শয়তান ও মানুষ

,
প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর, ২০২১     আপডেট : ৭ দিন আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোহাম্মদ আব্দুল হক :

মানুষ মানুষ আর মানুষ মিলে ভালোই চলছিলো। তারা সুখ দুখ ভাগাভাগি করে জীবন যাপন করছিলো।
এদিকে শয়তানের চোখ তাদের সুখ দুখ ভাগাভাগি করে চলা সয্য করতে পারছিলো না। কিন্তু ; অপেক্ষা করতে থাকে এবং আড়ালে থেকে তাদের গতিপথ এবং তাদের কর্মকাণ্ড দেখতে থাকে।
একদিন এক মানুষ আর অন্য মানুষের মাঝে কোনো একটি ব্যাপারে দ্বিমত দেখা দিলো। ধীরে ধীরে তাদের মতপার্থক্য আরো দূর্বিষহ হয়ে উঠলো। শয়তান আড়াল থেকে সব দেখতে থাকে আর দুই মানুষের দ্বন্দ্ব দেখে মজা উপভোগ করে।
কিছু দিন পরে এক মানুষের মনে চিন্তা এলো, এভাবে চলতে থাকলে পরিবেশ দিনে দিনে আরও খারাপ হয়ে যাবে। তারচেয়ে অন্য মানুষের সাথে বিষয়টি মিটমাট করে ফেলি।
শয়তান মানুষের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ঢুকে যেতে পারে। তাই এক মানুষের মনে শুভ চিন্তা আসায় সে সয্য করতে পারলো না এবং দ্রুত গতিতে সে ষড়যন্ত্রের নকশা তৈরি করে নিলো। শয়তান অন্য মানুষের খুব কাছের মানুষের কানে কানে বললো, দেখো ওদের যদি মিল ঘটে যায়, তাহলে তোমাদের ক্ষতি হবে বেশি। কাজেই ওদের মিল ঘটতে দিয়ো না। ওরা শয়তানকে জিজ্ঞেস করলো, কি করতে হবে? শয়তান তখন ওদেরকে বললো, তোমরা ওদের কোনো ভাবেই মিল ঘটতে দিয়ো না। সে তখন ওদেরকে দিয়ে অন্য মানুষের কানে মন্দ কথা বলে মিথ্যা কথা বলে কিভাবে দুই মানুষের বিরোধকে আরো বেশি দিন জিইয়ে রাখা যায় সেই বুদ্ধি শিখিয়ে দিলো। এভাবেই শয়তান এ অঞ্চলে তার প্রতিনিধি রেখে গেল। এখন এখানে আসল শয়তান নাই। কিন্তু ; শয়তানের প্রতিনিধি হিসেবে মানুষরূপী শয়তানের উত্তরাধিকারী শয়তান এ অঞ্চলে শয়তানি কর্ম করে যাচ্ছে।
সেজন্যেই, এ অঞ্চলে ভাইয়ে ভাইয়ে শত্রুতা, ভাইয়ে বোনে দ্বন্দ্ব, বাপ ছেলে দ্বন্দ্ব, বাপ মেয়ে দ্বন্দ্ব, চাচা ভাতিজা দ্বন্দ্ব, মামা ভাগ্না মানসিক দূরত্ব কমছে না। তবে, চোখ কান খোলা রাখলে দেখা যায় এবং শোনা যায়, যারা এ সংসারে শয়তানের প্রতিনিধি হিসেবে শয়তানি কর্ম করে দুই মানুষের বিরোধকে জিইয়ে রাখার কাজ করছে, সেই মানুষরূপী শয়তানও ভালো নেই। তারও জমেছে হাজার সমস্যার পাহাড়।
একদিন এক মানুষরূপী শয়তান চিন্তা করলো, নাহ্, আর শয়তানি কর্ম করবো না। এই খবর পাওয়ার সাথে সাথে অন্য মানুষরূপী শয়তানের দল এসে বললো, খবরদার তুই শয়তানি কর্ম ছাড়ার চিন্তা মাথায় আনবি না। ব্যস, শয়তান আর ভালো হতে পারে না।
শয়তানের বাচ্চা শয়তান মানুষকে ভালো হতে দেয় না, মানুষকে মিলে মিশে সুখ দুখ ভাগাভাগি করে থাকতে দেয় না।
এ অঞ্চলে এখন আর আসল শয়তান নাই। কিন্তু ; শয়তানের প্রতিনিধি মানুষরূপী অমানুষ-শয়তান আছে শয়তানি কর্মে লিপ্ত।
তাহলে মানুষের ভালো থাকার উপায় কি?
হুঁশিয়ার হুঁশিয়ার হুঁশিয়ার
এক শয়তান লোকান্তরে বহু শয়তান চারিধারে
শয়তান সংসারে শয়তানি কর্ম করতে করতে মরে।।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

মাধবপুরে সবুজ মাল্টা চাষ করে সফল দিলরুবা খাতুন

        মোঃজুলহাস উদ্দিন রিংকু, মাধবপুর(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতাঃ বাংলাদেশের...

উল্টে পাল্টে

        সেলিম সিকদার উল্টে পাল্টে সিক্সরে...