দরগাহ জুমআ’র নামাজ ঃ মুসল্লীর সংখ্যা কম

প্রকাশিত : ০৩ এপ্রিল, ২০২০     আপডেট : ২ মাস আগে  
  

আব্দুল বাতিন ফয়সল ঃ -সিলেট করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে সরকারের বেধে দেয়া নিয়ম বেশীর ভাগ মানুষই মানছে। শুক্রবার জুমআ নামাজে শিশু কিশোর বয়স্ক সব মানুষের ভীড় মসজিদ গুলোতে লেগে থাকতো। কিন্ত বর্তমান পরিস্থিতিতে মসজিদের ভিতর শিশুদের কম দেখা যায়। এখন বিশেষ করে যাদের উপর নামাজ ফরজ হয়েছে তাদেরই বেশী মসজিদে দেখা যায় এক্ষেত্রে ইমামদেরও সাবধানতা অবলম্বন করতে দেখা যায়। ছোট সূরা দিয়ে জামাত খুবই কম সময়ে শেষ করেন। প্রশাসনের পরামর্শ অনুযায়ী মুসল্লীদের বাসায় সুন্নত পড়ে আসতে দেখা যায় এবং জামাতের পরপরই দ্রুত মসজিদ খালি হয়। শুক্রবার সিলেটের সবচেয়ে বড় জুমআ’র জামায়াত অনুষ্ঠিত হয় দরগাহ হযরত শাহজালাল (রঃ) মসজিদে। এখানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মুসল্লিরা এসে জুমআর নামাজ আদায় করতো বর্তমান করোনা পরিস্তিতির কারনে দরগাহর বাইরের মুসল্লীরা একেবারেঅনুপস্থিত ছিলেন। যার দরুন দরগাহ মুল্লিদের ভীড় কম হয়। এখন শুধু দরগাহ সংলগ্ন এলাকার মুসল্লীরা দরগাহ জামায়াত আদায় করেন। পূর্বে যেখানে ১৫/২০ মিনিট আগে দরগাহ জুমআতে গেলে জায়গা পাওয়া যেতো না। এখন দরগাহ মসজিদ কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক জুমআর ২০ মিনিট পূর্বে মসজিদ খোলা হয়। তারপরও মুসল্লীদের সমাগম কম। দরগাহ মসজিদে প্রবেশের সময় সকল মসল্লীদেও পায়ে জুতায় জীবানু নাশক স্প্রে করা হয়। দরগাহ মসজিদের খতিব নামাজ শুরুর পূর্বে ওয়াজে মুসল্লীদের করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত থাকতে বেশী বেশী ইবাদত করার আহবান জানান। পরিবারের সদস্যদের পর্দার সাথে চলার সাথে সাথে বেহায়াপনা থেকে মুক্ত থাকার আহবান জানান। তাহলেই সব রকমের গজব থেকে আল্লাহ মুক্ত করবেন।

আরও পড়ুন