বানিয়াচংয়ে “সন্ত্রাস,নারী নির্যাতন রোধ ও আদর্শ সন্তান গঠনে মায়ের ভূমিকা” শীর্ষক সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯     আপডেট : ৩ মাস আগে  
  

মখলিছ মিয়া,বানিয়াচং থেকে ॥ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের আয়োজনে “সন্ত্রাস,নারী নির্যাতন রোধ ও আদর্শ সন্তান গঠনে মায়ের ভূমিকা” শীর্ষক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল (শনিবার) সকাল সাড়ে ১০ টায় ১নং উত্তর পূর্ব ইউনিয়ন পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড এডমিনিস্ট্রেশন) এস এম ফজলুল হক। চেয়াম্যান গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও বানিয়াচং থানার সেকেন্ড অফিসার আব্দুর রহমান ও আমিনুল হক চৌধুরীর যৌথ পরিচালনায় বিেিশষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বানিয়াচং সার্কেল) শেখ মোহাম্মদ সেলিম, শিক্ষানবীশ এএসপি মানছুরা আক্তার, এএসপি তৃপ্তি মন্ডল, বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার সামন্ত, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়াম্যান হাসিনা আক্তার, বানিয়াচং উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম খোকন, আশার ব্রাঞ্চ ম্যানেজার সাজেদুল ইসলাম চৌধুরী, ইউপি সদস্য মখলিছ মিয়া, সাইফুল ইসলাম, গৌরী দেবনাথ প্রমুখ।  প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম ফজলুল হক বলেন, আমাদের পুলিশের গর্ব সুযোগ্য পুলিশ সুপার মহোদয়ের নেতৃত্বে দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশ। এরই ধারাবাহিকতায় পুলিশ সুপার মহোদয় “সন্ত্রাস,নারী নির্যাতন রোধ ও আদর্শ সন্তান গঠনে মায়ের ভূমিকা” শীর্ষক সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করেছেন। বানিয়াচং উপজেলার ১নং উত্তর পূর্ব ইউনিয়ন পরিষদ থেকে আমাদের এ সেমিনারের যাত্রা শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে হবিগঞ্জ জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে এ সেমিনার করা হবে। তিনি আরো বলেন,সমাজের প্রতিটি কাজে নারীদের অংশ গ্রহন রয়েছে, যা আজ দৃশ্যমান, এটাকে আরো বেগবান করতে এবং নারীদের আরো সচেতন করে গড়ে তুলতে এই উদ্যোগ কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশাবাদী। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বানিয়াচং সার্কেল) শেখ মোহাম্মদ সেলিম বলেন, একজন মা’ই কেবল একজন শিশুকে যোগ্য সন্তান হিসেবে গড়ে তুলতে কার্যকর ভূমিকা রাখেন, এজন্য মায়েদের বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে কিভাবে তাদের মাধ্যমে সমাজকে আলোকিত করা যায়, এ লক্ষ্যেই পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশনায় একাজগুলো আমরা করে যাচ্ছি। হবিগঞ্জ জেলায় এ কার্যক্রমটি সুন্দরভাবে উপস্থাপিত হলে পর্যায়ক্রমে তা সারা বাংলাদেশে চালু হবে বলে আমরা আশাবাদী। এ কার্যক্রমের সফলতা পেতে নারী পুরুষ সকলের সম্মিলিত সহযোগিতা প্রয়োজন। স্বাগত বক্তব্যে ওসি রঞ্জন কুমার সামন্ত বলেন, নারী সমাজ এখন আর অবহেলার পাত্র নয়, নারীরা আজ কর্মক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে,তাদেরকে আরো সাহস ও প্রেরণা যোগাতে এবং নারী নির্যাতন রোধে এ উদ্যোগ হাতে নেয়া হয়েছে। কোন নারী যেন কর্মক্ষেত্রে অথবা অন্য কোথাও নির্যাতিত না হয় এলক্ষ্যে পুলিশ সুপার মহোদয়ের নেতৃত্বে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। সভায় সাংবাদিক, বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ প্রায় ৫ শতাধিক মহিলা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন