লোভাছড়া পাথর কোয়ারি রক্ষায় সংশ্লষ্টিদরে সহযোগতিা কামনা

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে  
  

সিলেট এক্সপ্রেস:
কানাইঘাটরে লোভাছড়া পাথর কোয়ারকিে অসাধু ব্যবসায়ীদরে হাত থকেে মুক্ত এবং এর পরবিশে রক্ষায় সংশ্লষ্টিদরে সহযোগতিা কামনা করছেনে সাতবাঁক ইউনয়িন পরষিদরে চয়োরম্যান ইজারাদার মোস্তাক আহমদ পলাশ। গতকাল সোমবার সলিটে প্রসেক্লাবে সংবাদ সম্মলেনে তনিি এ সহযোগতিা কামনা করনে।
লখিতি বক্তব্যে পলাশ বলনে, ২০১৬ সালরে ১৫ র্মাচ র্সবোচ্চ দরদাতা হসিবেে তনিি ৪ কোটি ৩ হাজার ১ শত ১০ টাকা ট্রজোরী চালানরে মাধ্যমে জমা প্রদান করনে। এরপর পাথর মহালরে সীমানা চহ্নিতি ও অবধৈ দখলদারদরে উচ্ছদে চয়েে সচবি খনজি সম্পদ মন্ত্রনালয় ও পরচিালক খনজি সম্পদ উন্নয়ন ব্যুরোকে লখিতি অভযিোগ দনে। কোনো প্রতকিার না পয়েে পুনরায় আবারও জ্বালানী ও খনজি সম্পদ মন্ত্রণালয়রে সচবিরে সাথে দখো করে অনুরোধ করনে। এরই প্রক্ষেতিে সচবি একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কমটিি গঠন করে সলিটে বভিাগীয় কমশিনারকে আবদেনরে বষিয়টি নষ্পিত্তি করার অনুরোধ করনে। কন্তিু এরপরও তনিি কোনো প্রতকিার না পয়েে হাইর্কোটে ক্ষতপিুরণসহ সমুহ টাকা ফরেত প্রদান অথবা বদ্ধিমান সীমানা জটলিতার নষ্পিত্তি করণরে জন্য রটি পটিশিন দাখলি করনে।
তনিি বলনে, পাথর মহালরে সীমানা নর্ধিারণ না হওয়াতে স্থানীয় কতপিয় অসাধু ব্যবসায়ীরা অবধৈ দখলরে মাধ্যমে ইজারার র্শত অমান্য করে পাথর উত্তোলন করে আসছ।ে এখানে কোনটি সরকাররে খাস ভূমি আর কোনটি নো ম্যান্স ল্যান্ড আর কোন অংশটি ব্যক্তি মালকিানাধীন এবং কোন অংশ পাথর মহালরে গজেটেভুক্ত তা সু-স্পষ্ট না হওয়াতে বধৈভাবে তনিি পাথর উত্তোলন করতে পারছনে না। যার ফলে তনিি প্রতদিনি র্আথকি ক্ষতরি সম্মুখনি হচ্ছনে। এছাড়া গজেটেভুক্ত পাথর কোয়াররি বড়গ্রাম মৌজাটি স্থানীয় বজিবিি র্কতৃপক্ষ নো ম্যান্স ল্যান্ড বলে চহ্নিতি করছেনে।
তনিি আরো বলনে, এই এলাকার হাজার হাজার শ্রমকি পাথর উত্তোলন করে জবিীকা নর্বিাহ করে থাকনে। কন্তিু গত কয়কেদনি যাবৎ স্থানীয় কছিু অসাধু ব্যবসায়ীরা ইজারার সকল র্শত লঙ্গন করে পরবিশে বনিষ্টকারী সকল যন্ত্রপাতি স্থাপন করে বড় বড় র্গত করে পাথর উত্তোলন করছ।ে এ কারণে বড় র্দুঘটনা ঘটতে পার।ে গণমাধ্যমে এ বষিয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে স্থানীয় প্রশাসন মাঝে মধ্যে দু’একটি মোবাইল র্কোট পরচিালনা করনে। কন্তিু যার ফলাফল শূন্য। কনেনা উপজলো সদর থকেে প্রায় ১২ কলিোমটিার দুরে এবং অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে সফলভাবে মোবাইল র্কোট পরচিালনা করা যায় না। তনিি বলনে, লোভাছড়া পাথর কোয়ারকিে পরবিশে বনিষ্টকারীদরে হাত থকেে রক্ষায় পরবিশে অধদিপ্তর, উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতাসহ স্থানীয় প্রশাসনকে এগয়িে আসতে তনিি আবদেন দয়িছেনে। তনিি বলনে, র্সাবকি পরস্থিতিি উন্নতরি র্স্বাথে একজন বজ্ঞি ম্যাজস্ট্রিটে এর নর্তেৃত্বে অস্থায়ী ক্যাম্প গঠন করে মোবাইল র্কোট পরচিালনা করার জন্য তনিি জলো প্রশাসক ও কানাইঘাট উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতাকে লখিতিভাবে অনুরোধ করছেনে। সংবাদ সম্মলেনে তনিি লোভাছড়ার ঐতহ্যি ও পরবিশে রক্ষায় সংশ্লষ্টি মহলরে সুদৃষ্টি কামনা করনে।

আরও পড়ুন



এ কেমন সাদা পোশাক

শাহ শরীফ উদ্দিন সাদা পোশাক...

জনগণের রায় মাথা পেতে নেবে কামরান

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: সিলেট সিটি...