নগরীর নবাব রোডে ছুরিকাঘাতে সিএনজি অটোরিক্সা চালক খুন

প্রকাশিত : ০৫ নভেম্বর, ২০১৮     আপডেট : ২ বছর আগে  
  

নগরীর নবাব রোডে ছুরিকাঘাত করে ময়না মিয়া (৩০) নামের এক সিএনজি অটোরিক্সা চালককে হত্যা করেছে এক দুবৃত্তরা। রোববার রাত পৌনে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ময়না মিয়া নগরীর কাজী জালাল উদ্দিন উঁচাসড়ক এলাকার আজাদী ৮০ এর বাসিন্দা আইয়ুব উদ্দিনের পুত্র। পুলিশ হন্তারক হাবিবুর রহমান হাবিবকে গ্রেফতার করেছে। সে শেখঘাট নবাব রোডের বাসিন্দা এবং স্বেচ্ছাসেবকলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত।
কোতোয়ালী থানার লামাবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নূরে আলম জানান, আটক হাবিবুর রহমান এলাকার চিহ্নিত অপরাধী। তার বিরুদ্ধে বিভিন্নজনকে ছুরিকাঘাতের অভিযোগ রয়েছে। গতকাল রোববার রাতে নবাব রোড এলাকায় তর্কাতর্কির জের ধরে সিএনজি অটোরিক্সা চালক ময়না মিয়ার হাঁটুর নিচে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করতে থাকে। এতে ময়না মিয়া গুরুতর আহত হন। তাৎক্ষণিকভাবে ৬/৭জন এলাকাবাসী ময়না মিয়াকে উদ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে আসেন। চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
চিকিৎসকরা জানান, অতিরিক্ত রক্তকরণের কারণে ছুরিকাঘাতের মাত্র ১০/১৫ মিনিটের মাথায় ময়না মিয়ার মৃত্যু হয়। তার চালিত গাড়িটি নবাব রোড এলাকায় পাওয়া যায়।
এসআই নূরে আলম জানান, রাত সাড়ে ১২টায় আটক হাবিবকে সহকারী পুলিশ কমিশনার জিজ্ঞাসাবাদ করছিলেন। সে ময়না মিয়াকে ছুরিকাঘাতে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।
অন্যদিকে ময়না মিয়া নিহতের খবর তার বাসায় পৌঁছলে স্বজনরা হাসপতালে ছুটে যান। এসময় স্বজনদের আহাজারীতে হাসপাতালের আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠে। তাৎক্ষণিকভাবে কি কারণে ময়না মিয়াকে হত্যা করা হয়েছে বুঝে উঠতে পারছেনা তার পরিবার। ময়না মিয়ার স্ত্রী ও দুই ছেলে, ২ মেয়ে রয়েছে। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ময়না মিয়ার লাশ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

আরও পড়ুন