সুপ্রীমকোর্ট পেনসেলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে ব্যবসায়ীদের শাটডাউন স্থগিতের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে

প্রকাশিত : ০৭ মে, ২০২০     আপডেট : ৩ সপ্তাহ আগে  
  

এমদাদ চৌধুরী দীপু (নিউইয়র্ক)
যুক্তরাস্ট্রে করোনা ভাইরাসের ব্যাপকতা শুরু হলে রাজ্য রাজ্যে গভর্নরেরা লকডাউন,শাটডাউনের ঘোষনা দেন। পেনসেলভেনিয়া রাজ্যে শাটডাউন চলছে। তবে পেনসেলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যেও ব্যবসায়ীদের একটি গ্রুপ শাটডাউন স্থগিতের জন্য আদালতের স্মরনাপন্ন হন। সুপ্যীমকোর্টে মামলা করেন তারা। ব্যবসায়ীরা রাজ্যে শাটডাউন তুলে দেয়ার জন্য অথবা স্থগিতের জন্য বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ৬মে উচ্চ আদালত বিচারপতিদের মধ্যে মতবিরোধ ছাড়াই স্থগিতাদেশ আমলে না নিয়ে খারিজ করে দিয়েছেন। শাটডাউন চ্যালেঞ্জকারী ব্যবসায়ীরা পেনসিলভেনিয়া সুপ্রিম কোর্টের কাছে জরুরী অনুরোধের মাধ্যমে এই নিষেধাজ্ঞাগুলি আটকাতে চেয়েছিল, কিন্তু আদালতও এই আদেশ (শাটডাউন)প্রত্যাহার করতে অস্বীকার করেছিলেন।

পেনসেলভেনিয়ার ডেমক্রেট দলীয় গভর্নর করোনা ভাইরাসের বিস্তার বন্ধ করতে ১৯মার্চ রাজ্যে শাটডাউন ঘোষনা করেন। গত ২০ এপ্রিল রাজ্যেও ব্যবসায়ীদেও একটি অংশ শাটডাউন তুলে দেয়ার জন্য দাবী জানান এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।
এই মামলায় একজন রিপাবলিকান ব্যবসায়ী বাদী হয়েছিলেন যিনি একজন কাঠ ব্যবসায়ী। রিপাবলিকানরা যুক্তি দিয়েছেন শাট ডাউনের ফলে রাজ্যের অর্থনৈতিক মারাতœক ক্ষতির মুখে এছাড়া বিভিন্ন রাজ্যে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। এদিকে গভর্নও জানিয়েছেন শীঘ্রই লক ডাউন তুলে দেয়ার সম্ভাবনা নাই। স্টে হোমসহ লকডাউন মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন রাজ্যের জনসাধারনের প্রতি,তিনি বলেছেন এখনো করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেই।
পেনসেলভেনিয়ায় বর্তমানে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ৫৫ হাজার,মারা গেছেন ৩৩৪৭জন,একদিনে মৃত্যু ১৫১জনের। এই রাজ্যে প্রায় ৩লাখ লোকের টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। ৫০ হাজার রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এদিকে যুক্তরাস্ট্রে আজ শনাক্তের সংখ্যা ১২ লাখ ৫৮ হাজারের উপরে। মৃত্যু ৭৪ হাজার ১৯০জন। সুস্থ হয়েছেন ২লাখ ৬হাজারের উপরে।
ওয়াল্ডোমেটারের তথ্যমতে নতুনভাবে শনাক্ত হয়েছেন একদিনে ২০ হাজারের উপওে এবং ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ১৯১৯জন।
ডনউইয়র্কে মোট মৃত্যু এখন ২৫হাজার ৪৩৬জন,শনাক্ত ৩লাখ ৩০ হাজারের উপওে,সুস্থ প্রায় ৫০ হাজার।
এদিকে নিউজার্সী,ম্যাসাজুসেট,ইলিনইস,ক্যালিফোর্নিয়া,মিশিগান,কানেকটিকা অঙ্গরাজ্যে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা আশংকাজনক পর্যায়ে রয়েছে।
যুক্তরাস্ট্রে টেস্ট সম্পন্ন হওয়া মানুষের সংখ্যা প্রায় ৮০ লাখ।

আরও পড়ুন