হক নগর হবে আকর্ষণীয় একটি পর্যটনকেন্দ্র –বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ৩১ অক্টোবর, ২০১৮     আপডেট : ৩ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মুক্তিযুদ্ধে ৫ নম্বর সেক্টরের সদরদপ্তর দোয়ারাবাজারের হক নগরকে (বাঁশতলা) পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে ঘোষণা দিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল এমপি।
মঙ্গলবার দোয়ারাবাজারের হক নগরে পর্যটনকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে তিনি এ ঘোষণা দেন।
মন্ত্রী বলেন, হকনগর পর্যটনকেন্দ্র হবে বাংলাদেশের মধ্যে আকর্ষণীয় একটি পর্যটনকেন্দ্র। ইতোমধ্যে এর কাজ শুরু হয়েছে। মুহিবুর রহমান মানিক যে কাজে হাত দেন, তার সফল সমাপ্তি পর্যন্ত লেগে থাকেন। মানিক হক নগরকে একটি আধুনিক পর্যটনকেন্দ্র করতে বর্তমান সরকারের সাথে লেগে আছেন। তার জন্যই এখানে আসা। হক নগর দেখা এবং এই স্থানকে দেশের আকর্ষণীয় একটি পর্যটনকেন্দ্র করতে উদ্যোগ নেওয়া।
হক নগর স্মৃতিসৌধ মাঠে বাংলাবাজার ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মন্ত্রী। সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন ছাতক-দোয়ারা নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক।
সমাবেশে মন্ত্রী শাহজাহান কামাল আরো বলেন, ছাতক-দোয়ারাবাজারবাসী ভাগ্যবান। আমাদের গৌরময় মহান মুক্তিযুদ্ধের একটি শ্রেষ্ঠ স্থান এই এলাকায়। এছাড়া এই এলাকার মানুষ আরো ভাগ্যবান তারা মুহিবুর রহমান মানিকের মতো উন্নয়ন পাগল একজন জনপ্রতিনিধি পেয়েছেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা এদেশের মানুষের মনের ভাষা বুঝেন। মানুষের দুঃখ কষ্ট বুঝেন। তাই তিনি পরিবার হারিয়ে, মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে দেশকে সমৃদ্ধির সংগ্রামে নেমেছেন। সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে তিনি বাংলাদেশকে উন্নয়রে পথে এগিয়ে নিচ্ছেন। এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা আমাদের ধরে রাখতে হবে। আওয়ামী লীগকে আবারও ক্ষমতায় পাঠাতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, আপনাদের এলাকায় এসে বুঝলাম মহিবুর রহমান মানিক আপনাদের কাছে কতোটা প্রিয়। তবে আপনারাও জেনে খুশি হবেন, মুহিবুর রহমান মানিক আওয়ামী লীগের কাছে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কাছেও সমান প্রিয়। আমাদের প্রিয় এই মানুষকে আবারও সংসদে পাঠিয়ে আপনাদের বাকি উন্নয়ন বুঝে নেবেন।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে মুহিবুর রহমান মানিক এমপি বলেন, ছাতক-দোয়ারার মানুষ বুকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করেন। কিন্তু দেশ স্বাধীনের পর থেকে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার আগ পর্যন্ত এই এলাকা সকল দিক থেকে পিছিয়ে ছিলো। এ পর্যন্ত ছাতক-দোয়ারায় যত উন্নয়ন হয়েছে আওয়ামী লীগের হাতেই হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এই এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে আপনারা আমাকে বারবার সংসদে পাঠিয়েছেন। আমি আমার মনপ্রাণ দিয়ে ছাতক-দোয়ারার উন্ন্য়নে কাজ করছি। বাকি কাজগুলো সমাপ্ত করেতে পারলে ছাতক-দোয়ারা দেশের শ্রেষ্ঠ একটি অঞ্চলে পরিণত হবে।
দোয়ারাবাজার উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও বাংলাবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন মাস্টারের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ পল্লীবিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার অকিল কুমার সাহা, দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. আব্দুর রহিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক আমিরুল হক চেয়ারম্যান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল খালিক, দোয়ারা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ একরামুল হক, ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ আহমদ, ছাতক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত লাহিন, সুনামগঞ্জ পল্লীবিদ্যুতের সচিব পীর মোহাম্মদ আলী মিলন, আওয়ামী লীগ নেতা আফজাল হোসেন, জাউয়াবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন, যুবলীগ নেতা অতুল দে, সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল আবেদীন আবুল, দোহালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজি আনোয়ার মিয়া আনু, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সফর আলী, সুনামগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহসভাপতি বাবুল রায়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম ও যুবলীগ নেতা লুৎফুর রহমান। মন্ত্রী বাংলাবাজার ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে বিদ্যুতায়নেরও উদ্বোধন করেন।
মন্ত্রী দুপুরে ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ আব্দুল হক স্মৃতি কলেজে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪ তলা বিশিষ্ট দু’টি একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করেন। পরে কলেজ মাঠে এক সুধী সমাবেশে অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিকের সভাপতিত্বে ও অধ্যাপক রমেন্দু বিকাশ দের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, ছাতক-দোয়ারা নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার বরকত উল্লাহ খাঁন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল হাকিম। বক্তব্য রাখেন, ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত লাহিন, কলেজ গভর্ণিং বডির সদস্য, দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক তাপস দাস পুরকায়স্থ প্রমুখ। সকালে গোবিন্দগঞ্জ পৌঁছলে মন্ত্রীকে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে বরণ করেন। মন্ত্রী ছাতকের সিমেন্ট কোম্পানি গেস্ট হাউজে রাত্রি যাপন করে আজ বুধবার সকালে সিমেন্ট কারখানা পরিদর্শন করবেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পরবর্তী খবর পড়ুন : সংলাপে জয়ী হোক জনগণ

আরও পড়ুন

কবি ফকির ইলিয়াস-এর মাতৃ বিয়োগ

        সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক:   দক্ষিণ সুরমার...

চলমান কঠোর লকডাউন আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার

        মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ...

করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুতি নেই সিলেটে

        ওয়েছ খছরু মহামারি করোনা নিয়ে...