সিলেট শহরকে ডিজিটাল শহর হিসাবে গড়ে তুলতে বর্তমান সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে … সচিব এন এম জিয়াউল আলম

প্রকাশিত : ০৬ জুলাই, ২০১৯     আপডেট : ১১ মাস আগে  
  

রোটারি ক্লাবের প্রকল্পগুলো সুবিধা বঞ্চিত মানুষের কল্যাণে রয়েছে যা সরকারের সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করছে। পাশাপাশি আইটি সেক্টরে দক্ষ জনশক্তি বাড়ানোর ক্ষেত্রে রোটারি ক্লাবগুলোর ভূমিকা পালন করা উচিত।
জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের ৩৫তম অভিষেক অনষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব এন এম জিয়াউল আলম প্রধান অতিথির বক্তব্য উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
তিনি আরও বলেন সরকার সিলেট শহরকে ডিজিটাল সিলেট হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। অচিরেই তার পরিপূর্ণতা লাভ করবে এবং ২০২১ সালের মধ্যে তা বাস্তবায়িত হবে। তিনি বলেন মহিলাদের আরও বেশি আইটি সেক্টরে উৎসাহিত করার জন্য সরকার বদ্ধ পরিকর। এন এম জিয়াউল আলম বলেন, সিলেট আইটি সিটি আমাদের দেশে আইটি সেক্টরের উদাহরণ হয়ে থাকবে।
শুক্রবার সন্ধ্যায় সিলেট ষ্টেশন ক্লাবের লিঃ এর মিলনায়তনে প্রথম পর্বে অভিষেক কমিটির চেয়ারম্যান রোটারিয়ান হানিফ মোহাম্মদের সভাপতিত্বে এবং গত বছরের প্রেসিডেন্ট রোটাঃ মাসুদ আহমদ চৌধুরীর পরিচালনায় বিশেষ অথিতির বক্তব্য রাখেন, রোটারি জেলা ৩২৮২ এর চলতি বর্ষের জেলা গর্ভণর লে. কর্লেন (অব.) এম আতাউর রহমান পীর। তিনি তার বক্তব্যে বলেন রোটারি ক্লাবের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় বিশ্বে শান্তি স্থাপন করা। পাশাপাশি তিনি বলেন, এ বছরের আমাদের প্রতিপাদ্য বিষয় রোটারির মেলবন্ধন বিশ্বজুড়ে। সুতরাং একে বাস্তবে রূপ দিতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা, বিশেষ করে রোটারিয়ানরা স্ব-স্ব অবস্থান থেকে সময়ের সদ্ব্যবহার করে এই পৃথিবী থেকে ক্ষুধা, দরিদ্র, অশিক্ষা, কুশিক্ষা রোগ অভাবসহ যাবতীয় অমঙ্গল মুক্ত, সৌহার্দ্যরে স্থান হিসেবে গড়ে তোলা। চলতি বছর অর্থাৎ ২০১৯-২০ এর জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট এর দায়িত্ব নিয়ে পরবর্তীপর্ব পরিচালনার দায়িত্ব অর্পন করা হয় রোটারিয়ান প্রকৌশলী শোয়েব আহমেদ মতিনের কাছে।
এর পূর্বে ২০১৮-১৯ বর্ষের প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান মাসুদ আহমদ চৌধুরী আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, চলতি বছরের নতুন নেতৃত্বে বিগত বছরের জনগণের কল্যাণে যতভালো কাজ তাকে অতিক্রম করে সেবা ও বন্ধুত্বের নতুন মাইল ফলক অর্জন করতে সক্ষম হবে। পাশাপাশি চলতি বছরের দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট তাঁর দায়িত্ব পালনকালে সমাজ হিতৈষী ব্যক্তিদের রোটারি কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করে সমাজ উন্নয়নে কাজ করার ঘোষণা প্রদান করেন। রোটারি ক্লাব অব জলালাবাদ এর অভিষেক অনুষ্ঠানে সাংবাদিক রোটারিয়ান আবু তালেব মুরাদের সম্পাদনায় একটি সুভেনির প্রকাশ করা হয়।
এখানে উল্লেখ্য রোটারিয়ান প্রকৌশলী শোয়েব আহমেদ মতিনকে প্রেসিডেন্ট এবং রোটায়িান মোহাম্মদ হাবিব আল নুরকে সেক্রেটারি নির্বাচিত করে রোটারি ক্লাব জলালাবাদের ২০১৯-২০ ১৫ সদস্যের একটি বোর্ড গঠন করা হয়।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রোটারি ৩২৮২ এর ভাইস প্রেসিডেন্ট গভর্ণর প্রফেসর এনামুল হক, প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট বেলাল আহমদ, সাবেক গভর্ণর রোটারিয়ান সহিদ আহমদ চৌধুরী।
রোটাারিয়ান শফিক বখত কর্তৃক কোরআন থেকে তেলাওয়াতের পর গত বছরের কার্যক্রম স্থির চিত্র প্রদর্শন উপস্থাপন করেন সদ্য বিদায়ী সেক্রেটারি তানভীর আহমদ চৌধুরী, চক্ষু রোগীদের চিকিৎসা সেবায় ভিশন-২৫ এর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন রোটারিয়ান প্রফেসর ডাঃ আব্দুস সালাম।
অভিষেক অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে সিলেটের সালুটিকর এলাকার ট্রাক দূর্ঘটনায় পা হারানো মাদ্রাসা ছাত্র নুর আলীকে কৃত্রিম পা প্রদান করা হয়। এখানে উল্লেখ্য জালালাবাদ ক্লাবের অভিষেক অনুষ্টানে সিলেটের ৪২টি রোটারি ক্লাবের প্রেসিডেন্টরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন



চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বন্ধ ঘোষণা

নুরুল ইসলাম,চুনারুঘাট প্রতিনিধি ঃ- চিকিৎসক...

নলেজ হারবার স্কুল এন্ড কলেজের ২য় বর্ষপূতি

নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর...