পাবজি খেলে বাবার চিকিৎসার ১৬ লাখ টাকা উড়াল কিশোর!

প্রকাশিত : ০৫ জুলাই, ২০২০     আপডেট : ১ মাস আগে

পাবজি গেমের নেশায় বাবার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে ১৬ লাখ টাকা খরচ করে ফেলেছে এক কিশোর। ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের ১৭ বছরের ওই কিশোর পাবজির বিভিন্ন পেইড অ্যাপ্লিকেশন কিনতে গিয়ে এবং গেম আপগ্রেড করতে গিয়ে ওই বিপুল অর্থ উড়িয়েছে।

আজ রোববার ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই টাকা তার বাবা চিকিৎসা খাতে ব্যয়ের জন্যে সারা জীবন ধরে সঞ্চয় করেছিলেন। পাবজির নেশায় বাবার মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্জন করা সেই টাকা কোনো চিন্তাভাবনা ছাড়াই নষ্ট করেছে ছেলে।

ওই কিশোরের বাবা একজন সরকারি চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতে চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু তিনি প্রথমে বুঝতেই পাননি যে তার ছেলে এমন কাণ্ড করছে, কারণ কর্মসূত্রে অন্য জায়গায় ছিলেন তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বাবা বলেন, ‘আমার ছেলে তার মায়ের মোবাইল ফোন থেকে ওই সমস্ত লেনদেন করতো এবং তারপর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা খরচ সংক্রান্ত যে মেসেজটি আসতো সেটি সঙ্গে সঙ্গে ডিলিট করে দিত। ফলে আমরা কিছুই বুঝতেই পারিনি।’

ওই কিশোরের কাছে তার মা-বাবার তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টেরই অ্যাক্সেস ছিল, বরাবরই সেখান থেকেই সে পাবজি গেমটি আপগ্রেড করতো। কিন্তু ছেলের আবদার মেটাতে গিয়ে যে এত বিশাল অঙ্কের অর্থ খেসারত দিতে হবে তাদের, তা একেবারেই কল্পনা করতে পারেননি অভিভাবকরা।

মা-বাবা ভাবতেন ওই কিশোর তার অনলাইন পড়াশোনোর জন্য রাতদিন মোবাইল নিয়ে বসে আছে। কিন্তু সে যে এই কাণ্ড ঘটাচ্ছে তার আন্দাজ করতে পারেননি তারা।

এদিকে সেন্সর টাওয়ার নামে একটি সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়েছে, করোনোকালে ঘরবন্দি থাকার কারণে পাবজি গেম খেলার প্রবণতা আরও বেড়ে গেছে। ফলে বিশ্বে এই মহামারির সময়েও ভালোই আয় করেছে পাবজি মোবাইল গেম তৈরির সংস্থাটি।

আরও পড়ুন

রেজা রুবেলের ভাইয়ের মৃত্যুতে ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের শোক

বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সিলেট বিভাগীয়...

ধোপাদিঘীরপাড়ে উদ্ধার শিশু ফিরে গেল মায়ের কোলে

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক : সিলেট নগরীর...