বাড়ীর পাশে আরশি নগর

,
প্রকাশিত : ১৯ মে, ২০২১     আপডেট : ৮ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোয়াজ আফসার :
ঘরের কাছে বলে চক্ষু মেলিয়া দেখা হয় নাই। এর রুপ রস গন্ধ কতইনা অপরুপ। পরাগ সিলেট আসলেই ওর প্রবল ইচ্ছেটা ঘোমটা খোলে ওড়াল দেয়। কিন্তু বরাবরই ইচ্ছের ফানুশটা আকাশে ওড়ে না। এবারের ঈদে বিপদের কয়েক মাত্রা অশনি সংকেত মাথায় নিয়ে পরাগের শ্বশুর বাড়ীতে ঈদ উদযাপন করতে আসা। পরাগ আমার অনুজ আনোয়ারের স্ত্রী। দুজনই ঢাকায় চাকরী করে। ওদের সন্তান দুটো আনিশা আর আইয়ানের বয়স দুই অন্কের ঘর উৎরেছে। চা বাগানের গল্প শুনে শুনে ওরাও এখন আর গল্প শুনতে চায় না, গল্পটাকে ছোঁয়ে দেখতে চায়।
এবার ওদের শখের ঘরে প্রদীপ জ্বালাতে আমি একটা প্লান করি আগেভাগেই। সৌখিন পর্যটকের মতো বাহন আর সময় ঠিক করে রাখি। এখানে আরেক অনুজ আকতার আছে। ওর দুই মেয়ে নাবিহা আর নাাফিসা। আমার ছেলেমেয়ে হৃদি রিজভী ওদের সবার বড়। সবমিলিয়ে পর্যটক দলে সংখ্যা বারো। এক নোহায় তো আর কূলোয়না। আকতার ওর বউ মমকে মোটরবাইকে তুলে নিলে কিছুটা সুরাহা হয়।বউদের গ্যাং লিডার আমার স্ত্রী ফাহমিদা শিপুর নির্দেশনায় নোহা চলে বাগানের পথে। আঁকাবাঁকা পথের এক বাঁকে আমরা নামি। ছায়াবৃক্ষের ছোপ ছোপ ছায়ায় লালিত চা গাছগুলো বৃষ্টির ছোঁয়া লেগে এখন ভরা যৌবন। নতুন পাতা ছেড়ে দিয়ে গাছগুলো সবুজে ভরা। তাকালে মনে হয় যেন সদ্য রং করা বিছানো এক গালিচা। হাত লাগলেই বুঝি রং ছড়ায়। প্রকৃতির ওমন পরিবেশে সবার মন হয়ে ওঠে রঙ্গিন। ছবিতে আটকে রাখতে চায় ক্ষণিকের ভাল লাগা সে রঙ্গিন মূহুর্ত। সন্ধে হয়ে এলো। আরো কিছুক্ষণ থাকার বাসনা থাকলেও পিঁপড়ের মতো ছোট ছোট এক ধরনের উড়াল কীটের আক্রমণ আমাদের তাড়িয়ে দেয়।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

সুনামগঞ্জে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

        ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে ভোট...

মিলাদ মাহফিলের মাধ্যমে বাসিয়া প্রকাশনী নতুন ঠিকানায়

        প্রকাশনা শিল্পে সিলেটে প্রতিনিধিত্বশীল সৃজনশীল...

শহীদ জিয়ার জন্মবার্ষিকীতে মঙ্গলবার সিলেট মহানগর বিএনপির কর্মসুচী

        ১৯ জানুয়ারী বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মহান...