বিবেক’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বৃত্তি প্রদান গুণীজন সম্মাননা অনুষ্ঠান

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আব্দুস সোবহান ইমন :

‘জীবে জীবে হোক প্রেম-বন্ধন, সৃষ্ট হোক আনন্দলোক’ ঐশী এই প্রেরণা নিযে প্রতি বছরের মতো এবার ও সৃষ্ট সেবা সংকল্পের কাঙ্খিত মানব সেবায় নিবেদিত সংগঠন ‘সিলেট বিবেক’ এর ১০তম প্রতিষ্ঠবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে শুক্রবার বিকেলে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে আলোচনা, গুনীজন সম্মাননা, বৃত্তি প্রদান ও সংগীত,আবৃত্তি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট রাম কৃষ্ণ মিশন আশ্রম সম্পাদক স্বামী চন্দ্রনাথানন্দ মহারাজ। গুনীজন সম্মাননা প্রাপ্তদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপাধ্যক্ষ (অব.) সুষেন্দ্র কুমার পাল, বিশিষ্ট সাংবাদিক সাহিত্যিক আজিজ আহমদ সেলিম।
সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে স্বামী চন্দ্রনাথানন্দ মহারাজ বলেন, শিক্ষার্থীদের ভিতরের সৃজনশীল, মেধা শক্তিকে বিকশিত করার দায়িত্ব সকলের। অর্থের অভাবে অনেকে পড়ালেখায় বিঘœ ঘটছে, তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়ে পড়ালেখায় উৎসাহ দিয়ে ভিতরের চেতনা সম্ভাবনাকে জাগ্রত করতে হবে। শিক্ষার্থীরা হচ্ছে সমাজ এবং দেশের উজ্জল নক্ষত্র। দেশ এবং মানব কল্যানের জন্য গড়ে তুলতে হবে। বর্তমান এই প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের সঠিক ভাবে নৈতিক ও মূল্যবোধ শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। এবং আমাদের দেশ ও সামাজের সফলতার মাপ কাঠি হিসেবে উন্নতির মূল লক্ষ্যে নিয়ে এগিয়ে যাবে।
সংগঠনের সভাপতি বিজয় কৃষ্ণ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী প্রস্থতি কমিটির আহবায়ক ও সংগঠনের দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক চন্দন দাশ। সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন সুষেন্দ্র কুমার পাল,আজিজ আহমদ সেলিম। সংগঠনের সহ-সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক কৃষ্ণপদ সূত্রধরের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সদস্য, অধ্যাপক বিজিত কুমার দে, অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার সাহা, অ্যাডভোকেট পঙ্কজ কুমার রায়, অধ্যাপক নৃপেন্দ্র লাল দাস, বিরাজ মাধব চক্রবর্তী মানস, জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাস পুরকায়স্থ, প্রণব কুমার দেবনাথ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত দেব প্রমূখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে সুষেন্দ্র কুমার পালের উদ্দেশ্য মানপত্র পাঠ করেন মল্লিকা রায় তোরা ও আজিজ আহমদ সেলিমের উদ্দেশ্য মানপত্র পাঠ করেন মৌটুশী দাস। অনুষ্ঠানের শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সদস্য অশোক রঞ্জন চৌধুরী। বৃত্তি প্রদান, সংগীত, আবৃত্তি ও চিত্রঙ্কন প্রতিযোগীতার ২য় পর্ব পরিচালনা করেন, বৃত্তি প্রদান উপ কমিটির আহবায়ক সংগঠনের সহ-সভাপতি বীরেন্দ্র সূত্রধর, প্রতিযোগীতার উপ কমিটির সংগঠনের কার্যকরী সদস্য সুমন বণিক। অনুষ্ঠানে ৫৮ জন মেধাবী শিক্ষার্থীদেরকে বৃত্তি প্রদান করা হয় এবং প্রতিযোগী বিজয়ীদেরকে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথিদের উত্তরিয় পড়িয়ে দেন সিলেট রাম কৃষ্ণ মিশন আশ্রম সম্পাদক স্বামী চন্দ্রনাথানন্দ মহারাজ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন