প্রশাসনের সহযোগীতায় ক্যান্সার রোগে আক্রন্ত শিশু সিফাতের সাহায্যের টাকা ফিরত পেলেন তার পিতা

,
প্রকাশিত : ২৯ আগস্ট, ২০১৯     আপডেট : ২ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশাসনের সহযোগীতায় ক্যান্সার রোগে আক্রন্ত শিশু সিফাতের সাহায্যের টাকা ফিরত পেলেন তার পিতা আতাউর রহমান।
ছেলেকে বাচাতে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাদ্যমে সমাজের দানশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আবেদন করেছিলেন ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত শিশু সিফাতের পিতা আতাউর রহমান। তারই ধারাবাহিকতায় সিলেটের বিভিন্ন জায়গায় কিছু স্বেচ্ছাসেবী লোকের মাধ্যমে আর্থিক সাহায্য সংগ্রহের কার্যক্রম চলছিল। ছেলের চিকিৎসার জন্যে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা লাগবে বলে তিনি উল্লেখ্য করেন। সাহায্যের আবেদন করার পর ইতোমধ্যে প্রায় ২ লক্ষ টাকা সাহায্য আদায় হয়েছে। টাকা আদায়ের জন্য দিনমজুর এই অভিভাবককে স্বেচ্ছায় শ্রম দিতে এগিয়ে এসেছেন অনেকেই। তারা বিভিন্ন এলাকায় মানুষের কাছে সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছেন। কিন্তু গত ২৪ আগস্ট শনিবার আনুমানিক রাত ৯টার দিকে সাহায্যের টাকা নিয়ে শহরে আসার পথে দক্ষিণ সুরমার জালালপুর বাজার সংলগ্ন ব্রীজের সামনে কয়েকজন লোক সংঘবদ্ধ ভাবে সেই গাড়ীতে হামলা চালিয়ে লোকজনকে মারধর করে নগদ টাকা গুলো নিয়ে যায়।
এব্যাপারে দূষীদের গ্রেফতার ও টাকা উদ্ধারের দাবী জানিয়ে ২৭ আগস্ট মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবরে তার পিতা আতাউর রহমান একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।
পুলিশ কমিশনার বিষয়টি আমলে নিয়ে মোগলাবাজার থানা অফিসার ইনচার্জ এর কাছে সিফাতের পিতার মাধ্যমে অফিশিয়াল চিঠি পাঠিয়ে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।
তারই ধারাবাহিকতায় মোগলাবাজার থানা অফিসার ইনচার্জ আক্তার হোসেনের তৎপরতায় ২৮ আগস্ট রাতে মোগলাবাজার থানা ঘটনা কারীদের এনে টাকা উদ্ধার ও ক্ষমা চেয়ে বিষয়টির নিষ্পত্তি করেদেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ও বিষয়টির নিষ্পত্তি করতে গুরুত্ব পূর্ণ ভূমিকা পালন করেন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ।
বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি করে দেওয়ায় পুলিশ কমিশনার, উপজেলা চেয়ারম্যান, থানার ইনচার্জ আক্তার হোসেন ও বিভিন পত্র-পত্রকা ও সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সিফাতের পিতা আতাউর রহমান।
উল্লেখ্য শিশু সিফাত সিলেট নগরীর ৯ নং ওয়ার্ডের উত্তর বাঘবাড়ি নিবাসী দিনমজুর পিকআপ ভ্যান চালক আতাউর রহমানের ছেলে। সিফাতকে সিলেটে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিয়ে
ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী উন্নয়ন চিকিৎসার লক্ষ্যে ঢাকাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের ২য় তলার ১০ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বার্তা প্রেরক
এম. রহমান ফারুক
প্রয়োজনে
সিফাতের পিতা
আতাউর রহমান
০১৭১১৫৭৩৭০৫


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন