লিডিং ইউনিভার্সিটির সিএসই কার্নিভ্যাল সম্পন্ন

প্রকাশিত : 21 October, 2019     আপডেট : ২ মাস আগে  
  

সিলেটের লিডিং ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার ক্লাবের আয়োজনে সিএসই কার্নিভ্যাল-২০১৯ সম্পন্ন হয়েছে।

রবিবার বিকাল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে কার্নিভ্যালের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করেন লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ রাগীব আলী।

দুই দিনব্যাপী এ কার্নিভ্যালে বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ সাউথ, ব্র্র্যাক, আইইউবি, ডেফোডিল, রুয়েট এবং সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ মোট ৫০টি সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যায় এবং কলেজের শিক্ষার্থীরা দলগতভাবে প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট, আইসিটি কুইজ এন্ড টেক সেশন, বাজওয়ার গেইম, হ্যাকাথন, ডিএক্স বল, গেইমিং কন্টেস্ট, অনলাইন ট্রেজার হান্ট প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করেন।

সিএসই বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান মো: আসাদুজ্জামান খানের সার্বিক তত্বাবধানে সিএসই কার্নিভ্যাল-২০১৯ এ সিলেট এবং সিলেটের বাইরে থেকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজের ৭০০ এর অধিক শিক্ষার্থীরা এ কার্নিভ্যালে অংশগ্রহন করেন।

পড়াশোনার পাশাপাশি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ শিক্ষার্থীদের কর্মজীবনে দক্ষতা আনবে উল্লেখ করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, লিডিং ইউনিভার্সিটিতে দক্ষ শিক্ষক নিয়োগসহ সুন্দর পরিবেশে অবকাঠামো গড়েছি যেন শিক্ষার্থীরা ভালোভাবে পড়াশোনা করতে পারে। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অর্জন এবং সমাজ ও দেশের উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্যই আজ লিডিং ইউনিভার্সিটির সুনাম দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে আছে। এটি আজ একটি সফল বিশ্ববিদ্যালয় এবং এ সফলতা এসেছে সবার সম্মিলিত পরিশ্রমের মাধ্যমে।

উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, আজকের এই উল্লাসমুখর পরিবেশই প্রমান করে দেয় সিএসই কার্নিভ্যাল-২০১৯ সফল হয়েছে। প্রতিযোগিতা জীবনের লক্ষে পৌছানোর গতি বাড়ায়। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীরা যে অসাধারণ কৃতিত্ব দেখিয়েছে তা বিশ্বে লিডিং ইউনিভার্সিটির পরিচিতি বাড়াবে এবং তাদের এ কৃতিত্ব লিডিং ইউনিভার্সিটির জন্য সুনাম বয়ে আনবে। তিনি এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য শিক্ষার্থীদের আহবান জানান।

তিনি রাগীব নগরকে শিক্ষানগরী হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, লিডিং ইউনিভার্সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ রাগীব আলীর স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করছে এবং দেশ বিদেশে সুনাম অর্জন করে আসছে। তিনি বিজয়ী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে এই চমৎকার ইভেন্ট আয়োজন করার জন্য সিএসই বিভাগ, কম্পিউটার ক্লাব এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জনান।

ইন্টার ইউনিভার্সিটি প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট (আইইউপিসি) তে ৯১টি টিম এবং প্রতিটি টিমে ৩জন করে অংশগ্রহণ করে এবং এতে ১০টি প্রোগ্রাম সমাধান করে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) টীম নার্কাসিস্টিক-ক্যানিবলস এবং প্রথম রানারআপ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুয়ামফায়ার টিম। ফিফা৫০ এ চ্যাম্পিয়ন লিডিং ইউনিভার্সিটির মাহদী। হ্যাকাথনে ৯টি টীমের মধ্যে বিজয়ী হন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির টীম মেটা ফিজিক্স এবং রানারআপ লিডিং ইউনিভার্সিটির টীম। বাজওয়ার গেইমে লিডিং ইউনিভার্সিটির শাহীন এবং ডিএক্স বলে একই বিশ্ববিদ্যালয়েল শিক্ষার্থী লুবাবা বিজয়ী হন। আইসিটি কুইজ এ বিজয়ী লিডিং ইউনিভার্সিটির আহসান এবং অনলাইন ট্রেজার হান্টেও বিজয়ী লিডি ইউনিভার্সিটি।

লিডিং ইউনিভার্সিটির সিএসই বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী আনজুম শর্নার সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন- আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম. রকিব উদ্দিন এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সিএসই বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান মো: আসাদুজ্জামান খান। এসময় সময় সিএসই বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কম্পিউটার ক্লাবের সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন



বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি প্রদান করলো মহানগর যুবলীগ

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: সোবহানীঘাটস্থ সিলেট...

সদর হাসপাতাল ২৫০ শয্যায় উন্নীত করা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও...