স্কুল কর্তৃপক্ষের সাথে ধারাবাহিক মতবিনিময়

প্রকাশিত : ০২ জুলাই, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক:

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে এক শ্রেণী থেকে অন্য শ্রেণীতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শেসন ফি ,একাডেমিক ফি,উন্নয়ন ফি বা অন্য যে কোন নামে কোন ফি গ্রহণ করা যাবে না মর্মে হাইকোর্টের রায় ও সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আনন্দনিকেতন,খাজাঞ্চিবাড়ি ও গ্রামার স্কুল কর্তৃপক্ষের সাথে মতবিনিময় করেছেন সিলেট ইংলিশ মিডিয়াম ¯কুল অভিভাবক এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ । আজ সোমবার ( ২ জুলাই ) সকালে খাজাঞ্চিবাড়ি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজে অধ্যক্ষ মোঃ হোসেন আহমদের সাথে দেখা করে এসোাসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের অনুরোধ জানান । নেতৃবৃন্দ বলেন,সবার জন্য আধুনিক শিক্ষা এবং শিক্ষাব্যয় কমানোর লক্ষ্যে মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ এবং জেলা শিক্ষা অফিসার প্রেরিত চিঠির আলোকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রতি বছরান্তে মোটা অংকের টাকা নেওয়া সম্পূর্ণ বেআইনি । আমরা লক্ষ্য করছি,একজন শিক্ষার্থীকে একই স্কুলে প্রতি বছরই ভর্তি হতে হচ্ছে এবং তার অভিভাবককে প্রতি বছর মোটা অংকের টাকা দিতে হচ্ছে । রায়ের পর এবং জেলা শিক্ষা অফিসারের চিঠি প্রেরণের পরও কোন কোন স্কুল অতি মুনাফার লোভে বেআইনিভাবে পুন:ভর্তি ফি গ্রহণ করে যাচ্ছে । নেতৃবৃন্দ এ ধরণের কোন ফি না দিতে অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানিয়ে প্রয়োজনে জেলা শিক্ষা অফিসার বা এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগের ( ০১৭১০৯৮৬২৬৪,০১৭১১৩৮৮৪৬৩,০১৭১২১৬৬৬৮৮) পরামর্শ দেন ।
এরপর নেতৃবৃন্দ সিলেট গ্রামার স্কুলে অভিভাবকদের সাথে দেখা করে সবকিছু অবহিত করে পুনঃভর্তি ফি বা শেসন ফি না দিতে হাইকোর্টের রায়ের কথা অবহিত করেন । পরে তারা স্কুলের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন করার অনুরোধ জানান । এদিকে ধারাবাহিক মতবিনিময়ের অংশ হিসেবে গত রবিবার সকালে এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ আনন্দনিকেতনের স্কুলে অধ্যক্ষের অবর্তমানে এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি পারভিন সাকিবার সঙ্গে দেখা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেআইনি ফি গ্রহণ না করার অনরোধ জানান । তারা এ সংক্রান্ত কাগজপত্র অধ্যক্ষের কাছে পৌঁছানোর জন্য তার হাতে তুলে দনে । তিনটি স্কুলের কর্তৃপক্ষই হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নে তাদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন । এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সভাপতি মাহবুব চৌধুরী,সিনিয়র সহসভাপতি কয়েছ উদ্দিন আহমদ,সহসভাপতি মনজুর আহমদ, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল মুকিত অপি, রোটারিয়ান সৈয়দ বাহারুল ইসলাম রিপন,এডভোকেট মিজানুর রহমান, মোঃ শফিকুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, বেলাল আহমদ প্রমুখ । উল্লেখ্য ২০১৭ সালের ২৫ মে বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত একটি বেঞ্চ ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে এক শ্রেণী থেকে অন্য শ্রেণীতে উর্ত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ভর্তি ফি,সেশন ফি বা একাডেমিক ফি’র নামে কোন ফি আদায় করা যাবে না বলে রায় দেন । আদেশে বলা হয়,ভর্তি ফি,টিউশন ফি নির্ধারণ করবে ম্যানেজিং কমিটি তাতে অভিভাবক প্রতিনিধিদের মতামত প্রাধান্য পাবে এবং ওয়েবসাইটে তা প্রকাশ করা হবে । শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেশন ফি ও ভ্যাট আদায় নিয়ে দুটি রিট আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আদালত এই রায় দেন । এদিকে,অভিভাবকদেও করা একটি আবেদনের পেক্ষিতে জেলা শিক্ষা অফিসার গোলজার আহমদ খান গত ২২ মে সিলেটের সকল ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে চিঠি দিয়ে ভর্তি ফি,সেশন ফি বা একাডেমিক ফি-এর নামে কোন ফি না নিতে এবং মহামান্য হাইকোর্ট প্রদত্ত যাবতীয় নির্দেশনা অনুসরণ ও বাস্তবায়নের অনুরোধ জানান ।

আরও পড়ুন

কান্নায় ভেঙে পড়লেন মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম...

ইন্টারনেটে কিভাবে নিজের গোপনীয়তা রক্ষা করবেন

ফেসবুকের কোটি কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য...

সেলিম হাসান মালেয়শিয়া যাত্রা

জেএমজি কার্গের মেনেজার সিলেট সামাজিক...

Custom Writing

For those who’ve lost jobs...