সিকৃবির ১ম আন্তর্জাতিক টেকসই মৎস্য চাষ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন উদ্বোধন

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ২৫ আগস্ট, ২০১৯     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আমাদের অর্থনীতির মূল ইঞ্জিন হলো কৃষি। মৎস্যসহ কৃষির টেকসই উন্নয়নই দেশের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করবে। মন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে সরকার ক্ষমতায় এসে ‘সবার জন্য খাদ্য’ নিশ্চিতের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো তা পূরণ করেছে। মৎস্যসহ কৃষি ক্ষেত্রে আমরা বিষ্ময়কর উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে ৩দিনব্যাপী প্রথম টেকসই মৎস্য চাষ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
২৫ আগষ্ট রোববার সকাল ১০টায় বালুচর আমানউল্লাহ কনভেনশন হলে বিশ্বের ১৩ টি দেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে ৩দিনব্যাপী প্রথম টেকসই মৎস্য চাষ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন-২০১৯ অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু, বাংলাদেশ কৃষি গবেষনা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. মো. কবির ইকরামুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য বিভাগের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষনা ইনিষ্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মোহাম্মদ, এফএও এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডগলাস সিমসন, ওয়াল্ড ফিস এর বাংলাদেশ ও সাউথ এশিয়ার কান্ট্রি ডিরেক্টর ক্রিস প্রাইস। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মতিউর রহমান হাওলাদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পূর্ণ গবেষক ও বিজ্ঞানী ইউনিভাসিটি অফ স্টারলাই স্কটল্যান্ড ইউকে এর প্রফেসর ড. ডেভিড সি লিটল।
কৃষি মন্ত্রী বলেন, কৃষি ক্ষেত্রে আমরা ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। সরকার তার নির্বাচনী মেনুফেস্টে কৃষির উন্নয়নের যে ওয়াদা করেছিল তা কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে প্রমানিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৎস্য অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তারিকুল আলম ও শেষে ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের আয়োজন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ডু। সহযোগী অধ্যাপক ড. এমএম মাহবুব আলম ও সহকারী অধ্যাপক তানই দেব এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফিজ মাওলানা মো. হারুন উর রশিদ ও পবিত্র গীতা পাঠ করেন প্রফেসর ড. জিতেন্দ্র নাথ অধিকারী।
জলজ চাষ ও পুষ্টি, জলজ সম্পদ ব্যবস্থাপনা, সমুদ্রবিজ্ঞান ও ব্লু ইকোনোমি, মাছের কৌলিতত্ত্ব, জলজ স্বাস্থ্য, জলবায়ু পরিবর্তন, আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপট, মাৎস্যখাত টেকসই করনের কৌশল ও পরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয় সম্মেলনে স্থান পেয়েছে। মোট ১৪ টি দেশের (বাংলাদেশসহ) ২৯ জন বিদেশী প্রফেসর ও বিজ্ঞানীসহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ ২৫ ও ২৬ আগস্ট ২ দিন ব্যাপী কর্মশালায় অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়াও সিকৃবির বিভিন্ন অনুষদের ডিনগণ, রেজিস্ট্রার, দপ্তর প্রধানসহ শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। ২৭ আগস্ট সুনামগঞ্জের মৎস্য ভান্ডার খ্যাত টাঙ্গুয়ার হাওরে মাঠ পর্যায়ের ভ্রমণের মধ্য দিয়ে সম্মেলন শেষ হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

জাপানের প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে’র পদত্যাগ

        স্বাস্থ্যগত কারণে পদত্যাগ করেছেন জাপানের...

এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট মহানগর কৃষকদলের শোক

        বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার...

স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রাই রোগ থেকে রক্ষা করতে পারে

        স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক...