সিলেট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন জামিল সভাপতি হোসেন সম্পাদক

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ৩ বছর আগে

সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির ২০১৯ সালের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এতে সভাপতি পদে মো. জামিলুল হক জামিল এবং সাধারণ সম্পাদক পদে হোসেন আহমদ নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ২টায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কর্মকর্তা এডভোকেট জ্যোতির্ময় পুরকায়স্থ (কাঞ্চন) জানান, নির্বাচনে সমিতির ১৩শ’ ৮৬জন ভোটারের মধ্যে ১১শ’ ৬ জন ভোট দিয়েছেন। সভাপতি পদে মো. জামিলুল হক জামিল ৪৫৩ ভোট ও সাধারণ সম্পাদক পদে হোসেন আহমদ ৫৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
সভাপতি পদে এডভোকেট মো. জামিলুল হক জামিল ৪৫৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থীদের মধ্যে এডভোকেট মো. সামছুল হক ৩১১ ভোট, এডভোকেট মো. মিনহাজ উদ্দিন খান ২৬১ ভোট ও এডভোকেট আব্দুল মালিক ৫৫ ভোট পেয়েছেন।

সহ সভাপতি-১ পদে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় মো. মুছলেহ উদ্দিন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।
সহ সভাপতি-২ পদে- এডভোকেট মো. এখলাছুর রহমান ৬১৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এডভোকেট সৈয়দ ফেরদৌস আহমদ পেয়েছেন ৩০৫ ভোট।
সাধারণ সম্পাদক পদে এডভোকেট হোসেন আহমদ ৫৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থীদের মধ্যে এডভোকেট মো. আব্দুল কুদ্দুছ ৩৯২ ভোট ও এডভোকেট গোলাম রাজ্জাক চৌধুরী (জুবের) পেয়েছেন ৯৫ ভোট।
যুগ্ম সম্পাদকের দুটি পদে এডভোকেট শংকর লাল দাস ৪৪৪ ভোট এবং এডভোকেট জোহরা জেসমিন ৪৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থীদের মধ্যে এডভোকেট মো. হুমায়ুন রশীদ (সোয়েব) ৪১৩ ভোট, এডভোকেট জাকিয়া জালাল ২৯৭ ভোট, এডভোকেট মো. সফিকুল ইসলাম ২০৬ ভোট এবং এডভোকেট মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ৯৯ ভোট পেয়েছেন।
সমাজ বিষয়ক সম্পাদক পদে এডভোকেট রাশিদা সাঈদা খানম ৬০৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এডভোকেট মো. তাজ উদ্দিন (মাখন) পেয়েছেন ৪৩৭ ভোট।
সহ সমাজ বিষয়ক সম্পাদক পদে এডভোকেট মো. আলী হায়দার ফারুক ৪৫৮ ভোট পেয়েছেন নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থীদের মধ্যে এডভোকেট মো. হাবিবুর রহমান ২৬৬ ভোট ও এডভোকেট মো. আলা উদ্দিন পেয়েছেন ২৬৪ ভোট।
লাইব্রেরী সম্পাদক পদে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় এডভোকেট এম. আব্দুল করিম আকবরী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
নির্বাচন কর্মকর্তা পদে এডভোকেট আলী মোস্তফা মিশকাতুন-নূর ৬৭০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এডভোকেট মো. আলিম উদ্দিন পেয়েছেন ৩৭৬ ভোট।
সহকারী নির্বাচন কর্মকর্তার ২টি পদে এডভোকেট মোহাম্মদ মখলিছুর রহমান ৬১৬ ভোট ও নেপাল চন্দ্র চন্দ ৫৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থী মো. লিয়াকত আলী পেয়েছেন ২৫৪ ভোট।
সহ-সম্পাদকের ৩টি পদে এডভোকেট মো. সাইফুর রহমান খন্দকার (রানা) ৭০৫ ভোট, এডভোকেট মো. রবিউল ইসলাম ৬০৯ ভোট এবং এডভোকেট মো. আব্দুল্লাহ আল হেলাল ৫৬০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপর প্রার্থীদের মধ্যে এডভোকেট মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ৫৪৬ ভোট এবং এডভোকেট মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর পেয়েছেন ৩৮৮ ভোট।
কার্যনির্বাহী সদস্য পদের ১১টি পদের জন্য ১২ জন সিনিয়র আইনজীবী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৯৩৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী এডভোকেট মো. আজিজুর রহমান ১ম স্থান লাভ করেছেন। বিজয়ী অপর ১০ জনের মধ্যে এডভোকেট দীনা ইয়াসমীন ৯০৯ ভোট, এডভোকেট মো. আব্দুল মান্নান চৌধুরী ৮৭৬ ভোট, মো. আখতার হোসেন খান ৮১৭ ভোট, এডভোকেট এএসএম আব্দুল গফুর ৭৯১ ভোট, এডভোকেট মো. জমিরুল ইসলাম চৌধুরী ৭৮৫ ভোট, এডভোকেট মো. ছয়ফুল হোসেন ৭২৪ ভোট, এডভোকেট গৌর বিকাশ চৌধুরী ৭২১ ভোট, এডভোকেট ড. দিলীপ কুমার দাস চৌধুরী ৭১৮ ভোট, এডভোকেট মোহাম্মদ ফজলুর রব ৭১৬ ভোট এবং এডভোকেট মো. ওবায়দুর রহমান ৭১০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচন পরিচালনা নির্বাচন কর্মকর্তা জ্যোর্তিময় পুরকায়স্থ (কাঞ্চন) এবং সহকারী নির্বাচন কমিশনার পান্না লাল দাস ও মো. মছলিছুর রহমান।এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হয়।


আরও পড়ুন