নিউইয়র্ক সিটিতে ‌করোনায় প্রতি সাড়ে ৯ মিনিটে এক জনের মৃত্যু

প্রকাশিত : ২৯ মার্চ, ২০২০     আপডেট : ৬ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ডা: ওয়াজেদ খান ঃ- নিউইয়র্ক সিটির হাসপাতাল গুলোতে দ্রুত বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হার।
শুধু ২৭ মার্চ এক রাতে প্রান হারিয়েছেন ৬৭ জন। প্রতি সাড়ে ৯ মিনিটে এক জনের মৃত্যু ঘটছে। এক দিন আগে এই হার ছিল প্রতি ১৭ মিনিট। ক্রমবর্ধমান ‌ মৃত্যুর ঘটনায় আতঙ্ক বিরাজ করছে নগরীতে। সর্বশেষ নিউইয়র্ক ‌সিটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২৩ জনে। মহামারী করোনা ভাইরাসে এখন সিটির ৩০ হাজার মানুষ আক্রান্ত। সরকারী – বেসরকারী হাসপাতাল ঠাসা করোনা রোগীতে । অনেক পরিবারে একাধিক ব্যক্তি আক্রান্ত। মৃতদের তালিকায় রয়েছে বেশ‌ কয়েকজন বাংলাদেশি। প্রতিদিন বাড়ছে এ সংখ্যা। বাংলাদেশি কমিউনিটির সাংবাদিক, চিকিৎসক সহ অনেকেই ভূগছেন করোনায়। হাসপাতালে ভর্তি হতে না পেরে বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন বেশির ভাগ রোগী।
সর্বশেষ পরিসংখ্যানে সাড়ে ৬ লাখ ছাড়িয়েছে বিশ্বে করোনা রোগীর সংখ্যা। এর মধ্যে মৃতের সংখ্যা ৩১ হাজার। করোনার উৎসস্থল চীনে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার। আর ১০ হাজার মানুষের প্রাণ হারানোর দেশ ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন এ পর্যন্ত ৯২ হাজার। এই দূ’দেশের চেয়েও এগিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্র। ১ লাখ ১৫ হাজার করোনা আক্রান্ত মানুষ নিয়ে দেশটি অবস্থান করছে পৃথিবীর শীর্ষ স্থানে।
যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ১ হাজার ৯১৩ জন। করোনার মহামারী রূপ সবচেয়ে মারাত্মক আকার ধারণ করেছে নিউইয়র্ক রাজ্যে। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৫২ হাজার ৩৩৫ জন। আক্রান্তের এ সংখ্যা গোটা দেশের ৪৬ শতাংশ। যাদের সবার COVID-19 টেষ্ট পজিটিভ। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু বরণ করেছেন ৭৩২ জন। হাসপাতাল গুলোতে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৭ সহস্রাধিক।
এই মূহুর্তে বড় সমস্যা হচ্ছে করোনা ভাইরাস টেষ্ট ও হাসপাতালে ভর্তির বিষয়টি। প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট, জ্বর ও কাশি রয়েছে
এমন রোগীকেই‌ শূধূ ভর্তি করা হচ্ছে হাসপাতালে। ফলে অনেক রোগী চিকিৎসা ছাড়াই বাড়িতে ফিরছেন। রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় করোনা ভাইরাস টেষ্ট হয়ে উঠছে কষ্টসাধ্য ও সময় সাপেক্ষ। ICU বেড
এবং ভেন্টিলেটর স্বল্পতার কারনে রোগী সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতাল গুলো।
প্রায় ২ কোটি নিউইয়র্কবাসীর জন্য ছোট বড়, সরকারী- বেসরকারী মিলিয়ে হাসপাতাল রয়েছে ১৮০টির মতো। হাসপাতাল বেড আছে ৫৩ হাজার। আইসিইউ আছে ৩ হাজার। যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনবহুল নগরী নিউইয়র্ক। ৯০ লাখ মানুষের বসবাস এই‌ শহরে। সরকারী ১১টি এবং বেসরকারী ৫১টি সহ ৬২টি হাসপাতাল আছে নিউইয়র্ক সিটিতে। প্রতি ১ লাখ মানুষের সেবায় ৩৪৫ জন চিকিৎসক নিয়োজিত রয়েছেন নগরীতে। ১৭৩৬
সালে প্রতিষ্ঠিত বেলভিউ সবচেয়ে পুরনো হাসপাতাল। নিউইয়র্ক রাজ্য এবং নগরীর জনসংখ্যা অনুপাতে গড়ে তোলা হয়েছে স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠান গুলো। কিন্তু সব পরিকল্পনা ও হিসেব নিকেশ পাল্টে দিয়েছে ভয়াবহ মহামারী করোনা। তছনছ করে দিয়েছে গোটা দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা। গত ২৪ মার্চ একদিনে সিটির
এলমহারষট হাসপাতালে ১৩ জন মানুষের মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি হয় দেশজুড়ে। তারপর ও থেমে নেই মৃত্যুর‌ মিছিল।
ভয়াবহ এ পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাজ্য জুড়ে
হাসপাতাল বেড ও আইসিইউ’ বাড়ানোর চেষ্টা
করছেন গভর্নর এন্ড্রো কুম্যো। করোনার গতি এভাবে অব্যাহত থাকলে আগামী তিন সপ্তাহে জরুরি ভিত্তিতে ৩০ হাজার ভেন্টিলেটর সহ ১লাখ ৪০ হাজার হাসপাতাল বেড প্রয়োজন হবে বলে মনে করছে আলবেনি প্রশাসন। এজন্য গভর্নর ‌সহায়তা চেয়েছেন ফেডারেল সরকারের নিকট। ইতোমধ্যে প্রায় ৮ হাজার ভেন্টিলেটর সংগৃহীত হয়েছে। সেনাবাহিনী ম্যানহাটানের জ্যাকব জেভিট সেন্টারে ১ হাজার বেডের আপৎকালীন একটি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছে। সোমবার ১ হাজার বেড সম্পন্ন নেভি শীপ‌ কমফোর্ট নিউইয়র্ক হারবারে পৌঁছবে। এছাড়া ট্রাম্প প্রশাসন অনুমতি দিয়েছে নিউইয়র্ক সিটির চার বরোতে অস্থায়ী হাসপাতাল স্থাপন করতে। চিকিৎসা সেবা থেকে অবসর নেয়া বিভিন্ন পর্যায়ের ৬২ হাজার মানুষ গভর্নর অফিসে নাম ‌লিখিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করার ইচ্ছে প্রকাশ করে। চিকিৎসক, নার্স, প্যারামেডিকস, টেকনিশিয়ান সহ স্বাস্থ্য সেবায়‌ নিয়োজিত সবাই জীবন বাজি রেখে সম্মোখ সমরে লিপ্ত করোনার বিরুদ্ধে।‌ সময়য়ত ভেন্টিলেটরের অভাবে মানুষের জীবন বাঁচাতে ব্যর্থ হয়ে কাঁদছেন অনেকে। ইমার্জেন্সি
রুমে অপেক্ষায় থেকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করছেন কেউ কেউ। হাসপাতালের মর্গ ভরে গেছে লাশে লাশে।‌ বাইরে অপেক্ষায় ভ্রাম্যমাণ লাশবাহী গাড়ী।‌ নগরীর জনহীন রাস্তায় সাইরেন বাজিয়ে বিদ্যমান অশনির জানান দিচ্ছে ‌এ্যমবুলেনস।

লিখেছেন ডা: ওয়াজেদ খান
সভাপতি, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাব

সম্পাদক,‌ সাপ্তাহিক বাংলাদেশ,
নিউইয়র্ক।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

ভালোবাসার উপহার

         হিমেল মাহমুদ: ভাবছি… দেখতে দেখতে...

আশুরার তাৎপর্য শীর্ষক প্রতিযোগিতায় সিলেটের সেরা বিশ্বনাথের হোসাইন

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: তালামীযে ইসলামিয়া...

কালবৈশাখী ঝড়ে বৃদ্ধ নিহত

         কালবৈশাখী ঝড়ে মৌলভীবাজারের বড়লেখায় নিমার...