বানিয়াচঙ্গে ফের বজ্রপাতের আঘাতে মারা গেছে ২ ধান কাটার শ্রমিক

,
প্রকাশিত : ০৯ মে, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) থেকে : বানিয়াচঙ্গে বজ্রপাতের আঘাতে দুই সপ্তাহের ব্যবধানে মারা গেছে ১০ জন ধান কাটার শ্রমিক। গত বুধবার দুপুরে বজ্রপাতের আঘাতে ফের মারা গেছে আরও ২জন ধান কাটার শ্রমিক। আহত হয়েছে অন্ততপক্ষে ৭জন। জানা যায়,  বানিয়াচং ২নং উত্তর পশ্চিম ইউনিয়নের নূরপুর হাওরে দুপুরে ধানকাটারত অবস্থায় বজ্রপাতের আঘাতে মারা যান সিরাজগঞ্জ জেলার চৌখালী উপজেলার উমরপুর ইউনিয়নের দত্ত্বকান্দি গ্রামের নওশের সরকার এর ছেলে জয়নাল উদ্দিন (৬০) এবং ৬নং কাগাপাশার হাওরে ধান কাটারত অবস্থায় বজ্রপাতের আঘাতে মারা যান সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার দাইপুর গ্রামের বসন্ত দাশের ছেলে স্বপন দাশ (৩৫)। বজ্রপাতের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন ধানকাটার শ্রমিক কামরুল মিয়া (২২), মিজানুর রহমান (১৬), জহির মিয়া (২২), বিপূল দাশ (২৮), বিষ্ণু পদ দাশ এবং সুজিত দাশ। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বানিয়াচং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্লাবন পাল এর সাথে আলাপকালে তিনি নিহত ২ শ্রমিক এর বজ্রপাতের আঘাতে মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে গত দুই সপ্তাহে বজ্রপাতের আঘাতে মারা গেছে আরও ১০ জন। নিহত শ্রমিকরা হলেন ১৪ নং মুরাদপুর ইউনিয়নের মাটিকাটা গ্রামের সুলেমান মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া (১৭), ১৫ নং পৈলারকান্দি ইউনিয়নের পৈলারকান্দি গ্রামের আশিক আলীর ছেলে আমির আলী (৩৫), ১১নং মক্রমপুর ইউনিয়নের হিয়ালা গ্রামের ফুল মিয়া খাঁর ছেলে মইন উদ্দিন খাঁ (১১), ৩নং বানিয়াচং দক্ষিন পূর্ব ইউনিয়নের জাতুকর্ন পাড়া গ্রামের গাজী রহমানের ছেলে সামছুল হক (৪০), ৭নং বড়ইউড়ি ইউনিয়নের বল্লবপুর গ্রামের তাহির মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া ওরফে সাহিন (২৫), ৪নং বানিয়াচং দক্ষিন পশ্চিম ইউনিয়নের বাসিয়াপাড়া গ্রামের ছইম উল্বার ছেলে আজিম উদ্দিন (৪০), ৯নং পুকড়া ইউনিয়নের মুরারআব্দা গ্রামের যতীন্দ্র দাশের ছেলে রনধীর দাশ (৫০), ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের কবিরপুর গ্রামের নাদু বৈষ্ণব এর ছেলে অধীর বৈষ্ণব (২৭), একই ইউনিয়নের তেলঘড়ি গ্রামের বিরেশ্বর বৈষ্ণব এর ছেলে বসু বৈষ্ণব (৩২) এবং ১৪নং মুরাদপুর ইউনিয়নের মর্দনপুর গ্রামের মোতাইল মিয়ার ছেলে জোবায়ের মিয়া (২৫)। বজ্রপাতের আঘাতে একের পর এক শ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনায় হাওরপাড়ের মানুষজনের মধ্যে উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন