হযরত শাহজালালের সঙ্গীদের মাজার সুরক্ষা প্রসঙ্গে

প্রকাশিত : ২৪ নভেম্বর, ২০১৮     আপডেট : ১ বছর আগে  
  

বেলাল আহমদ চৌধুরী:  ‘তোমার পুণ্যে সিলেট ধন্য / আরিফ শ্রেষ্ঠ শাহজালাল / দিক হতে দিক করিছে মুখর/তোমার দীপ্ত রূহ জামাল।’ কবি আব্দুর রকীব (রকীব শাহ) তার কবিতায় হযরত শাহজালাল (রহ.)-কে চমৎকারভাবে উপস্থাপন করেছেন। অলিকুল শিরোমণি আধ্যাত্মিক জগতের মুকুটবিহীন স¤্রাট হযরত শাহজালাল (রহ.) সহ তিনশত ষাট আউলিয়ার পূণ্য পদরেনুধন্য একটি প্রাচীন জনপদের নাম সিলেট। সিলেট প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি। অপরূপ নৈসর্গীক দৃশ্যের বিমুগন্ধতায় আধ্যাত্মিক নগরী হিসাবে ধর্মপ্রাণ মানুষ ও পর্যটকদের গতিময় উপস্থিতি বিরাজমান। হযরত শাহজালাল (রহ.) স্মৃতি বিজড়িত সিলেট শুধু বাংলাদেশের নয় বহির্বিশ্বেও এক বিশেষ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত।
সিলেট বাংলাদেশের বহুমাত্রিক সম্ভাবনাময় অঞ্চল হিসাবে বিবেচিত হওয়ার যোগ্যতা রাখে। শুধুমাত্র ইতিবাচক প্রচার ও পরিকল্পিত কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে সিলেট মহানগরকে আরও বেশী সমাদৃত করা সম্ভব।
নগরবাসীর সপ্রশংসিত দৃষ্টি মেয়র মহোদয়ের ওপর। একজন যোগ্য সেবক হিসাবে জাতীয় দায়বদ্ধতা থেকে প্রতিশ্রুতির সিঁড়ি ডিঙ্গিয়ে নতুন নতুন স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। সেই সঙ্গে মিশন হবে ইতিহাস, ঐতিহ্য, পর্যটন বৈচিত্র্য এবং আধ্যাত্মিক সিলেটের হৃতগৌরব পুনরুদ্ধার করা।
সিসিক একটি সুন্দর ও পরিকল্পিত নগর গড়ে তোলার অঙ্গীকার নিয়ে রাস্তা প্রশস্তকরণ, ছড়া, খাল, নালা রাস্তাঘাট নির্মাণ, সংস্কার, পরিস্কার পরিচ্ছন্নকরণ, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন, বিবিধ অবকাঠামো নির্মাণ, শহরের বিভিন্ন মোড়ে নান্দনিক তোরণ ও ফোয়ারা সহ সুরমা নদীর উত্তর তীর ঘেসে রিটেনিং ওয়াল, ওয়াক ওয়ে রাস্তা নির্মাণ হচ্ছে ফলে মহানগরের সর্বাঙ্গীন হারানো সৌন্দর্য ফিরে আসছে।
সিলেট মহানগরের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি শৈল্পিক স্থাপত্যে তৈরী আকাশ স্পর্শী সুরম্য অট্টালিকার মধ্যে মহানগরে অবস্থিত হযরত শাহজালাল (রহ.) সঙ্গীয় আউলিয়াগণের মাজার অনেকটা ঢাকা পড়ে যাচ্ছে। আমি মানুষের তৈরী অতিক্রমনীয় সৃষ্টি দেখে ভাবিত হই। কিন্তু পরক্ষণেই ভাবাদয় হয় মহান আল্লাহর ওলি আউলিয়া যে জায়গায় শান্তির নিন্দ্রায় শায়িত আছেন, সেই কবরস্থ মানুষ সত্য সাধনায় খোদা প্রেমের বাণী প্রচার করে অমর হয়ে আছেন। তাইত, সিলেটবাসী এতো মর্যাদাবান।
সিলেট বাংলার আধ্যাত্মিক রাজধানী। রাষ্ট্রীয় ঘোষণা পায় ১৯৮৬ সালে সাবেক রাষ্ট্রপতি হোসেন মুহাম্মদ এরশাদ সরকারের আমলে। মরোক্কর বিশ্ববিখ্যাত পরিব্রাজক ইবনেবতুতা থেকে শুরু করে বহু আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব ও ধর্মানুরাগীদের পদরেনুতে প্রতিনিয়ত সিলেট ধন্য হচ্ছে।
সিসিকের উদ্যোগে নিবিড় ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ওলীদের আউলিয়াদের মাজার সংস্কার ও পুনঃনির্মাণ করলে ভ্রমণ অনুপ্রেরণায় ধর্মীয় আবেগ এবং ধর্মপ্রাণ মানুষের অন্তরে শ্রদ্ধাবোধ জাগ্রত হবে। সিলেট বিজয়ে হযরত শাহজালাল (রহ.) সহ তার সঙ্গীরা কিভাবে রাজা গৌড় গোবিন্দের অশুভ শক্তির মোকাবেলা করে সমাজে দ্বীন ও ইসলাম প্রতিষ্ঠিত করেছেন এবং তাদের কেরামতি সম্বন্ধে ইতিহাসবেত্তাগণ জানতে আগ্রহী হবেন।
সিলেট মহানগরে আউলিয়াদের অবস্থান ও মাজার পরিচিতি উল্লেখ করছি। আশা করবো নন্দিত মেয়র মহোদয় আধ্যাত্মিক সাধকদের মাজার সংস্কার, রক্ষণাবেক্ষণ ও সুরক্ষায় উদ্যোগী হবেন। মাজারগুলো হল:
১। সৈয়দ আহমদ কবির (রহ.) পাঠানটুলা। ২। সৈয়দ আহমদ নিশান বর্দার (রহ.) খাসদবির। ৩। হযরত আরিফ মুলতানী (রহ.) পুরানলেন, জিন্দাবাজার। ৪। হযরত সৈয়দ আহমদ (রহ.) (দাদাপীর) পূর্ব মিরাবাজার। ৫। হযরত খান্ডা ঝকমক (রহ.) রায়নগর। ৬। হযরত কাজী ইলিয়াস ওরফে কাজী গয়লা (রহ.) কাজীটুলার কাজী দিঘীর উত্তর পূর্ব কোণে। ৭। হযরত সৈয়দ হামজা (রহ.) ঝর্নারপার মহল্লায় টিলার ওপর। ৮। হযরত সৈয়দ উমর সমরকান্দ (রহ.) নাইওরপুল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সন্নিকটে। ৯। হযরত শায়েখ আব্দুল্লাহ (রহ.) নাইওরপুল। ১০। হযরত শায়েখ শাহ সঞ্জর (রহ.) বারুতখানা। ১১। হযরত শায়েখ শাহ খিজির (রহ.) বারুতখানা। ১২। হযরত শায়েখ বাগদার আলী শাহ বারুতখানা। ১৩। হযরত শায়েখ হাজী গাজী (রহ.) শাহী ঈদগার পূর্বে। ১৪। হযরত শায়েখ চাশনীপীর (রহ.) গোয়াইপাড়া। ১৫। হযরত শাহমীর (রহ.) (মিরার পীর) কাজীটুলা। ১৬। হযরত সৈয়দ জিয়াউদ্দিন (রহ.) ও সঙ্গীয় চার জন (পাঁচ পীরের মোকাম নামে পরিচিতি) জিন্দাবাজার। ১৭। হযরত জালাল আহমদ (রহ.) চৌহাট্টা থেকে উত্তরমুখী রাস্তার পশ্চিমে। ১৮। হযরত শায়েখ পীর (রহ.) মজুমদারী মহল্লায় আশরাফ আলী সাহেবের বাড়ির পশ্চিমে। ১৯। হযরত শেখ শাহ রওশন চেরাগ (রহ.) আম্বরখানা, দর্শন দেওড়ী। ২০। হযরত শায়েখ নুরুল্লাহ ওরফে শাহ নূর (রহ.) কালীঘাট পূর্ব-দক্ষিণ কোণে। ২১। হযরত শায়েখ মানিকপীর (রহ.) কুমারপাড়া মানিকপীর টিলায়। ২২। হযরত মখদুম হাবিব ওরফে শাহ মখদুম (রহ.) দপ্তরীপাড়া। ২৩। হযরত শায়েখ খিজির খাসদবির (রহ.) খাসদবির। ২৪। হযরত শায়েখ মদন (রহ.) টিলাগড়। ২৫। হযরত শায়েখ সৈয়দ হাতিম আলী (রহ.) সিলেট-তামাবিল সড়কের শিবগঞ্জ বাজারের নিকটে। ২৬। হযরত শায়েখ গরম দেওয়ান শেখঘাট লামাবাজার। ২৭। হযরত গাজী বুরহান উদ্দিন (রহ.) সিলেট শহরের কুশিঘাট এলাকায়। ২৮। হযরত শায়েখ মধুসুদন (রহ.) রিকাবী বাজার মধুশহীদ। ২৯। হযরত শায়েখ দেওয়ান ফতেহ মুহাম্মদ (রহ.) শেখঘাট। ৩০। হযরত শায়েখ করম মুহাম্মদ কুয়ারপাড়। ৩১। হযরত শায়েখ কাজী ইলিয়াস (রহ.), কাজী ইলিয়াস। ৩২। হযরত শায়েখ জিন্দাপীর (রহ.) জিন্দাবাজার। ৩৩। হযরত শায়েখ সৈয়দ লাল (রহ.) কুয়ারপাড়। ৩৪। হযরত সৈয়দ শাহান (রহ.) জল্লারপার। ৩৫। হযরত গোলাম আমীন (রহ.) জল্লারপার। ৩৬। হযরত কাজী জাহান (রহ.) জল্লারপার। ৩৭। হযরত শাহ আবু তোরাব (রহ.) আবু তোরাব মসজিদ সংলগ্ন জেল রোড। ৩৮। হযরত শায়েখ লাল, সদাগরটুলা। ৩৯। হযরত শায়েখ শাহ চান (রহ.) ভার্থখলা। ৪০। হযরত মুক্তার শহীদ (রহ.) মুক্তার খাঁ পূর্ব মিরাবাজার। ৪১। হযরত শায়েখ চান গাজী (রহ.) নয়া সড়ক। ৪২। হযরত খাজা নাসির উদ্দিন উরফে শাহচট (রহ.), কালিঘাট।

পরবর্তী খবর পড়ুন : না'তে রাসূল (সাঃ)

আরও পড়ুন