ভালো ফলাফল অর্জনের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে হবে ……..দানবীর ড. রাগীব আলী

প্রকাশিত : 28 October, 2019     আপডেট : ১ মাস আগে  
  

দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কামালবাজারস্থ দানবীর ড. রাগীব আলী প্রতিষ্ঠিত হাজী রাশিদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের উদ্বোধন করেন বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর ড.রাগীব আলী।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী, সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি ও সিলেটের প্রথম বেসরকারি মেডিকেল কলেজ জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দানবীর ড.রাগীব আলী বলেন, কামাল বাজার একটি ঐতিহ্যবাহী এলাকা। এই এলাকার অনেক সুনাম ও ঐতিহ্য রয়েছে। এই এলাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাজী রাশিদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়। ভালোভাবে লেখাপড়া করে ভালো ফলাফলের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে হবে। এলাকার সুনাম বৃদ্ধি করতে হবে। মানবতার কল্যাণে নিবেদিত রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দানবীর ড. রাগীব আলী শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন,ভালোভাবে পাঠদানের মাধ্যমে এই প্রতিষ্ঠানকে শিক্ষাক্ষেত্রে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিতে হবে। তিনি বিদ্যালয়ের সার্বিক সমস্যা সমাধানেরও প্রতিশ্রুতি দেন।
বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক মো. হারুন অর রশীদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের সচিব ও হাজী রাশিদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর (অব.) শায়েখুল হক চৌধুরী।
সভায় বক্তব্য রাখেন- বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য বোরহান হোসাইন, মানবাধিকার কর্মী আনোয়ার হোসাইন, প্রধান শিক্ষক মো.আব্বাস আলী।
বিশেষ অতিথি হাজী রাশিদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর (অব.)শায়েখুল হক চৌধুরী বলেন, শুরুতেই এই দ্বিতল ভবন প্রতিষ্ঠা করতে পরিচালনা কমিটির সদস্য ও শিক্ষকবৃন্দের অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে। তিনি এজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। তিনি এই বিদ্যালয় নিয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে উপস্থিত শিক্ষকবৃন্দ,পরিচালনা কমিটির সদস্যবৃন্দ ও ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এ ভবনের নিচে ছাত্রীদের জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত একটি কমন রুম এবং ডাইনিং রুম তৈরি করা হবে ইনশাআল্লাহ। আর্থিক সমস্যার ব্যাপারে তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যানের পরামর্শ নিয়ে পরবর্তীতে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হবে। ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে একটি ডিপ টিউবওয়েল বসানোর কাজ চলছে। চেয়ারম্যানের সহযোগিতা ও পরামর্শ নিয়ে আগামী বছর পুরাতন টিনশেড ঘর ভেঙ্গে নতুন চার তলা ভবনের নির্মাণ কাজ আরম্ভ করা হবে বলে জানান তিনি। ভালোভাবে পড়ালেখা বিদ্যালয়ের সুনাম বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে তিনি শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্য মো.হেলাল আহমদ, মো. আব্দুল কাইয়ুম মুকুল, সিনিয়র শিক্ষক বিশ্বনাথ চক্রবর্তী, আব্দুল হাই, হোসেন আহমদ শাহ, রাজ মোহন সরকার,সাইমুন বিল্লাহ সিদ্দিকী, মো. সাদিক চৌধুরী, মো. আকাঈদ হোসেন, মিজানুর রহমান, সাজ্জাদুর রহমান আনসারী প্রমুখ।

আরও পড়ুন