শ্বশুরবাড়ির ইফতারি সমাজে প্রচলিত কুসংস্কার

,
প্রকাশিত : ১৭ মে, ২০১৮     আপডেট : ৩ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুলায়মান আল মাহমুদ: ইফতারি ও আম-কাঁঠলি সমাজে প্রচলিত অপসংস্কৃতির কয়েকটির মধ্যে অন্যতম। তাও আবার এইগুলো অনেক ব্যয় বহুল। আমাদের সিলেট ছাড়াও দেশের প্রায় প্রত্যেক জায়গায়ও আহামরি রোগের মত দেখা দিয়েছে এই দুটি অপসংস্কৃতি।

প্রচলিত এই দু’টি অপসংস্কৃতি প্রভাবশালী পরিবারের জন্য খুব একটা চিন্তার বিষয় নয়।বরং অনেক পরিবার এই অপসংস্কৃতিতে আনন্দ পায়। কিন্তু গরীব, অসহায় পরিবারের কর্তাদের জন্য পবিত্র মাহে রমজান এবং জ্যৈষ্ঠ মাস এক অসহনীয় সময় যা ধনী, বিত্তশালীরা কোনো ভাবে বুঝেন না।

পবিত্র মাহে রমজান মাস যেখানে ইবাদাতে মশগুল থাকার কথা সেখানে অসহায় বাবারা চিন্তায় থাকেন কেমন করে ইফতারি দেবে মেয়ের বাড়িতে? না হয় সম্মান যাবে, মেয়ের শশুর বাড়ির মানুষ কি বলবে?অপর দিকে ধনী, বিত্তশালী বাবারা বিদেশ থেকে টাকা এনে ধুমধাম করে প্রায় ২০/৩০ হাজার টাকা খরছ করে মেয়ের সম্মান বাড়ানোর জন্য ইফতারি ও আম-কাঠলি দিয়ে থাকেন অথচ এই অপসংস্কৃতির কারণে অনেক বাবার জন্য বুকফাটা দুঃখ আর কষ্ট হয় তা কেউ কি জানে!

তাই আসুন যুগযুগ ধরে চলে আসা শ্বশুরবাড়ির ইফতারি ও আম-কাঁঠলি নামক কুসংস্কারের বিরুদ্ধে গণসচেতনতা তৈরী করে নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবার গুলোকে শান্তিতে থাকতে দেই। সবাই মিলে যার যার অবস্থান থেকে এই নৈতিক দায়িত্ব পালন করলে সময়ের ব্যবধানে এই কুসংস্কার এক দিন দুর হয়ে যাবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পরবর্তী খবর পড়ুন : আহলান সাহলান মাহে রামাজান

আরও পড়ুন