বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে লড়তে চান কামরুল হুদা জায়গীরদার

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে  
  

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আমেজ শেষ হতে না হতেই দরজায় কড়া নাড়ছে উপজেলা নির্বাচন। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জমে উঠছে উপজেলার রাজনীতি। আসন্ন বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়তে চান সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদার। বিএনপি দলীয়ভাবে ধানের শীষে প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিলে তিনি প্রার্থী হতে চান। দল না চাইলে তিনি নির্বাচন করবেন না বলে জানিয়েছেন নিখোঁজ বিএনপি নেতা জননেতা এম. ইলিয়াস আলীর বিশ্বস্তজন খ্যাত এই নেতা।
জানা যায়, কামরুল হুদা জায়গীরদার আপাদমস্তক একজন জাতীয়তাবাদী আদর্শের রাজনীতিবিদ। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে জাগো দলের মাধ্যমে রাজনীতিতে আসেন। ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে বর্তমানে তিনি সফল রাজনীতিবিদ হিসেবে সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এবং বালাগঞ্জ উপজেলা সভাপতি হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। ছাত্র জীবনে সিলেট জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে তিনি আলোচনায় আসেন। সিলেটের ছাত্ররাজনীতিতে তাঁর অবদান তখনকার ছাত্রনেতার শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন। দুই বারের বেশী সময় ধরে বালাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি এবং দুই বারের বেশী সময় ধরে সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সিলেটের কোটি জনতার হৃদয়ের স্পন্দন জননেতা এম ইলিয়াস আলী’র বিশ্বস্তজন হিসেবে কামরুল হুদা জায়গীরদার বালাগঞ্জ উপজেলার বিএনপি পরিবার নয়, সর্বস্তরের জনতার কাছে এক জনপ্রিয় নাম। জননেতা এম ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর তার নেতৃত্বে উপজেলা থেকে জেলা পর্যায়ে সকল আন্দোলন সংগ্রামে তিনি ছিলেন অগ্রভাগে। উপজেলা পর্যায়ে বিএনপি অঙ্গ সংগঠনের কার্যক্রম সুসংগহত করার পাশাপাশি জেলা বিএনপির সকল কর্মসুচীতে তার রয়েছে সরব উপস্থিতি। বিগত উপজেলা, ইউনিয়ন নির্বাচনে বালাগঞ্জে বিএনপি প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে তিনি অগ্রনী ভুমিকা পালন করেছেন। সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৩ আসনের ধানের শীষের প্রার্থীর পক্ষে তার ছিল গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা। দুঃখজনক হলেও সত্য যে,৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সরকারের ভোট চুরির প্রতিবাদ করতে গিয়ে পুলিশ ও সরকারদলীয়দের গুলিতে নিহত হন বালাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ সায়েম। বালাগঞ্জের মাটিতে এমন ঘটনায় শোকে বিহ্বল হয়ে পড়েন কামরুল হুদা জায়গীরদার। সম্প্রতি বালাগঞ্জে এসে নিহত সোহেল আহমদ সায়েমের পরিবারের পাশে দাড়িঁয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। উপস্থিত নেতৃবৃন্দ নিহত সোহেল আহমদ সায়েমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন এবং শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানান। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দের সিলেট এবং বালাগঞ্জ সফর সফল করতে কামরুল হুদা জায়গীরদার অগ্রনী ভুমিকা পালন করেছেন। উল্লেখ্য- জিয়াউর রহমান সুলতানপুর সড়ক হয়ে বালাগঞ্জ উপজেলা সফরকালে কামরুল হুদা জায়গীরদার তাঁর সফর সঙ্গী হিসেবে সাথে ছিলেন।
তৃনমূল নেতাকর্মীরা আসন্ন বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করার জন্য তার প্রতি বার বার অনুরোধ জানাচ্ছেন। ধানের শীষ প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হলে বিজয় নিশ্চিত করার জন্য সর্বশক্তি দিয়ে কাজ করারও প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছেন বালাগঞ্জ উপজেলা বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তৃনমূলের দাবীর প্রেক্ষিতে কামরুল হুদা জায়গীরদার বলেছেন দল যদি উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয় আর তাঁকে প্রতিদ্বন্ধিতার জন্য মনোনয়ন দেয় তাহলে তিনি নির্বাচন করতে প্রস্তুত রয়েছেন। অন্যথায় নির্বাচন করার কোন ইচ্ছা তার নেই।
এব্যাপারে কামরুল হুদা জায়গীরদার বলেন- আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে বালাগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতার জন্য দলীয় তৃনমূল নেতাকর্মীরা জোর দাবী জানাচ্ছে। আমার দল নির্বাচনে যায় এবং আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি নির্বাচন করতে প্রস্তুত। দলের সিদ্ধান্তই আমার সিদ্ধান্ত। দল মনোনয়ন দিলে আমি তৃনমূলের দাবী পূরনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আর বিজয়ের ব্যাপারেও আশাবাদী।

আরও পড়ুন



ফেঞ্চুগঞ্জে বজ্রপাতে ৩ কৃষক নিহত

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক :  সিলেটের...

জামায়াত বদলাবে না ভাঙবে? রাজ্জাকের পদত্যাগের পর মঞ্জু বহিস্কার

মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতাবিরোধী ভূমিকার জন্য জাতির...