পাহাড় টিলা আর সবুজের সমারোহ মুসেন্ডা বা নাগবল্লী

,
প্রকাশিত : ১২ জুলাই, ২০২১     আপডেট : ২ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চির সবুজের মাঝে লাল ও সাদা রঙের আলস্কারিক গুল্ম মুসেন্ডা বা নাগবল্লী। স্থানীয়রা এগুলোকে বন ফুল বা নাগফট বলেন। ফুল গুলোতে সুবাস না থাকলেও সবুজের মাঝে সাদা রঙের পত্র পল্লবে পথচারীদের নজর কাড়ে নাগফট। মৌলভীবাজার জেলার বিশাল এলাকা জুড়ে রয়েছে পাহাড় টিলা আর সবুজের সমারোহ। সবুজ বনে আপন খেয়ালে সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলে মুসেন্ডা বা নাগবল্লী ।

মুসেন্ডা বা নাগবল্লী (বৈজ্ঞানিক নামঃ Mussaenda frondosa) Rubiaceae পরিবারের মুসেন্ডা গনের লাল ও সাদা রঙের আলস্কারিক গুল্ম। প্রচলিত ইংরেজী নাম Dwarf Mussaenda, White Wing ইত্যাদি। রোদ বা আংশিক ছায়ায় এ গাছ তাড়াতাড়ি বেড়ে উঠে। নাগবল্লী বর্ণবৈচিত্র তৈরীতে সৌন্দর্য প্রেমিদের আদর্শ বাগানের জন্য উত্তম বলে জানান স্থানীয়রা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নাগবল্লী বাংলাদেশ ও ভারতীয় প্রজাতির বনো ফুল। ঝোপের ভেতর ছোট আকৃতির চিরসবুজ গাছ। সাধারণত দুই থেকে তিন ফুট উঁচু হতে পারে। পাতার রং উজ্জল সবুজ , এর উপর সাদা সাদা পাতা রয়েছে, প্রায় চার সেন্টিমিটার লম্বা হলুদ রঙের ফুল। এক ঝোপে অনেকটি ফুল রয়েছে। মৌলভীবাজার জেলার চা বাগানের ঝোপঝাড়ে মে ও জুন মাসে মুসেন্ডা বা নাগবল্লী ফুটে। স্থানীয়রা একে বলে নাগফট। সরেজমিনে গিয়ে কথা হয় জেলার রাজনগর উপজেলার উদনা ছড়া, ইটা চা বাগান, রাজনগর চা বাগানের বাসিন্দা প্রদীপ যাদব, সুরুজ মিয়া, সিপন মিয়া ও পায়েল আহমদদের সাথে কথা বললে তারা জানান, স্থানীয়ভাবে একে তারা নাগফট ফুল বলেন। বর্ষা মৌসুমে মুসেন্ডা বা নাগবল্লী ফুটে প্রকৃতিকে সুন্দর করে সাজিয়ে তোলে। এ ফুলে ঘ্রাণ না থাকলেও দেখতে খুব সুন্দর লাগে। ফুল থেকে মৌমাছি মধু সংগ্রহ করে।
উদ্ভিদ বিশেষজ্ঞ মাথিউড়া চা বাগানের ব্যবস্থাপক ইবাদুল ইসলাম ও কৃষিবিদ শেখ আজিজুর রহমান জানিয়েছেন, এটি সিলেট ও চট্রগ্রামের পাহাড়ি অঞ্চলে পাওয়া যায়। আমাদের দেশে তিন প্রজাতির কয়েক ধরনের নাগবল্লী দেখা যায়। সৌন্দর্যের জন্য এফুল বিভিন্ন ক্যালেন্ডারে স্থান পেয়েছে। মৌমাছি, প্রজাপতি ও কোন কোন পাখির পছন্দ এই ফুলের রেনু। উপকারি বনো ফুল মুসেন্ডা বা নাগবল্লীর পরিবেশগত গুরুত্ব রয়েছে অনেক।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

আবার আসবেন

        মুয়াজ বিন এনাম: এই কথা...

বেপরোয়া উঠতি শিশু-কিশোর; আতঙ্কে অভিভাবকেরা

        আবু সালেহ আকন বেপরোয়া হয়ে...

মানুষের কল্যাণে রোটারিয়ানদের হাত আরো প্রসারিত করতে হবে–ডিজিই বেলাল আহমদ

        রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গর্ভণর ইলেক্ট ২০২০-২০২১...