প্রেমে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা প্রেমিকের

,
প্রকাশিত : ২৭ ডিসেম্বর, ২০২০     আপডেট : ১ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চাঁদপুরে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে এক স্কুলছাত্রী ও তার পরিবারকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে জুনায়েদ মাঝি (২২) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। গতকাল শনিবার রাতে চাঁদপুর সদরের ৯ নম্বর বালিয়া ইউনিয়নে ঘটনা ঘটে।

ওই স্কুলশিক্ষার্থীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত দেড়টার দিকে উত্তর বালিয়া গ্রামের কদর আলী মাঝির ছেলে জুনায়েদ মাঝি (২২) তার সহযোগীদের নিয়ে ওই স্কুলছাত্রীর বসতঘরে পেট্রোল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে স্কুল শিক্ষার্থীর মা-বাবার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাৎক্ষণিক পানি ঢেলে আগুন নেভায়। তবে এর আগেই ওই স্কুলছাত্রীর ঘরের দরজা, বিছানা ও মশারি পুড়ে যায়। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলামসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ওই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান এসআই রফিকুল ইসলাম।

ওই স্কুলছাত্রীর বাবা দিনমজুর সোলেমান শেখ বলেন, ‘আমার মেয়ে বালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সে স্কুলে যাওয়া আসার পথে জুনায়েদ মাঝি নামে ওই বখাটে প্রায়ই মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতো। একপর্যায়ে সে আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু আমার মেয়ে রাজি না হওয়ায় এসিড ঢেলে ও আগুনে পুঁড়িয়ে হত্যার হুমকি দেয়। ছেলেটির স্থানীয় জনতা বাজারে কম্পিউটার দোকান আছে। সেই সুযোগে আমার মেয়ে তার দোকানে ছবি তুলতে গেলে সেই ছবি দিয়ে খারাপ ভিডিও তৈরি করে সে ফেসবুকে ছেড়ে দেয়।’

তুলি আক্তারের মা সখিনা বেগম বলেন, ‘ছেলেটি প্রায়ই আমার মেয়েকে বিরক্ত করতো। প্রথমে আমি আমার মেয়েকে মারধর করে ওই ছেলের সাথে সম্পর্ক না করতে বলি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছেলেটি আমার বাড়িতে এসে আমাদেরকে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করতো এবং আমাদের সবাইকে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়।’

ওই স্কুলছাত্রী বলেছে, ‘জুনায়েদ অনেকদিন ধরে আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু আমি রাজি না হওয়ায় আমাকেসহ আমার পুরো পরিবারকে পেট্রোল ঢেলে হত্যার হুমকি দেয়। এর আগেও সে আমাদের বাথরুমে আগুন দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করে, যা স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়।’

এ ব্যাপারে বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপই) চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম মিজি বলেন, ‘ঘটনাটি আমি জানার পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারের সাথে কথা বলে প্রশাসনকে অবহিত করি। এটি সত্যিই ন্যাক্কারজনক ঘটনা। আমি প্রশাসনের কাছে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নাসিম উদ্দিন বলেন, ভুক্তভোগীরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এছাড়াও খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে আলামত সংগ্রহ করেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।সূত্র:: আমাদেরসময়


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

মেয়র প্রার্থী এডভোকেট জুবায়েরের সমর্থনে কর্মীসভা

        সিলেট মহানগরীর শহাপরান পশ্চিম থানার...

শহীদ জিয়ার জন্মবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির শিরণি বিতরণ

        ১৯ জানুয়ারী বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মহান...

নারীরা সমপর্যায়ের কাজ করলে শীঘ্রই উন্নত দেশে পরিণত হবো

        সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: সিলেট সদর...