শান্তিময় বিশ্ব গঠনে রোটারিয়ানরা কাজ করছে -আতাউর রহমান পীর

প্রকাশিত : ৩০ জুন, ২০১৯     আপডেট : ৮ মাস আগে  
  

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক :  রোটারী বর্ষ ২০১৯-২০ শুরু উপলক্ষ্যে রোটারি আন্তর্জাতিক জেলা ৩২৮২ এর গভর্ণর প্রিন্সিপাল লে. কর্ণেল (অব.) এম. আতাউর রহমান পীর ১ জুলাই থেকে গভর্নর হিসেবে তাঁর দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন। এ উপলক্ষে প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সম্পাদক ও সংবাদ কর্মীদের সাথে রোটারি জেলা-৩২৮২ এর গভর্ণর লেঃ কর্ণেল (অব.) এম আতাইর রহমান পীর গত রোববার দুপুর ১২ টায় মানিকপীর রোডস্থ রোটারি হাসপাতালে এক মতবিনিময় করেন।

রোটারি ক্লাব অব মেট্রোপলিটন সিলেট আয়োজিত ডিস্ট্রিক্ট প্রেস দ্যা মিট কমিটির চেয়াম্যান ও ডেপুটি ডিস্ট্রিক্ট সেক্রেটারী রোটারিয়ান পিপি কাজী হেলাল পি.এইচ.এফ এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় জেলা ৩২৮২ এর গভর্ণর প্রিন্সিপাল লে. কর্ণেল (অব.) এম. আতাউর রহমান পীর বলেন, রোটারি একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন। মানবতার কল্যাণে এই সংগঠনটি বিগত প্রায় ১১৫ বছর যাবৎ কাজ করছে। প্রতি বছর ১ জুলাই থেকে সারা বিশ্বে রোটারি বর্ষ শুরু হয়। ঐদিন বিশ্বের সকল ক্লাবের সভাপতির পরিবর্তন ঘটে এবং নতুন সভাপতি দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। একই সঙ্গে ঐ দিনে প্রতিটি আন্তর্জাতিক জেলার গভর্ণরবৃন্দও দায়িত্ব গ্রহণ করেন। রোটারি আন্তর্জাতিক জেলা ৩২৮২ এর ১লা জুলাই থেকে গভর্নর হিসেবে আমি দায়িত্বভার গ্রহণ করবো।
এ উপলক্ষে আগামী বছর ব্যাপী কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে অবহিত করতেই এই মতবিনিময় সভার আয়োজন । এই মতবিনিময় সভায় আপনাদের উপস্থিতি আমাদেরকে যেমন অনুপ্রাণিত করেছে, তেমনি আপনাদের লেখনীর মাধ্যমে জনগণকে রোটারি কর্মকান্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত করা সহজতর হবে।

তিনি আরো বলেন রোটারি একটি আন্তর্জাতিক সেবাধর্মী সংগঠন। ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দের ২৩ ফেব্রুয়ারি আমেরিকার শিকাগো নগরীতে এক তরুণ আইনজীবী পল পার্সি হ্যারিস ও তার ৩ বন্ধু তাদের বন্ধন সুদৃঢ়করণ এবং ক্লাব সদস্যদের মধ্যে সৌহার্দ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে মানবতার কল্যাণ সাধনের লক্ষ্যে গঠন করেছিলেন রোটারি ক্লাব। বর্তমানে সারা বিশ্বের ২০০ টিরও অধিক রাষ্ট্র ও ভৌগলিক এলাকায় রোটারি ক্লাবসমূহ তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বিশ্ব জুড়ে রোটারি ক্লাব সমূহের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা হচ্ছে ‘রোটারি আন্তর্জাতিক’ আর এর মূলমন্ত্র হচ্ছে ‘নিঃস্বার্থে অন্যের সেবা’। রোটারির কার্যক্রম পরিচালিত হয় সদস্যদের পারস্পরিক সৌহাদ্য ও সম্প্রীতির মাধ্যমে বিশ্বে শান্তি স্থাপনের জন্যে। রোটারিয়ান হিসেবে আমরা বিশ্বাস করি, যেখানে ক্ষুধা-দারিদ্র, অভাব-অনটন, রোগ-শােক, অশিক্ষা-কুশিক্ষা ইত্যাদি বিদ্যমান থাকে সেখানে শান্তির সুবাতাস বইতে পারে না। তাইতো রোটারি বিগত ১১৪ বছর যাবৎ ‘দ্য রোটারি ফাউন্ডেশন’, ৩৭ হাজারেরও অধিক ক্লাব এবং এর ১২ লক্ষাধিক সদস্যের মাধ্যমে মানবসভ্যতার জন্য এসব অমঙ্গলের বিরুদ্ধে কাজ করছে প্রতিনিয়ত। তাছাড়া বিগত ৩৬ বছর যাবৎ রোটারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠনের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে পোলিও নামক অভিশাপ নির্মূলে। আমরা আশাবাদী অতি শীঘ্রই পৃথিবী থেকে এ ব্যাধিটি রোটারিয়ানদের প্রচেষ্টায় নির্মূল হবে।

গর্বের বিষয় ১৯৪৪ সালে জাতিসংঘের সনদ তৈরীতে ৪৯ জন রোটারিয়ান কাজ করেছেন,এখনও জাতিসংঘে প্রায় ৫০ জন রোটারিয়ান কর্মরত আছেন।
প্রতি বছর পহেলা জুলাই থেকে বিশ্বজুড়ে রোটারির সকল পর্যায়ে নেতৃত্বের পরিবর্তন ঘটে। আমাদের আন্তর্জাতিক জেলা ৩২৮২-ও এর ব্যতিক্রম নয়। গভর্নর হিসেবে আমি, আমার সহযোগিবৃন্দ ও ১৫৩টি ক্লাবের সকল নেতৃবৃন্দ পহেলা জুলাই থেকে নতুন অঙ্গীকার নিয়ে শুরু করতে যাচ্ছি রোটারি বর্ষ ২০১৯-২০২০ এর অভিযাত্রা। ২০১৯-২০২০-এর রোটারি আন্তর্জাতিক প্রেসিডেন্ট মার্ক ডি মেলোনী রোটাবর্ষের জন্য প্রতিপাদ্য ঘোষণা করেছেন, রোটারির মেলবন্ধন বিশ্ব জুড়ে এবং তার অগ্রাধিকার হচ্ছে দীর্ঘস্থায়ী সেবার পরিধি বৃদ্ধি এবং যুব সমাজকে রোটারি কর্মকা-ে আকৃষ্টকরণ। রোটারি আন্তর্জাতিকের প্রেডিন্টের আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমরা আমাদের আন্তর্জাতিক জেলায় সাতটি জোনের প্রতিটিতে একটি করে অ্যাম্বুলেন্স বিতরণ, সিলেট, কুমিল্লা ও চট্টগ্রামে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন ও একটি রোটারি অরফানেজ স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। রোটারি গভর্নর হিসেবে এটা আমার স্বপ্ন। আমার বিশ্বাস চিত্ত ও বিত্তের অধিকারী রোটারিয়ান ও সমাজ দরদি ব্যক্তিদের সহযোগিতায় এ স্বপ্নগুলো বাস্তব রূপ লাভ করবে।
প্রত্যেক রোটারিয়ান হচ্ছেন একেকজন কর্মোদ্যমী ব্যক্তি। আমরা কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী, তবে এসব কাজে আপনাদের ও সমাজের কল্যাণকামী মানুষের সহযোগিতা আমাদের কাম্য। বিশ্বকে সকলের বসবাস উপযোগী একটি শান্তিময় স্থান হিসেবে গড়ে তোলা প্রতি বছরের মত এবারও আমাদের অঙ্গীকার।

মতবিনিময় কালে উপস্থিত ছিলেন ডিজিই বেলাল উদ্দিন আহমদ, ডিস্ট্রিক্ট সেক্রেটারি পিপি নীরেশ চন্দ্র দাশ, পিপি সেলিম খান, পিপি ডাঃ মীর মাহবুবুল আলম, পিপি ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, পিপি হানিফ মোহাম্মদ, পিপি কাউন্সিলর তৌফিক বক্স লিপন, পিপি সাহেদ হোসেন,আব্দুর রহমান, পিপি বদরুজ্জামান, পিপি আব্দুল আহাদ, পিপি আব্দুস সামাদ নজরুল,পিপি ড.এম শহীদুল ইসলাম, পিপি মোশাররফ হোসেন জাহাঙ্গীর, আহসান আহমদ খান প্রমুখ।

আরও পড়ুন



পশুর সাথে কোরবানী হোক মনের পশুত্বের

সুলায়মান আল মাহমুদঃ ঈদুল আযহা...

ডিমের খোসা পরীক্ষা করেই পাওয়া যাবে শক্তিশালী বাচ্চা

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: বাংলাদেশের বিজ্ঞানী...

ব্যাংক অফিসার্স ক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: রমজানের সিয়াম...