হ্যাকনী বাংলাদেশ কালচারাল এসোসিয়েশন প্রতিবাদ সমাবেশ

,
প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

হ্যাকনী বাংলাদেশ কালচারাল এসোসিয়েশন পক্ষ থেকে আয়োজিত এ প্রতিবাদ সমাবেশ এবং তীব্র নিন্দা।

হ্যাকনী বাংলাদেশ কালচারাল এসোসিয়েশন তীব্র ক্ষোভের সাথে প্রতিবাদ জানাতে চায় -যে সম্প্রতি বাংলাদেশের এক লাইভ টেলিভিশন অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক লম্পট, পাকিস্তানের এজেন্ট, বাংলাদেশের রাজনীতির কালো অধ্যায় ১/১১ এর মদদ দাতা ব্যরিষটার মঈনুল হেসেন একজন বহুল পরিচিত মহিলা সাংবাদিক ও লেখিকা মাসুদা ভাট্টিকে অপ্রাসংগীক ভাবে চরিত্রহীন বলে সারা বিশ্বের নারী জাতিকে তিনি অপমানিত করেছেন।
একজন সাংবাদিক হিসেবে এবং রাজনৈতিক টক শো তে মাসুদা ভাট্টি’র একটি রাজনৈতিক প্রশ্নের উত্তরে এ রকম ব্যাক্তিগত আক্রমণের মধ্য দিয়ে সমগ্র নারী সমাজের প্রতি এই ব্যরিষ্টার মইনুল হোসেন তার রাজনৈতিক দৃষ্টি ভংগী, নারীদের প্রতি ঘৃণা আর হিংস্রতার নিকৃষ্ট পরিচয় দিয়েছেন।
আমাদের প্রধানমন্ত্রী যখন অক্লান্ত ভাবে শত প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে সমাজের পিছিয়ে পডা সবাই কে, বিশেষ করে দেশের নারী সমাজ কে এগিয়ে নিয়ে এসে সামাজিক ও রাজনৈতিক ভারসাম্য সৃষ্টির জন্য নারীদের কে বিশেষ মর্যাদার আসনে নিয়ে এসেছেন। সরকার, প্রশাসন, রাজনৈতিক সংগঠন, ব্যাংক বীমা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সহ সর্ব ক্ষেত্রে নারীদের কে অগ্রাধিকার দিয়ে ষোল কোটি মানুষের বত্রিশ কোটি হাত কে কর্মমূখী করে উন্নয়ণশীল বাংলাদেশ কে একটি উন্নত সম্মৃদ্ব বাংলাদেশে পরিণত করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন,  প্রধানমন্ত্রী তার এই নারী ক্ষমতায়ণের বিশ্বর অনুকরণীয় সফলতার জন্য ২০১৪ সালে বিশ্ব স্বীকৃতিস্বরুপ ইউনেস্কো কর্তক পিস ট্রী এয়ার্ড পেয়ে বাংলাদেশের মুখ কে বিশ্ব দরবারে উজ্বল করেছেন আর তখন ই এই দেশের শত্রু রা আমাদের কে আবার পাকিস্তান বানাতে লিপ্ত। আর এই ষড়যন্ত্রের একজন অন্যতম হোতা হচ্চে এই ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন।
৭১ এর মহান মুক্তিযাদ্ধে তার বিতর্কিত ভূমিকা, ৭৫ এ খন্দকার মুশতাক আর খুনী জিয়াক্র সাথে তার আতাত, নিকট অতীতে তার যুদ্ধপরাধীদের ছাত্র সংগঠন – ছাত্র শিবিরের সভায় স্বরব উপস্থিতি সম্প্রতি যুদ্ধপরাধী ও ২১ অগাষ্টের খুনি ও পেট্রল বোমা মেরে মানুষ হত্যাকারীদের সাথে ঐক্য জোট করে বাংলাদেশের রাজনীতিতে এক নতুন ষড়যন্ত্রের জাল বুনার প্রক্রিয়ায় সৎ ও সাহসী সাংবাদিকদের মুখ বন্ধ করে দেওয়ার প্রচেষ্টা হিসেবে তিনি এই জঘন্য অবমাননাকর আক্রমণ করেছেন বলে সবাই মনে করছেন।
একজন নারী হিসেবে বিশ্ব নারী সমাজের পক্ষ থেকে এই তথাকথিত ভদ্রলোক খ্যাত ব্যক্তিটির দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
এই কুলাঙারের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির মাধ্যমে ভবিষ্যতে যাতে এ রকম নিকৃষ্ট কাজ করা থেকে বিরত থাকে ভিজ্ঞ আদালত ও সরকারের কাছে তার জোর আবেদন জানাচ্ছি।
এই ব্যারির এর সহযোগীদের একবিংশ শতাব্দীতে কোন দেশেই রাজনীতি করার ও মানুষের জন্য কথা বলার অধিকার থাকতে পারে না । আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশের জন সাধারন ঐসব কুলাংগারদের রাজপথে তাদের উপযুক্ত জবাব দেবে।
প্রতিবাদ সভায় উপস্থীত ছিলেন
শাহিন আক্তার,বীণা বেগম। ছাইমা বেগম এবং শিশুসাহিত্য অনেকই
সভাপতিত্ব করেন হ্যাকনী বাংলাদেশ কালচারাল এসোসিয়েশন যুক্তরাজ্য সভাপতি আঞ্জুমান আরা আনজু।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

সিলেটে সুরমাপাড়ের অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

         সিলেট এক্সেপ্রেস ডেস্ক :  সিলেট...

১০০ শীতার্তকে কম্বল দিল রোটারি ক্লাব অব সিলেট হোয়াইট স্টোন

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক রোটারি ক্লাব...