শেষ হলো শাবির ভর্তি পরীক্ষা কমিউনিটির সম্পৃক্ততা ছিল প্রশংসনীয়

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর, ২০১৯     আপডেট : ৭ মাস আগে  
  

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। আজ শনিবার সকালে ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরে বেলা আড়াইটায় শুরু হয় ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা। জালিয়াতির চেষ্টাকালে ধরা পড়েছেন পাঁচ শিক্ষার্থী।এবার ভর্তি পরীক্ষায় বিভিন্ন ধরনের সহযোগীতা ছিল উল্লেখ করার মতো। কিন্ত বৃষ্টিপাত শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের চরম বিপাকে পড়তে হয়।

জানা গেছে, শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি বেলা আড়াইটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা।

তবে এবার ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতায়াতের জন্য ২০টি বাস, বুষ্টার্স ও সিলেট বাইকিং কমিউনিটি ১৫০টি মোটর সাইকেল বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে শিক্ষার্থীদের সহযোগীতা করে তাছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্টানের স্বেচ্ছাসেবক বিভিন্ন পয়েন্টে দাড়িয়ে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন জায়গার লকেশন গাড়ি ও রিক্সার ভাড়া নির্ধারন করে দিতে দেখা যায়। বাইরে থেকে আসা অভিভাবকরা এসকল কার্যক্রমের ভূয়সি প্রশংসা করতে দেখা যায়।

এদিকে, এবার ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির চেষ্টাকালে ৫ শিক্ষার্থীকে আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তাদের কাছ থেকে সিমকার্ডযুক্ত ক্যালকুলেটর জব্দ করা হয়। এ ডিভাইসের মাধ্যমে তারা বাইরে থেকে উত্তর আদান-প্রদান করছিল।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা জানান, শাবির ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র মঈন উদ্দিন আদর্শ মহিলা কলেজ থেকে একজন, সিলেট সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে একজন, সিলেট পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট থেকে একজন এবং মদিনা মার্কেটস্থ শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে দুই শিক্ষার্থীকে জালিয়াতির ডিজিটাল ডিভাইসসহ আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
শুক্রবার চেম্বারের বাস এর কার্য্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শাবির উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেছিলেন, ‘আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সাথেও জড়িত ছিলাম। কিন্তু এবার সিলেটে শাবির ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে কমিউনিটিকে সম্পৃক্ত করতে পেরেছি এজন্য সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি, হোটেল মালিক,পরিবহন সেক্টর এর কমিটমেন্ট সবার যে সহযোগিতা পাচ্ছি, তাতে আমি অভিভূত। এই কথার প্রতিফলন ঘঠলো বিভিন্ন পর্য্যায়ের সহযোগীতার মাধ্যমে।

শাবি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে,এবার ভর্তি পরীক্ষার জন্য ‘এ’ ও ‘বি’ ইউনিটে আবেদন করেন ৭০ হাজার ৫৪৩ শিক্ষার্থী। ‘এ’ ইউনিটে ৬১৩টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ২৭ হাজার ৩৯ শিক্ষার্থী এবং ‘বি’ ইউনিটের ৯৯০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেন ৪৩ হাজার ৫০৪ শিক্ষার্থী। এর বাইরে সংরক্ষিত আসন আছে একশটি। সবমিলিয়ে আসন সংখ্যা ১৭০৩টি। প্রতি আসনের বিপরীতে ৪২ শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন



আজ পবিত্র শবে বরাত

আজ মঙ্গলবার পবিত্র শবে বরাত।...

সমর থেকে শিক্ষকতায় : একজন জুবায়ের সিদ্দিকী

শামসীর হারুনুর রশীদ: ব্যক্তিসত্তা একসময়...

লাজুকলতা

  মিজানুর রহমান মিজান: তোমায়...