বিশ্বনাথের চালক বিষু হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী রইছ খা গ্রেফতার

প্রকাশিত : ১৬ মার্চ, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে  
  

বিশ্বনাথের সিএনজি অটোরিকশা চালক বিষু মালাকার (৩২) হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী রইছ খাকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে বিশ্বনাথ উপজেলার জাহারগাঁও গ্রামের সুলতান খা’র পুত্র। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ নিজ বাড়ি থেকে রইছ খা’কে গ্রেফতার করে। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার থেকে মামলার অন্যতম আসামী বিশ্বনাথ উপজেলার মজলিস ভোগশাইল গ্রামের তোরণ মিয়ার পুত্র দেলোয়ার হোসেন (২৬) ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুর গ্রামের লোবান মিয়ার স্ত্রী সাজেদা বেগমকে (৩০) গ্রেফতার এবং লোবান মিয়া বাড়ী থেকে অটোরিকশা ও দেলোয়ার হোসেনের কাছ থেকে ভিকটিমের মোবাইল সেট উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতারের পর দেলোয়ার হোসেন পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি ও ওই দিন আদালতের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির ভিত্তিতে বিষু হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী রইছ খা’কে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার এস.আই গোলাম ফাত্তাহ মুর্শেদ চৌধুরী। শুক্রবার রইছ খা’কে আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং হত্যাকান্ডের আরো তথ্য উদঘাটনে আদালতে তার রিমান্ড চাওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।
প্রসঙ্গত, বিশ্বনাথ উপজেলার মজলিস ভোগশাইল গ্রামের নিখিল মালাকারের ছেলে চালক বিষু মালাকার ভাড়ায় চালিত সিএনজি অটোরিকশা’সহ গত মাসের ২৮ ফেব্রুয়ারি রাতে নিখোঁজ হন। নিখোঁজের ২দিন পর সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের গড়গাড়ি এলাকা থেকে বিষু মালাকারের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় নিহত বিষু মালাকারের পিতা নিখিল মালাকার বাদি হয়ে গত ৫মার্চ জগন্নাথপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন