সোহেলের রক্ত বদলা নিতে হলে জনগনকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে-মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ২ বছর আগে

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সোহেলের রক্ত এর বদলা নিতে হলে জনগনকে ঐক্যবদ্ব্ হয়ে এই সরকারকে সরাতে হবে।সবাইকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার সংগ্রামে শরিক হওয়ার আহবান জানান।’

সোমবার বিকেলে বালাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সায়েম আহমদ সোহেলের শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে গুলিতে নিহত হন সোহেল। সোমবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা সোহেলের কবর জিয়ারত ও পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে সিলেট সফরে আসেন। হযরত শাহজালাল (রহ.) ও হযরত শাহপরান (রহ.) এর মাজার জিয়ারত শেষে তারা বালাগঞ্জে যান।

নিহত ছাত্রদল নেতা সোহেলের কবর জিয়ারত ও পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। পরে সেখানে গ্রামের মাঠে শোকসভায় বক্তব্য রাখেন তারা। বালাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদারের সভাপতিত্বে এবং জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ খান জামাল ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিবের পরিচালনায় শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী, ‘নিখোঁজ’ ইলিয়াস আলীর ভাই আসকির আলী, নিহত ছাত্রদল নেতা সোহেলের চাচাতো ভাই লুৎফুর রহমান।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান বীরপ্রতীক, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কলিম উদ্দিন মিলন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মিজানুর রহমান চৌধুরী, জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীম, সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সহসভাপতি কাইয়ুম চৌধুরী, জেলা বিএনপির সহসভাপতি ফখরুল ইসলাম ফারুক, যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুর রব ফয়সল, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি কাউন্সিলর কয়েস লোদী, যুগ্ম সম্পাদক আজমল বখত সাদেক, বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদাল মিয়া, ওসমানীনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নুল হক চৌধুরী, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি নেতা রুপা রাজা চৌধুরী প্রমুখ।

পরবর্তী খবর পড়ুন : স্বাধীনতা

আরও পড়ুন