সিলেটে পুলিশের নকল সীল ব্যবহার, কথিত চিকিৎসক গ্রেফতার

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ০৪ জুলাই, ২০২১     আপডেট : ৫ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটএক্সপ্রেস  সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার কথিত ডাক্তার নিরঞ্জন ধর (সূত্রধর) কে (৫৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার (৩ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার লামা গাভুরটিকি এলাকা থেকে একদল পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

জানা যায়, শনিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট তাহমিনা আক্তারের নেতৃত্বে সাদিপুর ইউনিয়নের চাতলপাড় বাজারে ডা. নিরঞ্জন কুমার ধরের মালিকানাধীন নবীন ক্লিনিকে অভিযান চালানো হয়। এ সময় তার প্রতিষ্ঠানে সরকারি ওষুধ, ইনজেকশানের সিরিঞ্জ এবং ওসমানীনগর থানাসহ একাধিক প্রতিষ্ঠানের নকল সীল পাওয়া যায়। তাছাড়া তার ক্লিনিক থেকে ওসমানীনগর থানা, সিলেট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটসহ একাধিক প্রতিষ্ঠানের সীল ও প্যাড জব্দ করা হয়।

আদালতের সামনে নিরঞ্জন ধর নিজের ডাক্তারি পরিক্ষার সনদ ও ক্লিনিকের লাইসেন্স দেখাতেও ব্যর্থ হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাৎক্ষণিক তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং ওসমানীনগর থানাসহ একাধিক প্রতিষ্ঠানের সীলের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নিতে ওসমানীনগর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

এছাড়া স্থানীয়রা জানান, নানা অপরাধের সাথে এই নিরঞ্জন সূত্রধর জড়িত রয়েছেন। তিনি আওয়ামীলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে নানা অপরাধ করে থাকেন। মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে শালিষ বৈঠক করে টাকা ইনকামও করতেন। একটি বিশেষ গুষ্টির ছায়াতলে বসে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নাম বিক্রি করে সে মানুষের সাথেম প্রতারণা করে বলেও স্থানীয়রা জানান।

সাদিপুর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য স্বপন আহমদ বলেন, ভূয়া ডাক্তার নিরঞ্জন দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে এই এলাকায় নানা অপরাধ করে আসছে। অবশেষে সে গ্রেফতার হওয়ায় আমি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানা পুলিশকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমরা তার সর্বোচ্ছ শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার বলেন, নিরঞ্জন সূত্রধর ডাক্তার পরিচয়ে প্রেসক্রিপশান ব্যবহার করলেও এ সংক্রান্ত কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। ক্লিনিকেরও কোন লাইসেন্স নেই। পাশাপাশি তার প্রতিষ্ঠানে সরকারি ওষুধ ও ব্যবহৃত সিরিঞ্জ পাওয়া গেছে। তাৎক্ষণিক তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে। ওসমানীনগর থানাসহ একাধিক প্রতিষ্ঠানের সীলের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নিতে ওসমানীনগর থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শ্যামল বণিক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওসমানীনগর থানাসহ একাধিক প্রতিষ্ঠানের নকল সীল তৈরিসহ বিভিন্ন অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রবিবার সকালে নিরঞ্জন ধরকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা

        সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: দক্ষিণ সুরমা...

রশিদ আহমদের উপর হামলাকারীদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারের দাবি

        সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি...