মুক্তিযোদ্ধাদের মূল্যায়নও আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই হয়

প্রকাশিত : ৩০ জুন, ২০১৯     আপডেট : ৯ মাস আগে  
  

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক :  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, যখনই শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় থাকে তখনই মুক্তিযোদ্ধারা ভালো থাকে। মুক্তিযোদ্ধাদের মূল্যায়নও আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই হয়। মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানোসহ তাদের সন্তান ও নাতি-নাতনিদের চাকরি বিশেষ কোটা ,পড়ালেখার বিশেষ সুবিধা দেয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধকে বাংলাদেশের ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । তিনি বলেন, নিজের জীবনকে তুচ্ছজ্ঞান করে মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদান রেখে মুক্তিযোদ্ধারা আমাদেরকে একটি দেশ ও একটি লাল-সবুজ পতাকা উপহার দিয়েছেন। এ জন্য জাতির বীর সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক মর্যাদায় পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করতে এবং তাদের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি দিতে আমাদের সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি গত  শনিবার রাতে দক্ষিণ সুরমাস্থ শিলামস্থ এলাকায় মুক্তিযোদ্ধার চেতনা বাস্তাবায়ন-ই আমাদের অঙ্গীতার, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ড দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কমিটি গঠন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য উপরুক্ত কথাগুলো বলেন। বিশিষ্ট আওয়ামীলীগ নেতা মখরুম আলীর সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ড সিলেট জেলার আহবায়ক মো: জিল্লুর রহমান জিল্লুর পরিচালনায়,

প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখনে কমান্ডার সিলেট জেলা ইউনিট কমান্ড শ্রী সুব্রত চক্রবর্ত্তী জুয়েল বলেন,অবশেষে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ আর ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে আমাদের লাল-সবুজের বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করি। আজ তোমারা বাংলা ভাষায় পেয়েছ এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুবকমান্ড সিলেট জেলা সকল সদস্যকে আমি বলবো তোমরা যতদিন বেচে তাকবে এই পৃথিবীতে ততদিন সকল মুক্তিযুদ্ধাকে স্মরণ করবে। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুবকমান্ডের কোন রাজাকারের সন্তানের স্থান নেই এবং জামায়াত-বিএনপির কোন সন্তান যেন যুবকমান্ডে প্রবেশ করতে না পারে সি দিখে খিয়াল রাখতে হবে। পরিশেষে তিনি বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুবকমান্ড সিলেট দক্ষিণ সুরমা উপজেলার আহবায়ক মফিক মিয়া ও সদস্য সচিব প্রীতম কুমার পালকে সহ ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন নাম ঘোষনা করেন।
বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত বক্তব্য রাখেন মহনাগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, কমান্ডার দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কমান্ড কুটি মিয়া, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সিলেট জেলা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মহসিন কামরান, নির্বাহী সদস্য বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ড শ্রী মনোজ কপালী মিন্টু,অন্যন্যদের মাঝে উপস্থিত বক্তব্য রাখেন,আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুল করিম হেলাল, দক্ষিণ সুরমান উপজেলার ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, আওয়ামীলীগ নেতা আছন্দর আলী, আনা মিয়া, গোপাল চন্দ্র, অনাত চন্দ্র দাস,জেলা যুবলীগ নেতা সজিব আহমদ, শেখ রাসেল পরিষদ দক্ষিণ সুরমা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত গোস্বামী, জেলা যুবলীগ নেতা মাজেদুল ইসলাম সুমন, সিলেট সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যুবকমান্ড এর আহবায়ক শাইস্তা তালুকদার, যুগ্ম আহবায়ক রুহুল আমিন শাওন, আব্দুল আহাদ, সুমন মিয়া, সালমান মিয়া, হোসেন মিয়া, নুরুল ইসলাম, চুনু আলী, ছত্তার মিয়া, জুবায়ের আহমদ জালাল উদ্দিন মুন্না প্রমুখ।

আরও পড়ুন



আন্ত:জেলা বির্তক প্রতিযোগিতায় জয়নুল হুসেন চ্যাম্পিয়ান

বির্তক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ান সাবেক বিজিপিএসসিয়ান...

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ সিলেট মহানগর কমিটির অনুমোদন

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ সিলেট মহানগর কমিটির...