মতবিনিময় সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী – সরকারের হাতে উন্নয়নের জন্য টাকার কোনো অভাব নেই’

প্রকাশিত : 19 October, 2019     আপডেট : ২ মাস আগে  
  

==
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, সরকারের হাতে উন্নয়নের জন্য টাকার কোনো অভাব নেই। জনকল্যাণমুখী প্রকল্প প্রস্তুত করে নিয়ে আসুন তা বাস্তবায়ন করা হবে। ‘সরকার উন্মুখ হয়ে, রেডি হয়ে বসে আছে। সরকারকে বেশি তদবির করার প্রয়োজন হবে না। ভালো প্রকল্প নিয়ে আসবেন, বুঝিয়ে বলবেন, আপনাদের প্রকল্প অতিদ্রুত পাস করা হবে। ‘শর্ত শুধু একটাই, এই টাকাকে যথাযথভাবে ব্যয় করতে হবে। প্রতিটি টাকার হিসাব সংরক্ষণ করতে হবে। অডিট নিরীক্ষা করতে হবে। এটা জনগণের টাকা, সার্বিকভাবে এটা মাথায় রাখতে হবে। এই টাকার মালিক বাংলাদেশের সকল মানুষ। এই টাকার হিসাব বাংলাদেশের মানুষের সামনে দিতে হবে’- যোগ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

তিনি শনিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাদের সাথে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গরিবের বন্ধু। তিনি সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী ও হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করছেন। তার জীবনের স্বপ্ন বাংলাদেশকে কিভাবে একটি উন্নত একটি আধুনিক দেশে গড়তে দিন-রাত পরিশ্রম করছেন। এরই মধ্যে সর্বত্র ধারনা সৃস্টি হয়েছে যে তিনি পারবেন। ইতিমধ্যে গত ১০/১১ বছরে তিনি বাংলাদেশের অব্যন্তরে যে উন্নয়ন করেছেন তা দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করার জন্য আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। দুর্নীতির প্রতি সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি করবো না, কাউকে করতেও দেয়া হবে না। এই নীতিতে সরকার কাজ করছে।

২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই আধুনিক ট্রাক টার্মিনাল উদ্বোধন সিলেটের দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল। আজ এ দাবি পূর্ণ হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী নগরীতে যে উন্নয়ন কর্মকান্ড হচ্ছে তার জন্য মেয়র আরিফুল হক চৌধূরীর প্রশংসা করেন। বলেন, কাজ পাগল মানুলষদের প্রধানমন্ত্রী ভালবাসেন। তিনি নগরীর উন্নয়নে নীজেদের মূল্যবান জমি জনস্বার্থে ছেড়ে দেয়ায় নগরবাসীকেও ধন্যবাদ দেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

পরে মন্ত্রীকে নিয়ে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নগরীতে চলমান উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন।

পৃথক এসব অনুষ্ঠানে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সরকারের যুগ্ম সচিব বিধায়ক রায় চৌধুরী, সচিব মোহাম্মদ বদরুল হক, প্যানেল মেয়র-১ মোহাম্মদ তৌফিক বকস, প্যানেল মেয়র-২ এডভোকেট রোকশানা বেগম শাহনাজ, কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, শান্তনু দত্ত শন্তু, আজম খান, ইলিয়াছুর রহমান ইলিয়াছ,রেজওয়ান আহমদ,এস এম শওকত আমীন তৌহিদ, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান সহ সিসিকের অন্যন্য কাউন্সিলর, মহিলা কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি ও সরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Attachments area

আরও পড়ুন