ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় হারুন চৌধুরী

,
প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই দেশব্যাপী শুরু হতে যাচ্ছে উপজেলা নির্বাচনী আমেজ। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে নড়ে চড়ে বসেছেন চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের সম্ভাব্য প্রার্থীগণ। এথেকে ব্যতিক্রম নয় ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলাও। এখানেও সর্বত্র শুরু হয়েছে নির্বাচনী আমেজ। নিজেদের তুলে ধরতে উপজেলায় ভোটার দ্বারে দ্বারে ছুটছেন প্রার্থীরা। ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ইতিমধ্যে আলোচনায় এসেছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিএনপি নেতা হারুন আহমদ চৌধুরী। প্রবাসে থাকলেও সর্বদা দেশ-জাতি-সমাজ ও আর্ত মানবতার কল্যানে কাজ করায় হারুন আহমদ চৌধুরীকে নিয়ে চলছে আলোচনা। উপজেলাবাসীর বিপদে-আপদে সব সময় পাশে থাকায় তাকে বিজয়ী করতে মানুষের মাঝে তৈরী হয়েছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা।
জানা যায়, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামের ঐতিহ্যবাহী বড়বাড়ীর সন্তান হারুন আহমদ চৌধুরী দীর্ঘদিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকার পর স্থায়ীভাবে বসবাস করতে দেশে ফিরেন বেশ কিছুদিন আগে। মানুষের কল্যানে নিজেকে উৎসর্গ করতে উপজেলাবাসীর ন্যায্য দাবী-ধাওয়া আদায় করতে ভুমিকা পালন করতেই তিনি আসন্ন নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান। হারুন আহমদ চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির উপদেষ্ঠা হিসেবে নিষ্টার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। দেশে এবং প্রবাসে দলীয় নেতাকর্মীদের সুখে দুখে নিজেকে নিয়োজিত রাখার পাশাপাশি দরিদ্র জনগোষ্টীর কল্যানে তিনি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে নিজেকে সদা ব্যস্ত রেখে আসছেন। উপজেলা জুড়ে শিক্ষার গুনগত মানোন্নয়নে ফেঞ্চুগঞ্জ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ২০০৬ সালে “বেষ্ট টিচার এওয়াডর্” চালু করেন। এর মাধ্যমে শিক্ষক সমাজকে তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্যের ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়। তিনি দীর্ঘদিন থেকে ধারাবাহিকভাবে উপজেলার বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানায় সহায়তার পাশাপাশি দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করে আসছেন। সম্প্রতি তিনি তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য স্কুল ড্রেস প্রদানের ব্যবস্থা করেছেন। সব সময় জনগণের পাশে থাকা হারুন চৌধুরী জনপ্রতিনিধি হয়ে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চান। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করলে তিনি ধানের শীষের প্রতীকে নির্বাচন করতে পারেন। আর দল নির্বাচনে না গেলে তিনি এলাকাবাসীর চাপে স্বতন্ত্র পদে প্রার্থী হতে পারেন বলে একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।
এব্যাপারে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হারুন আহমদ চৌধুরী বলেন- আমরা দীর্ঘদিন থেকে লক্ষ্য করছি অনেক জনপ্রতিনিধিগণ তাদের একটা নির্দিষ্ট এলাকা ও ব্যক্তিস্বার্থ কেন্দ্রীক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছেন। আমি নির্বাচিত হলে ব্যক্তিস্বার্থ জলাঞ্জলী দিয়ে উপজেলা জুড়ে সুসম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে চেয়ারম্যান পদে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

মৃত্যুর ডাক

         কবির মাহমুদ : প্রাণীকুলকে পাকড়াও...

ইসলামের দৃষ্টিতে কবর পাকা করা

         ইসলাম ও জীবন ডেস্ক: ইসলামের দৃষ্টিতে...

জুন মাসেই নবশিখার ‘নাট্য ও সাংস্কৃতিক ভাবনায় বঙ্গবন্ধু’ উৎসব

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: আগামী জুন...

আবু তুরাব মসজিদের সাবেক সেক্রেটারী নূর মিয়ার ইন্তেকাল

92        92Shares বন্দরবাজার আবু তুরাব জামে...