যুক্তরাস্ট্রে করোনা যুদ্বে একদিনে ৪৩ হাজার সুস্থ হওয়ার রেকর্ড

প্রকাশিত : ২৫ মে, ২০২০     আপডেট : ১ মাস আগে

এমদাদ চৌধুরী দীপু(২৪মে,২০২০ইং নিউইয়র্ক)
যুক্তরাস্ট্রে একদিনে ৪৩ হাজার মানুষ সুস্থ হয়েছেন শনিবার। এটি একদিনে সর্বোচ্চ সুস্থ হওয়ার রেবর্ড।এর আগে ১২ মে একদিনে সুস্থ হয়েছিলেন ৩৪ হাজার। যুক্তরাস্ট্রে করোনা ভাইরাস মধ্যমার্চ থেকে নাজুক পরিস্থিতিতে চলে আসে,এর পর সুস্থ হওয়ার চিত্র ছিল খুবই হতাশাজনক। গত ১২এপ্রিল মোট সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ৩২ হাজারের একটু উপরে,এর পর ২২এপ্রিলে সেটি পৌছায় ৮৪হাজারে। এখন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা। মোট সুস্থ ৪লাখ ৪৬হাজার।
ওয়াল্ডোমেটারের তথ্য অনুযায়ী যুক্তরাস্ট্রে একদিনে শনাক্ত হয়েছেন আরো ২১ হাজার,মোট সংখ্যা এখন ১৬লাখ ৬৭ হাজার প্রায়। মোট মৃত্যু ৯৮হাজার ৯৮৩জন,একদিনে মৃত্যু ১০৩৬জন। যুক্তরাস্ট্রে করোনা উপাখ্যান হাসি-কান্নার নানা নাটকীয়তায় ভরপুর। আগামীকাল রোববার আনন্দঘন ঈদ কারো জন্য শোকের কারন। এখনো কেউ শনাক্ত্ হচ্ছেন কেউ মারা যাচ্ছেন। এদিকে যারা স্বজনকে ফিরে পাচ্ছেন তাদের জন্য এই ঈদে বাড়তি আনন্দ এবং আবেগের।
কান্না থামছেনা যুক্তরাস্ট্রবাসীর। কান্না থামছেনা বাংলাদেশীদের। ২৬৪টি জন বাংলাদেশী হারিয়ে গেছেন। শনিবার আরেক বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম হাজী মুজিব। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ইলাশপুরের বাসিন্দা নিউইয়র্ক এর কুইন্সে ইস্টএলমাস্ট এর ২২ এভিনিউ,৯৮ স্ট্রীটে বসবাস করতেন। ফেঞ্চুগঞ্জ ওরগানাইজেশন ইউএসএর প্রচার সম্পাদক নিহত হাজী মুজিবের ছেলে নুরুজ্জামান লিপন জানান তার বাবা করোনায় আক্রান্ত হলে গত ৩রা মে তাকে ফ্লাশিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়,লিপন জানান তার বাবা উচ্চ ডায়াবেটিস রোগে ভোগছিলেন। ১৯৮৭সালে হাজী মুজিব যুক্রাস্ট্রে আসেন এবং স্থায়ীভাবে বসবাস করছিলেন।মৃত্যুকালে হাজী মুজিব স্ত্রী,৪ ছেলে ২ মেয়েসহ স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।
ওয়াল্ডোমেটারের তথ্য অনুযায়ী নিউইয়র্কে মোট শনাক্ত প্রায় ৩লাখ ৬০ হাজার,মোট মৃত্যু ২৯ হাজার ১১২জন,২৪ঘন্টায় শনাক্ত ২০০০জন,মৃত্যু ১১১জন। শুধু নিউইয়র্ক নয় নিউজার্সী,ম্যাসাচুসেট,এলিনইস,ক্যালিফোর্নিয়া,প্যানসেলভেনিয়া,টেক্সাস,মিশিগানে শনাক্ত এবং মৃত্যু অব্যাহত রয়েছে,নানা সংখ্যায় মৃত্যু ঘটছে অনেকগুলো রাজ্যে।
যুক্তরাস্ট্রে রোববার প্রথম প্রহরে এই প্রতিবেদন যখন লিখছি তখন একটি হতাশার খবর হচ্ছে করোনার কারনে নিউইয়র্কে অন্তত একলাখ ক্ষুদ্রব্যবসায়ী চিরতরে হারিয়ে যাবেন,এই তথ্য জানিয়েছেন নিউইয়র্ক গভর্নর কোমো। এদিকে করোনা পরিস্থিতি স্থায়ী রুপ নেয়ায় যুক্তরাস্ট্রে বাড়ির মালিকরা বিপাকে পড়েছেন। এক পরিসংখ্যানে জানা গেছে ১৬ লাখ বাড়ির মালিক তাদের মরগেজ প্রদান করতে পারছেন না। তারা অভিযোগ করেছেন ভাড়াটিয়াদের ভাড়া আদায় করতে না পারায় মরগেজ দিতে পারছেন না তারা।

পরবর্তী খবর পড়ুন : হ্যালো শিকাগো

আরও পড়ুন

শেওলা ইউনিয়ন যুব জমিয়তের কমিটি গঠন

যুব জমিয়ত বাংলাদেশ সিলেটের বিয়ানীবাজার...

ধ্বংসের মুখে সুরমা নদী

ইফতেখার শামীম নদীমাতৃক বাংলাদেশের অন্যতম...