নবীগঞ্জে গৃহপালিত পশু ছাগল ও হাঁস মারার প্রতিবাদ করায় অত্যাচার, থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত : ০৮ জুলাই, ২০২০     আপডেট : ১ মাস আগে

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি\ নবীগঞ্জে এক গৃহবধূর গৃহপালিত পশু ছাগল ও হাঁস মারার প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের অত্যাচারে অতিষ্ট মহিলার থানায় অভিযোগ। নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের ফাদুল্লা গ্রামের ছোটন মিয়ার স্ত্রী সেলিনা বেগম এ অভিযোগ করেন। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের ফাদুল্লা গ্রামের ছোটন মিয়ার স্ত্রীর সাথে একই গ্রামের মৃত বাদশা মিয়ার পুত্র তুলা মিয়ার জায়গা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে তুলা মিয়া ও তার লোকজন গত (১০ জুন) ওই মহিলার গৃহপালিত পশু হাঁস গুলো প্রাণে মেরে ফেলে। বিষয়টি গ্রাম্য মুরব্বিদের জানান সেলিনা বেগম। তুলা মিয়া গ্রামের প্রভাবশালী হওয়ায় গ্রাম্য মুরব্বিদের কর্ণপাত করেনি। এতে করে চরম বিপাকে পড়েন এই মহিলা। চলতি মাসের (৪ জুলাই) দুপুর বেলা আবারও সেলিনা বেগমের গাভী ছাগল মারতে আসে তুলা মিয়ার লোকজন। ছাগল মারার দৃশ্য দেখে পেলে সেলিনা বেগমের ছেলে সাহেল। এসময় ছাগল মারতে তাদের বাঁধা দিলে হামলার শিকার হয়ে আহত হন রেবা বেগম (৬০), ও সেলিনা বেগম (২৭),। আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন লোকজন। এ ঘটনায় সুবিচারের জন্য (৭ জুলাই) নবীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সেলিনা বেগম।

আরও পড়ুন