লিডিং ইউনিভার্সিটিতে রিসার্চ এ্যাওয়ার্ড প্রদান

প্রকাশিত : ২৫ অক্টোবর, ২০১৯     আপডেট : ৩ মাস আগে  
  

গবেষণাকে আরও এগিয়ে নিতে সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি রিসার্চ এ্যাওয়ার্ড চালু করেছে। শিক্ষকদেরকে গবেষণায় আরও সম্পৃক্ত করতে তাদের পূর্ববর্তী বছরে পিয়ার রিভিউ জার্নালে প্রকাশিত প্রবন্ধের মধ্যে থেকে বাছাই কমিটি দ্বারা শ্রেষ্ঠ প্রবন্ধ নির্বাচিত করে প্রতি বছর লিডিং ইউনিভার্সির রিসার্চ সেন্টার এ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে থাকে। অনুষদভিত্তিক দুটি ক্যাটাগোরিতে এ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। বিজ্ঞান অনুষদ থেকে একটি এবং ব্যবসায় প্রশাসন, সামাজিক বিজ্ঞান এবং কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদ থেকে একটি করে প্রতিবছর দু’জন লিডিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষককে এ এ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়।

লিডিং ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ২৪ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যালারী-০১ এ “ড. সৈয়দ রাগীব আলী রিসার্চ এ্যাওয়ার্ড সিরেমনি-২০১৯” অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে রিসার্চ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, দেশ ও জাতির উন্নয়নে গবেষণার গুরুত্ব অপরিসীম। একটি বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিতে গবেষণার বিকল্প নেই। তাই এ ইউনিভার্সিটির সাথে জড়িত সবাইকে গবেষণায় মনোযোগী হতে হবে। তিনি আরও বলেন, গবেষণা কর্মে উৎসাহিত করার জন্যে লিডিং ইউনিভার্সিটি রিসার্চ সেন্টার খোলা হয়েছে। এ সেন্টার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে গবেষণা কার্যক্রম গতিশীল করতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করে আসছে।

সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, গবেষণা একজন শিক্ষককে দক্ষ করে তুলে, তাই শিক্ষকদেরকে গবেষণায় উৎসাহ দিতে এ এ্যাওয়ার্ড খুবই কার্যকর ভূমিকা রাখবে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে লিডিং ইউনিভার্সিটিকে উন্নীত করতে এ এ্যাওয়ার্ড একটি মাইলস্টোন হয়ে থাকবে। তিনি উল্লেখ করেন, লিডিং ইউনিভার্সিটিতে গবেষণা প্রকল্পে পর্যাপ্ত বাজেট রয়েছে। প্রতিবছরই এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা এ গবেষনা প্রকল্পে বরাদ্বকৃত অর্থের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে গবেষনা করে রিপোর্ট প্রদান করে থাকেন। তিনি শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদেরকে গবেষণায় কঠোর পরিশ্রমী হবার পরামর্শও প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে ‘ড. সৈয়দ রাগীব আলী রিসার্চ এ্যাওয়ার্ড’ পান ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ওয়াহিদুজ্জামান খান, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারি অধ্যাপক শেখ হেফজুল বারী, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক সাবিয়া আক্তার ভূঁইয়া এবং ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক মো. জিয়াউর রহমান। অনুভূতি ব্যক্ত করে এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত শিক্ষকরা বলেন, এ ধরনের এ্যাওয়ার্ড অন্যান্য শিক্ষকদেরকেও অনুপ্রেরণা দিবে। তারা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে গবেষণাক্ষেত্রে এ ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করায় কৃতজ্ঞতা জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বোর্ড অব ট্র্রাস্টিজের সদস্য সৈয়দ আব্দুল হাই। স্বাগত বক্তব্য দেন লিডিং ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর ডিরেক্টর ও আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম. রকিব উদ্দিন। আরও বক্তব্য রাখেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর মো.সাম্স-উল আলম, কলা ও আধুনিতক ভাষা অনুষদের ডীন প্রফেসর নাসির উদ্দিন আহমেদ, বোর্ড অব ট্রাস্টিজেরে সেক্রেটারী মেজর (অব.) শায়েখুল হক চৌধুরী, রেজিস্ট্রার মেজর (অব.) মো. শাহ আলম, পিএসসি। এতে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মোস্তাক আহমাদ দীন, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মো. রাশেদুল আলম, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক তাসনিয়া মিজান চৌধুরী।

আরও পড়ুন



হাকালুকিতে ৫ লাখ টাকার অবৈধ জাল ধ্বংস

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় টাস্কফোর্সের অভিযানে ৫...

১লা বৈশাখ অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রতীক

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: বাংলা নববর্ষ...