যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রীকে রাজাকারের সহোদর ও শিবিরকর্মির অন্যরকম শুভেচ্ছা

,
প্রকাশিত : ০১ ডিসেম্বর, ২০২১     আপডেট : ২ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মিলনমেলা নামে খ্যাত ঐতিহ্যবাহী ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোসিয়েশনস ইন নর্থ আমেরিকার (ফোবানা)’র ৩৫তম সম্মেলনে যোগ দিতে আসা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ক. ম. মোজাম্মেল হককে রাজাকারের সহোদর ও সাবেক শিবিরকর্মি কর্তৃক ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন প্রবাসী বীর মুক্তিযোদ্ধারা। তারা ফোবানা কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস।
যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারিল্যান্ডে তিনদিনব্যাপী ‘ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোসিয়েশন ইন নর্থ আমেরিকা’ (ফোবানা) সম্মেলন গত শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) শুক্রবার শুরু হওয়া ফোবানা সম্মেলন পুরোপুরি ব্যর্থতার মধ্য দিয়ে রবিবার মধ্যরাতে (২৮ নভেম্বর) শেষ হয়েছে। ৩৫তম ফোবানা সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক ওয়াশিংটন ডিসিতে পৌঁছালে ফোবানা সম্মেলনের চেয়ারম্যান জাকারিয়া চৌধুরী, আহবায়ক জি আই রাসেল ও সদস্য সচিব শিব্বির আহমেদ তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এদের মধ্যে ফোবানা সম্মেলনের চেয়ারম্যান ও কথিত আওয়ামীলীগ নেতা জাকারিয়া চৌধুরী ফেনীর কুখ্যাত রাজাকার বাহাদুর ব্যাপারীর সহোদর এবং সদস্য সচিব শিব্বির আহমেদ কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার সাবেক শিবিরকর্মি ছিলেন। তিনি বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের মেট্রো ওয়াশিংটনের কথিত আওয়ামীলীগের নেতা। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ক. ম. মোজাম্মেল হকের অজান্তেই কুখ্যাত রাজাকারের সহোদর জাকারিয়া চৌধুরী ও সদস্য সচিব সাবেক শিবিরকর্মি শিব্বির আহমেদ কর্তৃক ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর ঘটনায় মেট্রো ওয়াশিংটন (ওয়াশিংটন ডিসি, ভার্জিনিয়া ও ম্যারিল্যান্ড) এলাকাসহ যুক্তরাষ্ট্রস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।
জানা যায়, ২০২০ সালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন যুক্তরাষ্ট্র সফরে এলে সম্মেলনের চেয়ারম্যান জাকারিয়া চৌধুরী, আহবায়ক জি আই রাসেল ও সদস্য সচিব শিব্বির আহমেদ তাঁর সাথে দেখা করে ফোবানা সম্মেলনের প্রধান অতিথি করার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রন জানান। এই ত্রিরত্ন গত একমাস আগে ঢাকায় গিয়ে আদম আমদানি করার ব্যাপক চেষ্টা চালায়। এ সময় সম্মেলনের চেয়ারম্যান ফেনীর কুখ্যাত রাজাকারের সহোদর জাকারিয়া চৌধুরী বিষয়কমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ক. ম. মোজাম্মেল হকের সাথে সখ্যতা গড়ার চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে তারা বিষয়কমন্ত্রীকে ফোবানা সম্মেলনের প্রধান অতিথি করার সিদ্ধান্ত নেয়। এর কারন হিসেবে জানা যায় সম্মেলনের পর দেশে গিয়ে ফেনীর কুখ্যাত রাজাকার বাহাদুর ব্যাপারীর নাম রাজাকারের তালিকা থেকে মুছে ফেলার জন্য তিনি চেষ্টা চালাবেন। কিন্তু এ বিষয়টি কেউই মন্ত্রীর কর্ণগোচরে এখনও দেয়নি।
ভার্জিনিয়া প্রবাসী বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক হারুণ চৌধুরী জানান, রাজাকারের সহোদর ও সাবেক শিবিরকর্মি কর্তৃক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী্কে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধারা ভীষনভাবে মর্মাহত লজ্জিত। এর চেয়ে লজ্জার আর কিছুই নেই। তিনি বলেন, ৩৫তম ফোবানা সম্মেলনে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আসছেন কিন্তু ফোবানা কর্তৃপক্ষ স্থানীয় মেট্রো ওয়াশিংটন (ওয়াশিংটন ডিসি, ভার্জিনিয়া ও ম্যারিল্যান্ড) এলাকার মুক্তিযোদ্ধা্রা তা জানেন না। ফোবানার কেউ তাদেরকে বিষয়টি জানাননি। নিউ ইয়র্ক থেকে ভাড়া করে আনা কিছু ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার গলায় উত্তরীয় পরিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী। মন্ত্রীকে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের ব্যাপারে কোন ধারনা বা তথ্য জানাননি ফোবানায় সংযুক্ত কুখ্যাত রাজাকারের সহোদর জাকারিয়া চৌধুরী ও সাবেক শিবিরকর্মি সদস্য সচিব শিব্বির আহমেদ।
যুক্তরাষ্ট্রস্থ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী জানান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক ওয়াশিংটন ডিসিতে আগমনের খবর জানতে পেরেছি কিন্তু ফোবানা সংশ্লিষ্টরা কেউ মুক্তিযোদ্ধা সংসদকে আনুষ্ঠানিভাবে অবহিত করেননি। এ কারনেই সেখানে সংসদের কোন মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত হননি। ফোবানায় মন্ত্রীর হাত থেকে উত্তরীয়সহ পুরুস্কার গ্রহণ রহিম উল্ল্যাহ ওরফে রাশেদসহ অনেকেই ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা বলে উল্লেখ করেন তিনি।
উল্লেখ্য, ৩৫তম ফোবানার সদস্য সচিব নির্বাচিত হয়েছিলেন সাবেক শিবিরকর্মি শিব্বির আহমেদ। তিনি কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার সাবেক শিবিরকর্মি হয়েও সুকৌশলে যুক্তরাষ্ট্রের মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের যোগ দেন। আশির দশকে লাকসামের নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজে পড়ার সময় ছাত্র শিবিরের প্রথম সারির সক্রিয় নেতা ছিলেন বর্তমান মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগে সিনিয়র সহ-সভাপতি শিব্বির আহমেদ ওরফে অরপি আহমেদ (ছদ্মনাম)। বর্তমানে তিনি ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের আলেকজান্দ্রিয়ার বাসিন্দা। তিনি মেট্রো ওয়াশিংটন (ওয়াশিংটন ডিসি, ভার্জিনিয়া ও ম্যারিল্যান্ড) এলাকায় কখনো লেখক কখনো সাংবাদিক, কখনো গীতিকার এবং কখনো সুরকারের পরিচয় দিয়ে থাকেন।
গত ২৬ সেপ্টেম্বর দৈনিক সরেজমিন বার্তায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় বসেও বিভিন্নভাবে দেশের বিএনপিসহ জামাত শিবিরের পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছেন শিব্বির। শিবিরের সাবেক সক্রিয় সদস্য শিব্বির আহমেদ যুক্তরাষ্ট্রে এসে সুকৌশলে আওয়ামীলীগের অনুপ্রবেশ করলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি নিজেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের ধারক-বাহক হিসেবে প্রকাশ করেন। তিনি আওয়ামী পরিবারের সন্তান হলেও দেশে আওয়ামী রাজনীতির সাথে তার কোন সম্পৃক্ততা নেই বা ছিল না। প্রবাস থেকে বিএনপিসহ জামাত শিবিরের পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রে বিভিন্ন সংগঠনে প্রবেশ করে কোন্দল সৃষ্টি করে তা ভাঙার চেষ্টা করেন। এ ব্যাপারে ভার্জিনিয়ার সুপরিচিত ‘ফ্রেন্ডস অ্যান্ড ফ্যামিলি’ নামের একটি সংগঠনের কথা উল্লেখ করা যেতে পারে। ২০০৯ সালের রেজিষ্ট্রেশনকৃত এ সংগঠনে তিনি প্রবেশের পর কোন্দল লাগিয়ে সংগঠন থেকে বের হয়ে যান। ২০১৭ সালে প্রায় একই নামে আরেকটি সংগঠন গোপনে রেজিষ্ট্রেশন করেন। যা ২০১৮ সালে প্রকাশ পায়। মেট্রো ওয়াশিংটন এলাকায় একই নামে আরও ৪/৫টি সংগঠন রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও অত্র এলাকার আওয়ামীলীগের প্রবেশের পর নানাভাবে দলের ভেতরে কোন্দল সৃষ্টি করে দ্বিখন্ডিত করেছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগের কমিটি। তিনি সুকৌশলে মেট্রো ওয়াশিংটন (ওয়াশিংটন ডিসি, ভার্জিনিয়া ও ম্যারিল্যান্ড) একটি কমিটিতে সিনিয়র সহ-সভাপতির পদও বাগিয়েছেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

সিলেট কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে মতবিনিময়

        সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক প্রবাসী কল্যাণ...

শোকের মাস আগস্ট শুরু

        শুরু হলো বাঙালির শোকের মাস...

‘চম্পূমঞ্জরী’ কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠান

        মো. আব্দুল বাছিত: বাংলা সাহিত্যের...