বৃষ্টিতে দিশেহারা কৃষক

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে  
  

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে থেকে, ছায়াদ হুসেন সবুজ::
দক্ষিণ সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাওরে ধান পেকে কাটার উপযুক্ত হয়েছে। প্রাকৃতিক দূর্যোগ কিংবা খরার প্রভাব না থাকায় হাওরাঞ্চলে ফলনও হয়েছে ভাল।গত বছর বন্যার সোনার ধান তলিয়ে যাওয়ার দুঃসহ স্মৃতি ভুলিয়ে দিতেই যেন এবার হাওরে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।প্রত্যেকটি হাওরে ধান পাকতে শুরু করেছে। তোড়জোর চলছে সোনার ফসল ঘরে তোলার।দক্ষিণ সুনামগঞ্জের এতোসব ভালো খবরের মধ্যে রয়েছে শঙ্কাও। বেশীরভাগ হাওরে ধান পেকে কাটার উপযুক্ত হলেও কাটার জন্য প্রয়োজনীয় শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। কৃষকরা জানান, আগে সিলেট খানাইঘাট,বিছনাকান্দি,জৈন্তা ইত্যাদি অঞ্চল থেকে ধান কাটতে শ্রমিকরা আসতেন। এখন ঐ সমস্ত অঞ্চলের ধান কাটা শ্রমিক আসা বন্ধ হয়ে গেছে।এতে ক্রমেক্রমে বিভিন্ন হাওরে ধান কাটার শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে।বর্তমানে ধান কাটা শ্রমিক সংকটে দিশেহারা হয়ে পড়ছে হাওরাঞ্চলের কৃষকরা। অনেকটা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন তারা।হাওরপাড়ের কৃষক সূত্রে জানা যায়,অনেক কৃষকেরা মারাত্মক সংকটে ভুগছেন। ক্ষেতে ধান পেকে আছে কিন্তু শ্রমিক নেই।উনারা বলেন,আল্লাহ রাব্বুল আলামিন জানেন এবারো আমাদের ভাগ্যে কি আছে।তারা বলেন,আগে শ্রমিক আসত এখন টাকা বিকাশ করে পাটিয়ে দিলেও আসেনা,অনেকে আসবে বলে টাকা নিয়ে প্রতারনও করেছে।এদিকে প্রতিদিন বৃষ্টি দেখে দিশেহারা হয়ে পরেছেন কৃষক।তাদের মনে চিন্তার শেষ নেই।পাকা ধান শ্রমিকের অভাবে হাওরে পরে আছে,অনেকে নাকি সুদে টাকা এনে জমি করেছেন।যদি এবার গোলায় ধান না উটে তবে তাদের কষ্টের কোন সীমা থাকবেনা।আসলেই কয়েকদিন যাবৎ প্রতিনিয়ত বৃষ্টি হচ্ছে, বৃষ্টি যেন থামতেই চায়না অবিরামভাবে চলছে থ চলছেই।

পরবর্তী খবর পড়ুন : তুলনা

আরও পড়ুন



ফ্রান্সে মিজানুর রহমান সিনহার সমর্থনে নির্বাচনী সভা

এনায়েত হোসেন সোহেল ,প্যারিস,ফ্রান্স থেকে:...

শান্তির বাসা

মিজানুর রহমান মিজান যত আছে...

রফতানি বন্ধের খবরে সিলেটে পেঁয়াজের কেজি ১০০ টাকা

পেঁয়াজের উৎপাদন সংকট দেখিয়ে প্রতি...

নেতাকর্মীদের দেখতে বিভিন্ন হাসপাতালে বদরুজ্জামান সেলিম

অসুস্থ একাধিক বিএনপি নেতাকর্মীদের দেখতে...