মাধবপুরে এক নারীর মৃত্যু নিয়ে ধোঁয়াশা; এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া

,
প্রকাশিত : ২১ জুন, ২০২০     আপডেট : ১০ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আবুল হোসেন সবুজ মাধবপুর হবিগঞ্জ হবিগঞ্জের মাধবপুরে এক নারী মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। কি কারণে বা কি করে তার মৃত্যু হয়েছে তা নিয়ে পাওয়া গেছে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য। কেউ দাবি করছেন বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তার মৃত্যু হয়েছে আর কেউ বলছে পরকিয়ার কারণে সে আত্মহত্যা করেছে। তবে রহস্যজনক কারণে নিরব রয়েছে ওই নারীর পরিবার।

নিহত তানিয়া আক্তার (২৭) পাবনা জেলার আটঘরিয়া উপজেলার ষাটগাছা গ্রামের শফিক মিয়ার স্ত্রী। শফিক মিয়া মাধবপুর উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের তাজপুর গ্রামে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে বাসা ভাড়া থাকতেন। তিনি মাধবপুর উপজেলার একটি সিরামিক্স কোম্পানীতে কর্মকত ছিলেন।

জানা যায়, গত ১৭ জুন ঘরের ভেতরে তানিয়ার লাশ দেখতে পান স্থানীয়রা। পরে তরিগড়ি করে নিহতের স্বামী, স্থানীয় ময়মুরব্বি ও বাড়িওয়ালা মিলে লাশ পাবনায় পাঠিয়ে দেন। এ ঘটনায় এলাকাবাসীদের কেউ কেউ বলছেন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে, আবার কেউ কেউ বলছেন পরকিয়ার কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

সূত্র জানায়, সেখানে বসবাস করাকালিন সময়ে স্বামীর অনুপস্থিতিতে একই গ্রামের জনৈক যুবকের সাথে পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন তিনি। এ নিয়ে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে ওই নারী আত্মহত্যা করেন। তার মৃত্যুর পর বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেন নিহতের স্বামী ও পরকিয়া প্রেমিকসহ তার পরিবার। একই সাথে বাড়িওয়ালা, স্থানীয় ইউপি সদস্য ও মুরব্বিদের ম্যানেজ করে নেয়া হয়।

এ ব্যাপারে নিহতের স্বামী শফিক মিয়ার সাথে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে নিহতের বাবা মোঃ বাবুল মিয়া বলেন, আমাদের কাছে মেয়ের মৃত্যুর খবর আসে। সাথে সাথে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ নিয়ে আসি। তবে কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা জানতে পারিনি। তবে অনেকে বলছেন সে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন।
আবুল হোসেন সবুজ মাধবপুর হবিগঞ্জ


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

স্বেচ্ছাসেবক দলের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ

         সিলেট নগরীর বন্দরবাজার এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক...

মাদ্রিদে বাংলাদেশ এসোসিয়েশনে সভাপতি সংবর্ধিত

         কবির আল মাহমুদ, স্পেন :বাংলাদেশ...