২৮ বছর পর সিলেট যুগের অবসান

প্রকাশিত : ০৭ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে  
  

সেই ১৯৯১ সালের পর এই প্রথম অর্থ মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর দায়িত্ব পাচ্ছেন এমন একজন, যার বাড়ি সিলেট বিভাগের বাইরে। অর্থাৎ দীর্ঘ ২৮ বছর একচেটিয়া অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন সিলেট বিভাগের কেউ না কেউ। এবার তার অবসান ঘটছে।

রোববার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম জানান, গঠিত হচ্ছে ৪৬ সদস্যের মন্ত্রিসভা। এই মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী থাকছেন। এর মধ্যে আ হ ম মোস্তফা কামাল এমপিকে গুরুত্বপূর্ণ অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে দেয়া হচ্ছে। কুমিল্লা-১০ আসন থেকে তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচীত হন।

বঙ্গভবনে সোমবার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে নতুন মন্ত্রিসভার শপথ হবে। এরপর থেকেই নতুন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রীরা তাদের দায়িত্ব শুরু করবেন।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ১৯৯১ সালে স্বৈর শাসকের অবসান ঘটিয়ে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থায় গঠিত প্রথম সরকারের আমলে পঞ্চম জাতীয় সংসদের অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান এম সাইফুর রহমান। অর্থ মন্ত্রণালয়ে সেই থেকে শুরু হয় সিলেট যুগ। সাইফুর রহমান ছিলেন সিলেট-১ ও মৌলভীবাজার-৩-এর সংসদ সদস্য।

এরপর ১৯৯৬ সালে ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ বাতিল হলে সে বছরই সপ্তম জাতীয় সংসদের অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান শাহ এ এম এস কিবরিয়া। ২০০১ সালে বিএনপি আবারও সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ফের সাইফুর রহমান অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান। এই সরকারের আমলেই আওয়ামী লীগের সফল অর্থমন্ত্রী এবং তৎকালীন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য শাহ এ এম এস কিবরিয়া ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি তার নির্বাচনী এলাকা সিলেটের হবিগঞ্জে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন।

শাহ এ এম এস কিবরিয়ার অবর্তমানে ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ যখন আবার সংসদ গঠন করে, তখন অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান আবুল মাল আবদুল মুহিত। সিলেট-১ আসনের এই সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নবম ও দশম সংসদে নিরিবচ্ছিন্নভাবে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে ১২টি বাজেট ঘোষণা করেন। এ সময়ে নানা মন্তব্য করে আলোচনায় থাকেন তিনি। তার আমলেই মধ্যম আয়ের দেশ হওয়ার পথে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। অবশেষে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আবুল মাল আবদুল মুহিত রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দিলে তার ছেড়ে দেয়া আসন সিলেট-১-এ আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পান তারই ছোট ভাই এ কে আবদুল মোমেন।

এদিকে বিভিন্ন সময় অবসরের কথা বলে আসলেও গত ১ জানুয়ারি সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী চাইলে আরও এক বছর অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করতে পারেন তিনি। বলেন, প্রধানমন্ত্রী কোনও কিছু বললে, আমি না করি না। জাগো নিউজ

পরবর্তী খবর পড়ুন : নির্বাসন

আরও পড়ুন



মানবপাচারের মামলায় বিশ্বনাথের তরুণী পিংকি গ্রেফতার

মানবপাচারের অভিযোগে দায়ের করা মামলায়...

নাদেলকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে নেতাকর্মীদের ঢল

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক...

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন সদর উপজেলার ইফতার ও দোয়া মাহফিল

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: বাংলাদেশ মানবাধিকার...