নগরীর মজুমদারী স্থানীয়দের মাঝে পানি সরবরাহ

,
প্রকাশিত : ১৮ নভেম্বর, ২০২০     আপডেট : ১১ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সাব্বির আহমদ::গ্রিডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২৪ ঘন্টার বেশি সময় ধরে বিদ্যুৎহীন সিলেট নগরী। এ অবস্থায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী। বাসা-বাড়িতে দেখা দিয়েছে তীব্র পানির সংকট। পানির জন্য মানুষের মধ্যে হাকার চলছে। অনেকে বাসা-বাড়ি ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। পানির দোকানগুলোতে মানুষের দীর্ঘ লাইন। পানির সন্ধানে মানুষ ছুটছেন হন্তদন্ত হয়ে।
এদিকে তীব্র পানির সংকটেও কিছু মানবিক মানুষ এগিয়ে এসেছেন মানুষের পাশে। নগরীর মজুমদারী ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী নিজ উদ্যাগে ও যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাঈদ এম এ বি মজুমদার এর প্রচেষ্টায় স্থানীয়দের পানি সরবরাহ করছেন। তারা বলেন, ‘সকাল ১১ টা থেকে সন্ধা পর্যন্ত পানি দিয়ে যাব । বিদ্যুৎ না আসা পর্যন্ত মানুষকে আমরা পানি সরবরাহ করব।’ এ সময় উপস্তিথ ছিলেন শামীম মজুমদার, বজলুর রহমান বাবুল, সমাজসেবক আবেদ বরকত মজুমদার ।প্রমুখ
নগরের প্রায় প্রতিটি পাড়া-মহল্লাতেই এখন পানির জন্য হাহাকার চলছে।
গত ( ১৬,১১,২০২০ ইং ) মঙ্গল বার বেলা পৌনে ১১টার দিকে সিলেটের আখালিয়ার কুমারগাঁও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার দুই ঘণ্টা পর পৌনে একটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও নগরীতে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি।
আজ বুধবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে পিডিবির সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা আশাবাদ ব্যক্ত করে জানিয়েছেন, আজ বিকেলের দিকে ডিভিশন ১ ও ২-এর আওতাধীন নগরীর এলাকাগুলোতে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হতে পারে।
ডিভিশন ১ ও ২-এর আওতাধীন নগরীর এলাকাগুলো হচ্ছে, জিন্দাবাজার, চৌহাট্টা, আলিয়া মাদরাসা, স্টেডিয়াম, আম্বরখনা, ওসমানী মেডিকেল, তালতলা, বন্দবাজার একাংশ, শাহজালাল উপশহর, শিবগঞ্জ, টিলাগড়, রায়নগর, এসমসি কলেজ এলাকা, মির্জাজাঙ্গাল, লামাবাজার, শাহী ঈদগাহ, হাউজিং এস্টেট, মহাজনপিট্ট, মুরাদপুর, আখালিয়া, মদিনা মার্কেট, বাগবাড়ি ইত্যাদি।
এই মুহুর্তে সিলেট মহানগরীর আড়াই লাখ গ্রাহক বিদ্যুৎহীন অবস্থায় আছেন বলে জানিয়েছেন পিডিবির প্রকৌশলী ফজলুল করিম।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন