সৈনিক থেকে শিক্ষাবিদ

,
প্রকাশিত : ১২ মার্চ, ২০১৯     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রুহুল ফারুক:
আমরা প্রস্তর যুগ, কৃষি যুগ, শিল্প যুগ পার হয়ে বর্তমান একবিংশ শতাব্দীতে কম্পিউটার তথা তথ্য-প্রযুক্তির যুগে প্রবেশ করেছি। বিশেষ করে মুক্তবাজার অর্থনীতি, বিশ্বায়নের ফলে পৃথিবীর মানুষ প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য প্রতিনিয়ত চেষ্টা, সাধনা করে যাচ্ছেন, ফলে যারাই সক্রিয় তারাই সফল হচ্ছেন। এই জীবন সংগ্রামে একজন সফল সংগ্রামী সৈনিক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অব.)।
কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদে ২০০৮ সালে একটি অনুষ্ঠানে তার সাথে পরিচয়। এরই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন অনুষ্ঠান, পত্র পত্রিকায় প্রবন্ধ-নিবন্ধ, তার লেখা বই স্মৃতির অলিন্দে (জুন ২০০৩), কালের কথামালা (জুন ২০০৮), আমার জীবন আমার যুদ্ধ (ডিসেম্বর ২০১২) পড়ে ব্যক্তি সৈনিক থেকে শিক্ষাবিদ এর কর্ম তৎপরতা জানার সুযোগ হয় ।
খুবই মজার একটি বই আমার জীবন আমার যুদ্ধ। এই বইটি আমি একাধিকবার পড়েছি। বইটিতে ঐতিহাসিক তথ্য, ব্যক্তিগত জীবন, শিক্ষা , সৈনিক জীবন, পারিবারিক জীবন, সামাজিক জীবনসহ নানাবিধ ঘটনা ফুটে উঠেছে। তার এই আতœজীবনীমুলক বইয়ে জীবনের রোমাঞ্চকর অনেক কথা প্রকাশ পেয়েছে ।
তিনি একাধারে একজন দেশপ্রেমিক গর্বিত সৈনিক, খ্যাতিমান শিক্ষাবিদ এবং লেখক। একটি তথ্য আমাদের সিলেটের ইতিহাস গবেষণায় সহায়ক হবে বলে আমার মনে হয় । তা হলো, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অব.) এর পূর্বপুরুষের পারিবারিক তথ্য যা সুলতানী আমলের ফরমান। জানা যায় সুলতানী আমলে তাদের পূর্বপুরুষ হজরত শাহজালালের (র.) সফরসঙ্গী হযরত শাহ্ সিদ্দিক -এর খাদিম হিসাবে যে জমি লিখিত স্বীকৃতি প্রাপ্ত হয়েছিলেন তারই একটি নমুনা-

শ্রীদুর্গা
অলি মনসুর ছেগার বন্দোবস্ত বিষয়
৭ কৈফত জমি াৈখীরাজী সাং পং গহর =পুর মৌজে পাচঁপাড়া বাবতে চেরাগী দরগাত্র
হজরত শাহজালাল বানামে খদিমান হাসিম ও গত্ররহ ও বানাই ও গত্ররহ মায়াজি তেরা
কুলবা জমি দতব্য। জরিব কালে অলি তান ভাই মনসুর খানদানীয়তে দরবেশ দাত্তাতে ও
চদরিয়ান ও খাদিমান গত্তাইতে ঐ চেরাগী হইতে বাবতে খুর ও পুশ বনামে অলি মনসুর
ছেগা বন্দবস্ত দেওয়া গেল আখের তদুরুপ অলি উপাত পর তান বেটা নরসা ও নুরসার
উপাত পর তান এক বেটা নাহারসা তদরূপ মনসুর মজরদ উপাত পায় ।
এ থেকে জানা যায় যে উনাদের বংশ সিদ্দিকী নামে পরিচিত এবং উনার মাতার বংশ ও খানদানী পরিবার ।
তিনি তার পিতামাতার ঐতিহ্য লালন করে জীবন সংগ্রাম চালিয়ে যান। প্রথম চাকুরি হিসাবে তিনি ১৯৬৭ খ্রি: পাকিস্তান মিলিটারি একাডেমিতে যোগদান করে তিনি কোর অব আর্টিলারিতে কমিশন প্রাপ্ত হন। সৈনিক জীবনে সফলতার স্বীকৃতী স্বরুপ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদ অলংকৃত করেন। বিশেষ করে আপোষহীন নীতি-বিধান পালন করে সেনাবাহিনীতে সুনাম অর্জন করেন। তার এই সুনাম সম্পর্কে বার্ষিক প্রতিবেদনের অংশবিশেষে লিখেছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবুসালেহ মোহাম্মদ নাসিম (১৯৯৫), মেজর জেনারেল ইমাম-উজ-জামান, জিওসি ৯ পদাতিক ডিভিশন (২০ জুন ১৯৯৬ ), মেজর জেনারেল মাহমুদুল হাসান (১৯৯২), মেজর জেনারেল হাসান মাশহুদ চৌধুরী (১৯৯৮) লেখেনÑব্রিগ্রেডিয়ার জুবায়ের একজন পরিণত বুদ্বিসম্পন্ন, স্থিরমতি অফিসার। তিনি পূর্ণ নির্ভরযোগ্যতার সঙ্গে তার দায়িত্ব পালন করেছেন। ব্রিগেডিয়ার জুবায়ের একজন আত্মপ্রত্যয়ী জ্যেষ্ঠ অফিসার। সামরিক মূল্যবোধের প্রতি তিনি অবিচল আস্থা পোষণ করেন। তিনি নিজেকে আত্মমর্যাদা সম্পন্ন অফিসার হিসাবে উ্পস্থাপন করেন। নেতৃত্ব সুলভ গুণাবলির সফল বহিঃপ্রকাশের মাধ্যমে তিনি অন্যান্যদের প্রভাবিত করতে সক্ষম ।
জুবায়ের সিদ্দিকী সেনাবাহিনীতে যেভাবে সুনামের সাথে কাজ করেন তেমনি অবসর জীবনেও শিক্ষার জগতে সুনাম অর্জন করেন। ২০০২ খ্রিষ্টাব্দে সিলেটে ইলেকট্রিক সাপ্লাই রোডে স্কলার্স হোম নামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল হিসাবে যোগদান করে অদ্যাবধি ২০১৯ সাল পর্যন্ত শাহী ঈদগাহ ক্যাম্পাসের দায়িত্ব পালন করছেন। তার সৈনিক জীবন থেকে শিক্ষাবিদ হিসাবে আজও দেশ-সমাজের কল্যাণে কাজ করে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। তা চিরকাল স্মরণীয়, অনুকরণীয় হয়ে থাকবে।
রুহুল ফারুক, সম্পাদক , মাসিক শাহজালাল


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পরবর্তী খবর পড়ুন : একজন জুবায়ের সিদ্দিকী

আরও পড়ুন

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে সমাপনী,ইবতেদায়ী,জেএসসি ও জেডিসি’র ফল প্রকাশ

         সালেহ আহমদ হৃদয়, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি...

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সিলেট এর বার্ষিক সাধারণ সভা আগামী সোমবার

7        7Sharesসিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক বাংলাদেশ রেড...

আবৃত্তির মধ্য দিয়ে কাজী নজরুল ইসলামের জন্ম দিন উদযাপন

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: ‘‘তুমি আলোকের-তুমি...