকম কষ্ট হয় তা আমার জানা নেই। তবে আজ প্রথম সেই মায়ের কষ্টকে অনুভব করছি। যে মাকে সন্তান হারাতে হয়, তাকে চোখের জলে বুক ভাসাতে হয়। মনে হচ্ছে আমার সেই অনাগত সন্ ...Details...


.: 20 December 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (3202 বার পঠিত)
যাকে ফুফু বলে ডেকে তৃপ্তি পাই


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. সেই শৈশবেই ফুফুকে হারিয়েছি। তবে এখনো কিছুটা স্মৃতি মনে আছে। ছোটবেলা যখন আব্বা আম্মার সাথে ফুফুর বাড়ি যেতাম। তখন কী যে ব্যস্ত হতেন ফুফু, আমাদের জন্য। কী খাওয়াবেন না খাওয়াবেন। বিকেল হলে আমাদের দুই বোনকে নিয়ে ফুফু গ্রামের ছোট্ট মেঠো পথে দিয়ে হেঁটে নিজের হাতে করা ...Details...


.: 14 December 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (659 বার পঠিত)
নারীশিক্ষা বিস্তারে যিনি ছিলেন দুঃসাহসিক


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১.আমি চাকুরি করি আব্বা কখনো চাননি। যেদিন শুনলেন চাকুরি করবো, সেদিন খুব রেগেছিলেন। অনেক বুঝানোর পর শেষ পর্যন্ত অনুমতি দিলেন। তবে আম্মার কাছে শুনেছি। আমার দাদা ছিলেন খুব পরজেগার ব্যক্তি। গ্রামে কোন অনুষ্ঠান হলে আব্বার বাবা চাচারা না গেলে সেই অনুষ্ঠান সম্পন্ন হতো ...Details...


.: 2 November 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (1072 বার পঠিত)
কিশোরী ভাবনা...


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. ছোটদের ‘শরৎ চন্দ্র’ বইটি হাতে নিতেই নিজেকে তখন কিশোরী মনে হয়েছিল। ভেবেছিলাম তিনি হয়তো অন্য কোন বই হাতে তুলে দেবেন। যাই হোক গত বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ এর সাহিত্য আসর উপস্থাপনা শেষ করে লাইব্রেরীতে গিয়েছিলাম বইয়ের জন্য। বই পড়া অভ্যাস সেই ছোটব ...Details...


.: 24 September 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (689 বার পঠিত)
আরাকানের বুকে লাল বৃষ্টি


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি:
পানিতে ভাসছে লাশের সারি
জ¦লে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে ভালোবাসা ঘেরা প্রিয় জন্মভূমি
ঝরছে হৃদয়ের আহাজারি
জানি হবে একদিন অবসান জুলুম
অত্যাচারীর
মুসলিম নিপীড়িত নির্যাতিত যত আরাকানবাসী
দূর হবে হৃদপিন্ডের বিষের বাঁশি।
আরাকানের বুকে লাল বৃষ্টিস্নাত মরু-প্ ...Details...


.: 9 August 2017 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (2483 বার পঠিত)
অভিমানী গল্পকার


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. চকচকে ঝকঝকে হাসির অন্তরালে অভিমানী একটি মুখ লুকিয়ে থাকে তার হৃদয়ে। যার প্রচন্ড অভিমান করার ক্ষমতা রয়েছে। তাকে বাইরে থেকে গুছালো মনে হলোও ভেতরে ভেতরে সে খুবই অগুছালো। কারন সে যখনই ঘর থেকে বের হয় তখন মানিব্যাগ না হয়, হাত ঘড়ি ঘরে রেখে দৌড় দেয়। তার মাথার চুল দেখলে ম ...Details...


Next Page»: তাসলিমা খানম বীথি এর আরো লিখা »

তাসলিমা খানম বীথি এর সর্বাধিক পঠিত লিখা

.: : ব্যক্তিত্ব :. (12779 বার পঠিত)
কবিতার মাঝে জীবনবোধকে ফুটিয়ে তোলা কবি শফিকুল ইসলামের নিরন্তর সাধনা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি : কবিতার মাঝে জীবনবোধকে গভীরভাবে অন্বেষণ করা কবি শফিকুল ইসলামের নিরন্তর সাধনা। জীবনের আশা-নিরাশা, হতাশা-বঞ্চনা কবিকে আন্দোলিত করলেও কবি তার কাব্য ভাবনায় কখনও বিচলিত হননি......তা তার কাব্যে সুষ্পষ্ট। প্রকৃতি ও প্রেম তার কাব্যে অফুরন্ত প্রেরণার উৎস। তরুণ হৃদয়ের অব ...Details...


.: 21 March 2016 : ব্যক্তিত্ব »মতামত (1) :. (9910 বার পঠিত)
সুমী : সিলেটের প্রথম সফল কৃতি নারী ফটো সাংবাদিক


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি : জন্মমাত্রই প্রতিটি মানুষ সফল। কারন স্বয়ং স্রষ্টা মানুষকে সৃষ্টির সেরা জীব হিসেবে পাঠিয়েছেন এই পৃথিবীতে। সুতরাং সফলতার জন্যই মানুষের জন্ম। সাফল্য-কৃতিত্বের মূল উৎস হলো বিশ্বাস। আর বিশ্বাস হচ্ছে এক বিপুল শক্তি, এটা কোন ম্যাজিক বা অলৌকিক ব্যাপার নয়। সাফল্য প্রত ...Details...


.: 30 April 2016 : মিডিয়া ওয়াচ :. (7214 বার পঠিত)
আম্মা বলে কেউ আর ডাকবে না....


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১ অফিস থেকে বের হয়ে রিকশা না পেয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম আম্বরখানা দিকে। চৌহাট্টা যেতেই কিছুটা যানজট থাকায় হাঁটতে পারছিলাম না। হঠাৎ শুনতে পেলাম ‘আমার আম্মার লাগি রাস্তাটা বড়ো খরা লাগবো’ গলা শুনে বুঝতে পারলাম রাহমান চাচা। কারন তিনি ছাড়া আমাকে আর কেউ আম্মা বলে ডাকে না ...Details...


.: 28 July 2016 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (6285 বার পঠিত)
ফুল ছবি আর কবিতা নিয়ে কাল কাটে কবি চপলের


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি:- চৌধুরী চপল। পুরো নাম চৌধুরী জোৎস্না পারভিন চপল। আশির দশকের গোড়ার দিকে কবিতার অঙ্গনে প্রবেশ। তার সম্পাদিত ‘মনসিক্ত’ ছিলো দুই বাংলার শ্রেষ্ঠ সংগ্রামী প্রজন্মের সেতুবন্ধন। মাসিক ‘চিরকুট’ নামের সাহিত্যপত্র তার সম্পাদনায় এক যুগেরও বেশি বয়সী হয়ে বেড়ে উঠছে। বয়সে এখন ...Details...


.: 4 December 2014 : সাহিত্য-সংস্কৃতি :. (4824 বার পঠিত)
শরতে শুভ্র মেঘের দেখা


SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ শনিবার। অফিস থেকে একটু তাড়াতাড়ী বের হলাম। জীবনটা যেন একটি যান্ত্রীক হয়ে গেছে। শুধু কাজ আর কাজ। জীবনের আনন্দ দিনগুলো সবই যেন এই কাজের আড়ালে চাপা পড়ে গেছে। আমার সাথে নাঈমা চৌধুরী। দ্রুত যাবার জন্য আমরা দু’জন রিকশায় করে কেমুসাসের উদ্দেশ্য রওয়ান ...Details...


পাঠকের মতামত
সুমী : সিলেটের প্রথম সফল কৃতি নারী ফটো সাংবাদিক
পাঠকের মতামতঃ (1)

21 May 2016 তারিখে সালাহ্‌ আদ-দীন লিখেছেনঃ বিথিকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, এরকম একজন মানুষকে আমাদের সাথে পরিচিত করিয়ে দেবার জন্যে! উনাকে অনেক বার দেখেছ! নামও জানতাম তবে কখনও উনার সাথে কথা হয়নি! উনাকে হলুদ জামার পড়া অবস্থায় অনেক দেখেছি! এবার উনার সম্পর্কে জেনে আরও বেশি ভাল লাগলো!

একজন মাশরাফির ভক্ত
পাঠকের মতামতঃ (1)

24 February 2016 তারিখে মিজান মোহাম্মদ সিলেট লিখেছেনঃ nice

মায়াবতী নীলা আপা
পাঠকের মতামতঃ (1)

5 February 2016 তারিখে fcmyddgd 1 লিখেছেনঃ 1

Other Pages :

 
 অন্য পত্রিকার সংবাদ
 অভিজ্ঞতা
 আইন-অপরাধ
 আত্মজীবনি
 আলোকিত মুখ
 ইসলাম ও জীবন
 ঈদ কেনাকাটা
 উপন্যাস
 এক্সপ্রেস লাইফ স্টাইল
 কবিতা
 খেলাধুলা
 গল্প
 ছড়া
 দিবস
 দূর্ঘটনা
 নির্বাচন
 প্রকৃতি পরিবেশ
 প্রবাস
 প্রশাসন
 বিবিধ
 বিশ্ববিদ্যালয়
 ব্যক্তিত্ব
 ব্যবসা-বাণিজ্য
 মনের জানালা
 মিডিয়া ওয়াচ
 মুক্তিযুদ্ধ
 যে কথা হয়নি বলা
 রাজনীতি
 শিক্ষা
 সমসাময়ীক বিষয়
 সমসাময়ীক লেখা
 সমৃদ্ধ বাংলাদেশ
 সাইক্লিং
 সাক্ষাৎকার
 সাফল্য
 সার্ভিস ক্লাব
 সাহিত্য-সংস্কৃতি
 সিটি কর্পোরেশন
 স্বাস্থ্য
 স্মৃতি
 হ য ব র ল
 হরতাল-অবরোধ

লেখালেখি
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অবঃ)
আব্দুল হামিদ মানিক
শফিকুল ইসলাম
প্রা. মেট্রোপলিটান ম্যাজিষ্ট্রেট
ইকবাল বাহার সুহেল
হারান কান্তি সেন
সেলিম আউয়াল
বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সল
এ.এইচ.এস ইমরানুল ইসলাম
জসীম আল ফাহিম
সৌমেন রায় নীল
সাকিব আহমদ মিঠু
রাহিকুল ইসলাম চৌধুরী
সালাহ্‌ আদ-দীন
ছাদিকুর রহমান
সাঈদ নোমান
জালাল আহমেদ জয়
পহিল হাওড়ী (মোঃ আবু হেনা পহিল)
শাহ মিজান
তাবেদার রসুল বকুল
কাউসার চৌধুরী
নারী অঙ্গন
নূরুন্নেছা চৌধুরী রুনী
ইছমত হানিফা চৌধুরী
আমেনা আফতাব
মাহবুবা সামসুদ
সুফিয়া জমির ডেইজী
নীলিমা আক্তার
মাছুমা আক্তার চৌধুরী রেহানা
সালমা বখ্ত্ চৌধুরী
রিমা বেগম পপি
রওশন আরা চৌধুরী
অয়েকপম অঞ্জু
আমিনা শহীদ চৌধুরী মান্না
জান্নাতুল শুভ্রা মনি
মাসুদা সিদ্দিকা রুহী
আলেয়া রহমান
মাজেদা বেগম মাজু
নাঈমা চৌধুরী
শামসাদ হুসাম
তাসলিমা খানম বীথি
রায়হানা বারী রেখা

সাহিত্য-সংস্কৃতি পাতার আলোচিত লিখা
.: 3 weeks ago : :.
মমতাময়ী বীথির জন্য অনেক শুভ কামনা (4694 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

এম এ আসাদ চৌধুরী: সিলেট শহরের একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে বীথি। তার পুরো নাম তাসলিমা খানম বীথি। বাবা-মা আর বোন নিয়ে তাদের পরিবার। তিন বোনের মধ্যে সে মেঝো। তার কোনো ভাই নেই। পড়ালেখা শেষ করে সিলেটে প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টালের স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কাজ করছে। সিলেট এক্সপ্রেসের কাজে Details...


.: 4 weeks ago : নারী অঙ্গন :.
যাকে ফুফু বলে ডেকে তৃপ্তি পাই (3202 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: ১. সেই শৈশবেই ফুফুকে হারিয়েছি। তবে এখনো কিছুটা স্মৃতি মনে আছে। ছোটবেলা যখন আব্বা আম্মার সাথে ফুফুর বাড়ি যেতাম। তখন কী যে ব্যস্ত হতেন ফুফু, আমাদের জন্য। কী খাওয়াবেন না খাওয়াবেন। বিকেল হলে আমাদের দুই বোনকে নিয়ে ফুফু গ্রামের ছোট্ট মেঠো পথে দিয়ে হেঁটে নিজের হাতে করা Details...


.: 3 weeks ago : :.
৭১ এ কানাইঘাট (2247 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

আবু বকর সিদ্দিক: বাংলাদেশের উত্তর -পূর্ব সীমান্তের একটি সমৃদ্ধ জনপথ হচ্ছে কানাইঘাট। সিলেট শহর থেকে অদূরে প্রকৃতির লীলাভূমি সমৃদ্ধ ইতিহাস সমৃদ্ধ একটি জায়গা হলো কানাইঘাট।কানাইঘাট এর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বাংলাদেশের অন্যান্য যেকোন অঞ্চলের চেয়ে কম নয়।এখানে মানুষ রক্ত দিয়েছে।অনে Details...


.: 3 weeks ago : :.
রাজনীতির আয়নায় উজ্জ্বল ফেঞ্চুগঞ্জের রাজনীতিবিদ মরহুম তজমুল অালী চেয়ারম্যান (1046 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

মো. আব্দুল বাছিত: পৃথিবীতে বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন স্থানে সময়ের প্রেক্ষাপটে কিছু মহত এবং আত্মত্যাগী মানুষের আবির্ভাব ঘটে। যারা কোনো সময়ই নিজের কথা ভাবেন না, ভাবেন সমাজ ও দেশের কথা, মানুষের কল্যাণের চিন্তাই যাদের ধ্যান এবং জ্ঞান হয়ে যায়। সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য কিছু করতে পারলে যাদের অন্ Details...


.: 3 weeks ago : নারী অঙ্গন :.
হেমন্তের একটি চমৎকার সন্ধ্যা (709 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

তাসলিমা খানম বীথি: সিলেটের শীতলপাটি বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী একটি শিল্প। এ শিল্প আজ বাংলাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্ব ঐতিহ্যে রূপ নিয়েছে। বাংলার আবহমান সংস্কৃতি ফুটে ওঠে শীতলপাটির গায়ে, অজানা শিল্পীদের মনোজ্ঞ নকশায়। গ্রামের সাধারণ মানুষের হাতে শীতলপাটির গায়ে আঁকা হয় বাংলার প্রকৃত Details...


.: 2 weeks ago : নারী অঙ্গন :.
ডিবির প্রেমে বিবি (703 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

ইছমত হানিফা চৌধুরী: হাওরের দেশ সিলেট। যেমন পাহাড়, টিলার সমারোহ, তেমনি হাজারও ছোট বড় হাওর, যা বর্ষায় কিংবা আষাঢ়ে মেঘের গর্জনে কাছে ডাকে, তেমনি এই হাওর শীতের কুয়াশার সাথে মায়াবি ঘ্রাণ ছড়ায়। সেই ঘ্রাণে ভেসে আসে শাপলা শালুকের মায়া, আবার সেই ঘ্রাণে ভেসে বেড়ায় নিঝুম দ্বীপের ছায়া, মানুষ প্র Details...


.: 1 week ago : :.
আমার দেখা ৫৫ বছর বয়সের টগবগে এক যুবক শ্রদ্ধেয় সেলিম আউয়াল (670 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

মাহমুদুল হাসান :পৃথিবীতে মানুষ জন্মগ্রহণের পর বিদাতার ইশারায়, শিশু থেকে কিশোর, কিশোর থেকে যুবক, যুবক থেকে বৃদ্ধ হয়। আশা আর ভরসার ভেলা ভেসে-চলা মানুষ কেউ হয় বয়সের ভারে বৃদ্ধ কেউ আবার অনেক বয়স হলেও মনোবলের যোগদানে টগবগে যুবকে পরিণত থাকেন। আমার চোখে দেখা তেমনি একজন টগবগে ৫৫ বছর বয়সের অ Details...


.: 3 weeks ago : :.
জ্বলছে আরাকান, পুড়ছে মানব!প্রশ্নবিদ্ধ মানবতা! (478 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

আবু বকর সিদ্দিক:মনে করুন আপনি প্রতিদিনের মত আজকের দিনেও সব কাজকর্ম শেষ করে বাসার সবার সাথে রাত্রে খেয়েদেয়ে ঘুমিয়ে পড়লেন। মধ্যরাত হঠাৎ শুনতে পেলেন চিৎকার উত্তেজনা দূর থেকে ভেসে আসছে মানুষের কান্না।কখনো বা কানে আসছে বোমার শব্দ আবার কখনো দেখতে পাচ্ছেন দূরে কোথায় ও আগুনের লিলিহান শি Details...


.: 7 days ago : :.
গল্পকারের পঞ্চান্ন ও সেলিম আউয়াল ভাই (470 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

জহীর মুহাম্মদ: বলছিলাম শক্তিমান সাংবাদিক ও জনপ্রিয় গল্পকার সেলিম আউয়ালের কথা। সব বিশেষণ ছাপিয়ে যিনি স্বমহিমায় ভাস্বর। যারাই সান্নিধ্য পেয়েছেন তাদের কাছে খুব বেশী প্রিয় একটি নাম সেলিম আউয়াল। সবার হৃদয়ে সমভাবে বসত করে নেয়া সেলিম আউয়ালকে মিডিয়া ও সাহিত্যের সাথে জড়িত কারো কাছে নতু Details...


.: 3 weeks ago : :.
উপহার (348 বার পঠিত)
SylhetExpress.com

ছালিক আমীন:
(তাসলিমা খানম বীথি আপুর জন্মদিনে নিবেদিত)
একটা "সভ্য পৃথিবী" তোমার জন্যে। তুমি সেই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ হয়ে- সুবাস ছড়াও আকাশে-বাতাসে। জনমের পর থেকে- যেই ভাবে ছড়িয়ে যাচ্ছিল- তোমার পূর্বপুরুষ।
. জানি তোমরা অবলা নারী।
পুরুষ- তোদের "নীরব মাটির" সাথে উপমা দেয়। কিন্ত তুমি এই Details...



www.SylhetExpress.com - First Online NEWS Paper in Sylhet, Bangladesh.

Editor: Abdul Baten Foisal Cell : 01711-334641 e-mail : news@SylhetExpress.com
Editorial Manager : Abdul Muhit Didar Cell : 01730-122051 e-mail : syfdianews@gmail.com
Photographer : Abdul Mumin Imran Cell : 01733083999 e-mail : news@sylhetexpress.com
Reporter : Mahmud Parvez Staff Reporter : Taslima Khanom Bithee

Designed and Developed by : A.S.H. Imranul Islam. e-mail : imranul.zyl@gmail.com

Best View on Internet Explore, Mozilla Firefox, Google Chrome
This site is owned by Sylhet Sifdia www.sylhetexpress.com
copyright © 2006-2013 SylhetExpress.com, All Rights Reserved