মৌলভীবাজারে ৮ বছরের স্কুল ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন ধর্ষক আটক

প্রকাশিত : ০৭ মে, ২০২০     আপডেট : ২ মাস আগে

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি।।
মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের এক সিএনজির ড্রাইভার কর্তৃক ৮ বছরের এক স্কুল ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতিত শিশুটিকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে তার বাবা বুধবার (৬ মে) বাদী হয়ে ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে ধর্ষককে আটক করে। আটককৃত ধর্ষকের নাম মোঃ জুবায়ের আহমদ (২৭) । তার পিতার নাম আব্দুল করিম । সে খলিলপুর ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামে।
শিশুটির বাবা জানান ,গত সোমবার (৪ মে) সকালে সিএনজি ড্রাইভার জুবায়ের প্রতিদিনের মত নিজের সিএনজি বাড়ি থেকে বের করে শহরে যাবার পথে তার ৮ বছরের শিশু কন্যা এবং তার সাথে এলাকার আরও ২জন সহপাঠী ছাত্রকে নিয়ে মক্তবে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে সিএনজিতে তুলে নেয়। কিছুর যাবার পর অন্য রাস্তায় তাকে পৌছে দেয়ার কথা বলে একটি স্কুলের পাশে সিএনজি রেখে অন্য দু‘জনকে গাড়িতে বসিয়ে মেয়েটিকে নিয়ে স্কুলের বাথরুমে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করে। মেয়েটির সাথেই তার ভাই ছিল তাদের বয়েস ১০/১২ হবে। দীর্ঘ সময় পর তারা ফিরে না আসায় মেয়েটির ভাই স্কুলের দিকে খুজতে যায়। সেখানে তারা দেখতে পায় ড্রাইভার জুবায়ের তাদের বোনকে যৌন নির্যাতন করছে।
বিষয়টি দেখে ফেলায় জুবায়ের তাদের কে হুমকি দেয় যদি বাড়িতে গিয়ে এই বিষয়ে কোন কিছু বলে তাহলে তদেরকে মেরে ফেলবে। তারা কাউকে কিছু না বলার শর্তে বাড়িতে ফিরে আসে। পরে এই বিষয়টি মা ও বাবাকে বললে তারা গ্রামের সাবেক মেম্বারকে জানান। পরে মেয়েটির সমস্যা হলে তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার দুপরে মেয়ে বাবা পুলিশকে বিষয়টি জানালে মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি আলমগীর হোসেন নিজেই ঘটনাটি তদন্ত করে ঘটনাটির সত্যতার প্রমাণ পান এবং ধর্ষককে আটক করেন।
ওসি আলমগীর হোসেন জানান, আসামী নিজে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। তাকে গ্রেপ্তার করে সদর থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ধর্ষকের বিরুদ্ধে শিশু নির্যাতন আইনে থানা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন