সিলেট-৩ আসনে ‘লাঙ্গল’ পেলেন আতিকুর রহমান আতিক

,
প্রকাশিত : ১০ জুন, ২০২১     আপডেট : ১২ মাস আগে

এনামুল হক রেনু :
সিলেট-৩ আসনে উপ-নির্বাচনে জাপা’র প্রার্থিতা ঘোষণা নিয়ে ঘটেছে তুলকালাম কাণ্ড। তবে, সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ‘লাঙ্গল’ জুটেছে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আতিকুর রহমান আতিকের ভাগ্যে।

গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে এ লক্ষ্যে সভা অনুষ্ঠিত হয়। পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপির সভাপতিত্বে মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

জানা গেছে, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি মরহুম হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের স্নেহভাজন আলহাজ্ব মোহাম্মদ আতিকুর রহমান আতিক ইতোপূর্বেও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়কারী ও হবিগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। সিলেটে ঐতিহাসিক টিপাইমুখ লংমার্চ, সিলেটের ৪টি জেলায় জাতীয় পার্টি রোডমার্চ, সিলেট বিভাগের প্রতিটি উপজেলা, থানা এবং পৌরসভায় জাতীয় পার্টির কমিটি গঠন, জাতীয় পার্টিকে তৃণমূলে শক্তিশালী করার জন্য আতিক বিশেষ অবদান রেখেছেন।

এদিকে, গতকাল বুধবার সকালে ঢাকায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে সংঘর্ষে জড়ান দুই মনোনয়ন প্রত্যাশী আতিকুর রহমান আতিক ও নজরুল ইসলাম বাবুলের সমর্থকরা। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার সিলেট-৩ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ডাকা হয় সাক্ষাৎকার প্রদানের জন্য। এ লক্ষ্যে সকালেই বনানীর দলীয় কার্যালয়ে হাজির হন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। প্রেসিডিয়াম সদস্য আতিকুর রহমান আতিক নিজের অনুসারীদের নিয়ে সকালেই হাজির হন দলীয় কার্যালয়ে। এরপর অনুসারীদের নিয়ে সেখানে হাজির হন আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী ও দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুল। এ সময় দুই নেতার অনুসারীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। পরে পার্টির নেতৃবৃন্দ ও পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিলেট জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য এম এ শহীদ অভিযোগ করে বলেন, আমরা আতিকুর রহমান আতিককে নিয়ে বনানীর পার্টি অফিসের সামনে শ্লোগান দেয়ার সময় নজরুল ইসলাম বাবুলের অনুসারীরা আমাদের উপর হামলা করে।

এ ব্যাপারে জানতে আতিকুর রহমান আতিক ও নজরুল ইসলাম বাবুলের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা কেউ ফোন ধরেননি।

এদিকে, সদ্য পার্টিতে যোগদানকারী ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম বাবুলকে সম্প্রতি একটি বৈঠক থেকে জাপার প্রার্থী ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় ক’জন নেতা। এরপরই ঝড় শুরু হয় সিলেট জাপায়। পাল্টাপাল্টি অভিযোগ এনে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি উঠে আসে।

প্রসঙ্গত, সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয়পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকায় ছিলেন- আতিকুর রহমান আতিক, ইশরাকুল হোসেন শামীম, আহসান হাবিব মঈন, উসমান আলী, আব্দুর রহিম, নজরুল ইসলাম বাবুল, গিয়াস উদ্দিন, আব্দুল্লাহ সিদ্দিকী, আব্দুল মালেক খানসহ ১১জন। গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত সাক্ষাৎকার বোর্ডে ১০জন প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন। তাদের মধ্যে পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ আতিকুর রহমান আতিককে মনোনয়ন প্রদান করে মনোনয়ন বোর্ড। মনোনয়ন বোর্ডের সভায় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, এডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু এমপি, এডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, অতিরিক্ত মহাসচিব (সিলেট বিভাগ) এটিইউ তাজ রহমান, অতিরিক্ত মহাসচিব (চট্টগ্রাম বিভাগ) এডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, অতিরিক্ত মহাসচিব (ঢাকা বিভাগ) লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি।


আরও পড়ুন